fbpx
গুরুত্বপূর্ণদেশহেডলাইন

দিল্লির এইমস-এ রাজকুমারী অমৃত কউর বহির্বিভাগে একদিনে ১০ লক্ষ নমুনা পরীক্ষা করা যাবে: হর্ষবর্ধন

নয়াদিল্লি, সংবাদসংস্থা: কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রী ডঃ হর্ষবর্ধন নতুন দিল্লির এইমস-এ রাজকুমারী অমৃত কউর বহির্বিভাগ ব্লকের উদ্বোধন করলেন। এই অনুষ্ঠানে দফতরের প্রতিমন্ত্রী অশ্বিনী কুমার চৌবে এবং এইমস-এর ডিরেক্টর অধ্যাপক আর গুলেরিয়া উপস্থিত ছিলেন।

ডঃ হর্ষবর্ধন বিশিষ্ট স্বাধীনতা সংগ্রামী এবং দেশের প্রথম স্বাস্থ্যমন্ত্রী শ্রীমতী রাজকুমারী অমৃত কউরের নামে নতুন বহির্বিভাগ চালু হওয়ায় সন্তোষ প্রকাশ করেছেন। কোভিড-১৯ মহামারীর বিরুদ্ধে দেশের সমন্বিত উদ্যোগের বিষয়ে তিনি বিস্তারিত জানান।

মন্ত্রী বলেন, ধীরে ধীরে আমরা মহামারীর বিরুদ্ধে এই লড়াই জিততে চলেছি। বর্তমানে মোট কোভিড সংক্রমিত রোগীদের মধ্যে ২ শতাংশেরও কম আইসিইউতে চিকিৎসাধীন। আমাদের পরীক্ষাগারগুলির সংখ্যা ক্রমশ বাড়ানো হয়েছে। জানুয়ারি মাসে যেখানে দেশে মাত্র একটি পরীক্ষাগার ছিল, আজ সেই সংখ্যা বেড়ে ১,২৩৪ হয়েছে। আজ ৩ লক্ষ ২৬ হাজারের বেশি নমুনার পরীক্ষা করা হয়েছে।

আরও পড়ুন:একদিনে দেশে করোনা সংক্রমিত প্রায় ৩৫ হাজার, বাড়ল মৃত্যুও

মন্ত্রী আরও জানান, আগামী ১২ সপ্তাহের মধ্যে এই পরিমাণ বৃদ্ধি করে দৈনিক ১০ লক্ষ করা হবে। তিনি বলেন, এর সঙ্গে সঙ্গতি রেখে সুস্থ হয়ে ওঠার হার বৃদ্ধি পাচ্ছে এবং সংক্রমিত রোগীদের থেকে আরোগ্য লাভ করার সংখ্যার পার্থক্য ক্রমশ বাড়ছে। আজকের হিসেবে এই পরিমাণ ২,৮১,৬৬৮।

সম্পূর্ণ সরকারি উদ্যোগে বাছাই করে নির্দিষ্ট পদ্ধতিতে, অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে এবং সক্রিয়ভাবে সময়োপযোগী ব্যবস্থা গ্রহণের ফলে ইতিবাচক ফল পাওয়া যাচ্ছে।

ড: হর্ষবর্ধন এইমসের নির্দেশক এবং অন্যান্য আধিকারিকদের নির্দেশ দিয়েছেন, মা ও শিশুদের জন্য ব্লক, প্রবীন নাগরিকদের জন্য ব্লক এবং সার্জারি ব্লক দ্রুত শুরু করার, যাতে জনসাধারণ এর সুফল পান। যে সমস্ত রোগীরা নতুনদিল্লির এইমসে আসেন, তাঁরা যেন সর্বশেষ্ঠ চিকিৎসা পরিষেবা পান, সেটি নিশ্চিত করতে তিনি আধিকারিক ও বিভাগীয় প্রধানদের বিস্তারিত ভাবে প্রতিটি বিভাগের মূল্যায়ন করার আহ্বান জানান, যাতে বিভিন্ন উদ্ভাবনী ব্যবস্থা গ্রহণ করা যায়।

মন্ত্রী রোগীদের কল্যাণে নানা সংস্কার গ্রহণের পরামর্শ দেন। রোগীরা যাতে কোন সমস্যার সম্মুখীন না হন, তাঁদের যাতে খারাপ পরিষেবা না দেওয়া হয়, সেই বিষয়ে সংশ্লিষ্ট সকলকে সজাগ থাকতেও তিনি বলেছেন।

অশ্বিনী কুমার চৌবে নবনির্মিত অত্যাধুনিক বহির্বিভাগের নির্মাণ কাজে যারা যুক্ত ছিলেন, তাঁদের সকলকে ধন্যবাদ জানান। তিনি আশা করেন, নতুন ব্যবস্থার ফলে রোগীদের আরও ভালো পরিষেবা দেওয়া যাবে।
দিল্লির এইমসের প্রতি দেশের প্রতিটি প্রান্তের নাগরিকদের আস্থার কথা উল্লেখ করে চৌবে বলেন, এই প্রতিষ্ঠান সব থেকে ভালো চিকিৎসা পরিষেবা দেয়। ভবিষ্যতেও প্রতিষ্ঠানটি তার সুনাম অক্ষুন্ন রাখবে বলে তিনি আশা করেন। কোভিড-১৯ এর বিরুদ্ধে লড়াই-এ যে সব করোনা যোদ্ধারা প্রাণ বিসর্জন দিয়েছেন, তাঁদের প্রতি তিনি শ্রদ্ধা প্রদর্শন করেন।

আরও পড়ুন: ভারভারা রাও এর অবস্থা আশঙ্কাজনক, কোভিড হাসপাতালে স্থানান্তরিত করার সিদ্ধান্ত

মন্ত্রীরা বিভিন্ন বহির্বিভাগ ঘুরে দেখেন, রোগীদের সঙ্গে মত বিনিময় করেন এবং নানা ব্যবস্থাপনার খোঁজ খবর নেন।
প্রায় ৬৩০০ বর্গমিটার এলাকা জুড়ে আরএকে বহির্বিভাগ তৈরি করা হয়েছে, যা দেশের মধ্যে বৃহত্তম। এই বহির্বিভাগে ১৫ কোটি টাকা ব্যয়ে স্মার্ট ল্যাব তৈরি করা হয়েছে। এই পরীক্ষাগারে বিভিন্ন উৎসেচক ও প্রযুক্তির মাধ্যমে একটি সমন্বিত ব্যবস্থাপনা গড়ে তোলা হয়েছে। এখানে নমুনার প্রাক-বিশ্লেষণ, বিশ্লেষণ ও বিশ্লেষণ পরবর্তী ব্যবস্থাগুলি কোটি রোবটিক ট্র্যাকের প্রযুক্তির মাধ্যমে যুক্ত করা আছে। এখানে দৈনিক সর্বোচ্চ ১০ হাজার রোগীর ২ লক্ষ নমুনা পরীক্ষা করা যাবে। এক বছরের মধ্যে এর নির্মাণ কাজ শেষ হয়েছে।

এশিয়া প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলে সব থেকে বড় স্বয়ংক্রিয় ব্যবস্থা এই পরীক্ষাগারে করা হয়েছে।

Related Articles

Back to top button
Close