fbpx
ক্রিকেটখেলা

”ইংরেজি বোঝে না বাংলাদেশি ক্রিকেটাররা, তাই কোচিং করানো কঠিন” বিস্ফোরক গিবস

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: ভাষা সমস্যায় জেরবার বাংলাদেশের ক্রিকেট। বাংলাদেশি  ক্রিকেটাররা নাকি ইংরেজি বোঝেন না! যার প্রভাব পড়ছে টিমের খেলায়। এদিন এমনই মন্তব্য করলেন দক্ষিণ আফ্রিকার প্রাক্তন ওপেনার তথা সিলেট থান্ডার্সের কোচ হার্শেল গিবস।

বর্তমানে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে সিলেট থান্ডার্সে কোচিং করাচ্ছেন গিবস। সেই স্কোয়াডে বাংলাদেশের ১২ জন ক্রিকেটার রয়েছেন। তার মধ্যে পাঁচ জন বাংলাদেশের জাতীয় দলের ক্রিকেটার। গিবসের মতে,তাঁদের কোচিং করানোর পথে ভাষার প্রতিবন্ধকতা বড় সমস্যা হয়ে দেখা দিচ্ছে। স্থানীয় ক্রিকেটাররা তাঁর কথা শুনলেও ঠিকমতো বুঝতে পারছেন না। সম্প্রতি, ঢাকার এক সংবাদপত্রে গিবস বলেছেন,’স্থানীয় ক্রিকেটারদের মধ্যে অনেকেই ইংরেজি বোঝে না। তাই ওদের কিছু শেখানো কঠিন হয়ে পড়ছে। আমার কাছে ব্যাপারটা খুব হতাশাজনক। আমি যখন কথা বলছি ওদের সঙ্গে, তখন ওরা শুনছে। কিন্তু আমি যা বলছি সেটা ঠিকঠাক বুঝতে পারছে না।’

এক ম্যাচে রুবেল মিঁয়া ২৮ বলে ১৪ করে খেলছিল। আমি টাইম-আউটের সময় মাঠে ঢুকে বললাম, ‘এটা কী হচ্ছে?’ও জবাবে শুধু মাথা নাড়ল! এটা পুরোপুরি ওর দোষ নয়। তবে এটাই বাস্তব।’

এই মুহূর্তে বাংলাদেশ জাতীয় দলেও সাপোর্ট স্টাফে বিদেশিদের রমরমা। প্রধান কোচ রাসেল ডোমিঙ্গো,ব্যাটিং কোচ নিল ম্যাকেঞ্জি,ফিল্ডিং কোচ রায়ান কুক,ফিজিয়ো জুলিয়ান কালেফাটো—সবাই দক্ষিণ আফ্রিকার। গিবস এই ব্যাপারে উদাহরণ দিয়েছেন ম্যাকেঞ্জির। তাঁর মতে “ভাষা সমস্যা একটা বড় সমস্যা। কিন্তু ম্যাকেঞ্জিও আমার মতোই দক্ষিণ আফ্রিকান। দুজনের ইংরেজি উচ্চারণ একিরকম। কিন্তু ওঁর কথা কী

কীভাবে বুঝতে পারে তামিম-মাহমুদুল্লাহরা?’’

ভাষাগত সমস্যা যতদিন না কাটবে, বাংলাদেশ ক্রিকেটের উন্নতি সম্ভব নয়। আক্ষেপ ঝরে পড়ছে এক সময়ের অন্যতম সেরা ওপেনারের গলায়।

 

@স্বর্ণার্ক ঘোষ

 

 

 

Related Articles

Back to top button
Close