fbpx
আন্তর্জাতিকহেডলাইন

প্রবল বৃষ্টিতে ভয়াবহ বন্যার চিনে, মৃত কমপক্ষে ১৪১,ক্ষতিগ্রস্থ ৩.৫ কোটি

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: করোনা আতঙ্কের মাঝেই প্রবল বৃষ্টির জেরে ভয়াবহ বন্যা পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে চিনে।  গত ৭০ বছরের মধ্যে এই প্রথম ভয়াবহ বন্যা ও ভূমিধসের কবলে চিন। এখনও পর্যন্ত কমপক্ষে ১৪০ জনের মৃত্যু হয়েছে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। তবে মৃতদেহের কোনও খোঁজ পাওয়া যায়নি বলে এখনও পর্যন্ত তাঁদের নিখোঁজ বলেই জানানো হয়েছে জিনপিং প্রশাসনের তরফে। পাশাপাশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন তিন কোটি ৮০ লক্ষের বেশি মানুষ। স্থানীয় বাসিন্দাদের নিরাপদ আশ্রয়ে সরিয়ে নিয়ে যাওয়ার কাজ শুরু হয়েছে।পরিস্থিতি দেখে দেশের জনগণকে নিরাপদে রাখার জন্য তাঁর সরকার সবরকম প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিচ্ছেন বলে আশ্বস্ত করেছেন চিনের রাষ্ট্রপতি শি জিনপিং।

চিনের জলসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রক জানিয়েছে, গত জুন মাস থেকে টানা বৃষ্টির ফলে দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল ও মধ্যাঞ্চল জুড়ে বেশ কয়েকটি নদীর জলস্তর বেড়ে যাওয়ার ফলে ভয়াবহ বন্যা পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। জিয়াংজির পোইয়াং জেলায় সবচেয়ে বড় হ্রদ পোইয়াংয়ের জলস্তর ২২ দশমিক ৫২ মিটার বৃদ্ধি পেয়েছে। হ্রদের ইতিহাসে এই প্রথম এতটা জলস্তর বৃদ্ধি পেল। জল আটকাতে টানা ৯ কিলোমিটার এলাকায় বাঁধ দিতে সেনাবাহিনীকে নামানো হয়েছে। ইয়াংজি নদীর জলস্তর বেড়ে যাওয়ায় পূর্বাঞ্চলীয় জিয়াংজি ও জিয়াংশু প্রদেশে দুই নম্বর সতর্কতা জারি হয়েছে। বন্যা দুর্গতদের উদ্ধারে লালফৌজকে নামানো হয়েছে।

আরও পড়ুন: বিজেপিতে যাচ্ছেন না, সাফ জানিয়ে দিলেন পাইলট

রবিবার চিনের বন্যা নিয়ন্ত্রণ ও ত্রাণ সংক্রান্ত দপ্তর -এর তরফে বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, জুলাইয়ের ১২ তারিখ পর্যন্ত দেশের ২৭টি রাজ্যে বন্যার ফলে তিন কোটি ৭৯ লক্ষ মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন। সবথেকে ভয়াবহ পরিস্থিতি হয়েছে জিয়াংজি, আনহুই, হুবেই ও হুনানে। এখনও পর্যন্ত ১৪১ জন নিখোঁজ হয়েছেন বা তাঁদের মৃত্যু হয়েছে। আর ঘরছাড়া হয়েছেন ২ কোটি ২৫ লক্ষ মানুষ।চলতি মাসের প্রথম সপ্তাহ থেকে ২১২টি নদীর জল বিপদসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। গত কয়েকদিনের বৃষ্টিতে হুবেই, জিয়াংজি এবং ঝেঝিয়াং প্রদেশের হাজার হাজার ঘরবাড়ি জলের তলায় চলে গিয়েছে। প্রাণ বাঁচাতে উঁচু বাঁধের ওপর আশ্রয় নিয়েছেন লাখ-লাখ মানুষ। ফলে মানুষের চাপে এবং জলের তোড়ে বাঁধগুলোতেও ফাটল দেখা দিয়েছে।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, জুন মাসের প্রথম থেকে লাগাতার বৃষ্টি হচ্ছে চিনের বিভিন্ন এলাকায়। এর ফলে বেশিরভাগ নদীর জলই বিপদসীমার উপর দিয়ে বইতে শুরু করেছে। পাশাপাশি গত কয়েকদিন ধরে বৃষ্টির প্রকোপ বৃদ্ধি পাওয়ার ফলে চিনের বিভিন্ন জায়গায় প্রায় ২৮ হাজার বাড়ি ধ্বংস হয়ে গিয়েছে। ফাটল দেখা দিয়েছে বাঁধগুলিতেও।

Related Articles

Back to top button
Close