fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

পাঁচ বছর ধরে বন্ধ ১০০ দিনের কাজ, মেলেনি আমফানের ক্ষতিপূরণ, বিক্ষোভে শামিল মহিলারা

প্রদীপ চট্টোপাধ্যায়, বর্ধমান : পাঁচ বছর ধরে গ্রামে বন্ধ রয়েছে ১০০ দিনের কাজ। মেলেনি আমপানে ক্ষতিগ্রস্তদের ক্ষতিপূরণ । এমনই এক গুচ্ছ অভিযোগ এনে বুধবার পূর্ব বর্ধমানের গলসি ২ ব্লকের সাঁকো পঞ্চায়েত অফিস ঘোরাও করে বিক্ষোভ দেখালেন এলাকার শতাধীক মহিলা । পঞ্চায়েত প্রধানকে অফিসে না পেয়ে মহিলারা গ্রামে ফিরে গিয়ে বিক্ষোভে ফেটে পড়েন । বঞ্চনার প্রতিবাদে মহিলাদের এই বিক্ষোভ শোরগোল ফেলে দিয়েছে গলসির রাজনৈতিক মহলে ।

গলসির সাঁকো পঞ্চায়েতের সাঁকো গ্রামের পূর্ব পাড়া ও উত্তর পাড়ার মহিলারাই মূলত এদিন প্রতিবাদ বিক্ষোভে সামিল হন । তাদের অভিযোগ এলাকার উন্নয়নে পুরোপুরি ব্যর্থ পঞ্চায়েত প্রধান মহম্মদ আলি মোল্লা । প্রধানের ব্যর্থতার জন্যই পাঁচ বছর ধরে তাঁদের এলাকায় ১০০ দিনের কাজ বন্ধ রয়েছে ।  গ্রামের রাস্তা ঘাটেরও কোন সংস্কার হচ্ছে না ।  গ্রামের নলকূপ খারাপ হয়ে যারার কথা প্রধানকে জানাতে গেলে তিনি কোন কথা শুনতে চান না । আমপানে ক্ষতিগ্রস্তদের বাড়ি মেরামতির ব্যস্থাও প্রধান করেননি । কোনও সমস্যার বিষয়ে প্রধানকে জানাতে গেলে প্রধানের দুঃব্যবহারের মুখে পড়ে হয় গ্রামবাসীদের । প্রধানের বিরুদ্ধে এমনই একগুচ্ছ অভিযোগ সংক্রান্ত পোস্টার হাতে নিয়ে শতাধীক মহিলা এদিন দুপুরে পৌছেযান সাঁকো পঞ্চায়েত অফিসে ।পঞ্চায়েত অফিসের সামনে তারা বিক্ষোভ দেখান । অফিসে প্রধান না থাকায় মহিলারা গ্রামে ফিরে গিয়েও প্রতিবাদ বিক্ষোভে সামিল হন ।

বিক্ষোভে সামিল সাঁকো গ্রামের মহিলা সুতপা মাঝি বলেন, ‘আমপান ঝড়ে আমার বাড়ি ভেঙে গেছে। তবুও আজ অবধি কোন ক্ষতিপূরণ মেলেনি।’ আলো বাগদী নামে অপর এক মহিলা বলেন ,‘প্রায় পাঁচ বছর ধরে তাঁদের গ্রামে ১০০দিনের কাজ হচ্ছে না। শুধু তাই নয়, গ্রামে কোন উন্নয়ন কাজও হচ্ছে না। প্রধানকে বলতে গেলে প্রধান কোন সমস্যার কথা শুনতেই চায় না।’ অপর মহিলা মমতা মাঝি বলেন, ‘গ্রামের রাস্তা দিয়ে এখন হেঁটেও যাতায়াত করা যায়না। তবুও রাস্তার সংস্কার হচ্ছে না। খানাখন্দে ভরা রাস্তা দিয়েই তাদের যাতায়াত করতে হচ্ছে।’ বিক্ষুব্ধ মহিলারা এদিন প্রধান পদ থেকে মহম্মদ আলি মোল্লাকে বরখাস্তেরও দাবি তুলেছেন ।

মহিলাদের তোলা এই অভিযোগের বিষয়ে প্রতিকৃয়া জানার জন্য প্রধান মহম্মদ আলি মোল্লাকে ফোন করা হয় । কিন্তু তাঁর ফোন সুইচ অফ থাকায় কোন প্রতিকৃয়া পাওয়া যায়নি । তবে গলসি ২ পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি বাসুদেব চৌধুরী বলেন, গ্রামের মহিলাদের অভিযোগ তিনি শুনেছেন।মহিলারা বিডিওকেও তাদের সমস্যার কথা বলেছেন। বাসুদেববাবু জানান , মহিলাদের দাবির বিষয়টি নিয়ে তিনি প্রধানের সঙ্গে আলোচনা করবেন।

Related Articles

Back to top button
Close