fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

একশো দিনের কাজে মজুরি কম নির্ধারণ করার কারণে নির্মাণ সহায়ককে ঘিরে বিক্ষোভ পূর্বস্থলীতে

নিজস্ব সংবাদদাতা,কালনা: একশো দিনের একটি কাজের মজুরি কম নির্ধারণ করার কারণে নির্মাণ সহায়ককে ঘিরে বিক্ষোভ দেখাল পূর্ব বর্ধমানের পূর্বস্থলী দু’নম্বর ব্লকের ঝাউডাঙ্গা পঞ্চায়েতের অন্তর্গত হালতা চড়া গ্রামের বেশ কয়েকজন শ্রমিক। তাদের অভিযোগ একশো দিনের কাজের মাধ্যমে বৃহস্পতিবার ওই এলাকায় ঢালাই রাস্তার পাশে ও হালতা চড়া প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মাঠের গর্ত ভর্তির কাজের জন্য মাটি ফেলা হচ্ছিল।

কিন্তু কাজ চলার ছয়দিন দিন পর হঠাৎই নির্মাণ সহায়ক আসে ও কাজ দেখে জানায় যে তাদের পুরো মজুরি দেওয়া যাবে না কারণ তাদের কাজ সম্পূর্ণ হয়নি। এরপরেই কর্মরত ওই শ্রমিকরা নির্মাণ সহায়ককে ঘিরে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন। এরপরেই ওই শ্রমিকরা অভিযোগ তুলে জানায় কাজ কম হয়েছে হঠাৎই এই অজুহাত দেখিয়ে দুশো চার টাকা মজুরির বদলে শুধু ছিয়ানব্বই টাকা মজুরি দেওয়ার কথা ওই নির্মান সহায়ক জানান। আর এই কারণেই নির্মাণ সহায়ককে ঘিরে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করে তারা।

এই বিষয়ে নির্মাণ সহায়ক সুকুমার মন্ডল জানান, যে পরিমাণ কাজ হবে সেই পরিমাণ কাজের উপর নির্ধারণ করে মজুরি পায় একশো দিনের শ্রমিকরা। যে জায়গায় কাজ হচ্ছে সেখানে এখনও পুরো কাজ সম্পন্ন হয়নি, আগামীকাল কাজ সম্পন্ন হওয়ার পর কত মজুরি পাবে সেটা বলা যাবে। পাশাপাশি সরকারের নিয়ম অনুযায়ী পুরো কাজ না করলে পুরো মজুরি পাওয়া যাবে না। এ বিষয়ে স্থানীয় পঞ্চায়েত প্রধান রনজিত সান্যাল তিনি জানান, নির্দিষ্ট পরিমাণ কাজ না করে একশো দিনের কাজের পুরো টাকা পাওয়া যায় না।

নির্দিষ্ট পরিমাণ কাজ করলে অবশ্যই সরকারি নিয়ম অনুযায়ী পুরো টাকাই পাবেন একশো দিনের কাজে কর্মরত শ্রমিকরা। কিন্তু অনেকেই আছেন যারা ঠিকমত কাজ না করেই টাকা নেওয়ার প্রবণতা আছে। তারাই এই সমস্যা তৈরী করছেন যাতে কাজ টা না হয়। কিন্তু বর্তমানে লকডাউনের কারণে অর্থনৈতিক সমস্যা দূর করতে ও পরিযায়ী শ্রমিকদের কাজ দিতে একশো দিনের কাজ চলছে।’

Related Articles

Back to top button
Close