fbpx
গুরুত্বপূর্ণদেশহেডলাইন

টানা বৃষ্টিতে কেরলে ভূমিধসে কমপক্ষে ১৫ জনের মৃত্যু, শোকপ্রকাশ প্রধানমন্ত্রীর

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: লাগাতার বৃষ্টিতে ভূমিধস কেরলে। এখনও পর্যন্ত ১৫ জন নিহত হয়েছে। মাটির নীচ থেকে উদ্ধার কড়া হয়েছে আরও ১৫ জনকে। কমপক্ষে আরও ৮০ জন মানুষের আটকে থাকার সম্ভাবনা রয়েছে। কেরলের মুন্নারের কাছে ইদুক্কি এলাকায় এই ভূমিধসের ঘটনা ঘটে। পরিস্থিতি বিচার করে এর্নাকূলাম, ইদুক্কি, ত্রিশূর, পালাক্কার, কোঝিকোড়, ওয়েনাড়, কুন্নড়, কাসারগড়ে জারি হয়েছে কমলা সতর্কতা। ঘটনার দুঃখপ্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।মৃত এবং আহতদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন তিনি। এছাড়াও টুইট করে শোকজ্ঞাপন করেছেন রাহুল গান্ধী এবং অমিত শাহ।

জানা গিয়েছে, শুক্রবার মুম্নারের ইদুক্কি এলাকায় ভূমিধসের ঘটনা ঘটে। মুন্নারের কাছে রাজমালা এলাকায় প্রায় ৮০ জন শ্রমিক আটকে রয়েছেন। তবে এখনও পর্যন্ত ক্ষয় ক্ষতির পরিমাণ জানা যায়নি। ঘটনাস্থলে পৌঁছতে পেরেছে পুলিশ, দমকল দফতরের কর্মী ও সংবাদ মাধ্যমের কর্মীরা।

[আরও পড়ুন- রাম মন্দিরে অনুদান তহবিলে এখনও পর্যন্ত জমা পড়ল ৪১ কোটি টাকা]

কেরলের রাজস্ব মন্ত্রী ই চন্দ্রশেখরন জানিয়েছেন, ‘অত্যন্ত বড়মাপের বিপর্যয় ঘটে গিয়েছে। পাহাড়ি এলাকা হওয়ায় উদ্ধারকাজ এমনিতেই কঠিন, তার উপরে প্রবল বৃষ্টিতে ওই বস্তিতে যাওয়ার রাস্তাগুলিও ধুয়ে গিয়েছে। আহতদের উদ্ধার করে দ্রুত হাসপাতালে পাঠানোর জন্য আমরা বায়ুসেনারও সাহায্য চেয়েছি। কিন্তু এই ধরনের প্রতিকূল আবহাওয়ার মধ্যে তা সম্ভব নয়।’

এদিকে তিনদিনের টানা বৃষ্টিতে বিপর্যস্ত কেরলের ওয়েনাড় ও ইদুক্কি। বৃহস্পতিবার সেখানে লাল সতর্কতা জারি করা হয়। এদিকে আজ মাল্লাপুরমে জারি করা হয়েছে রেড অ্যালার্ট। অবিরাম বৃষ্টিতে পেরিয়ার নদীর জল বিপদসীমার ওপর দিয়ে বইছে। জলের তলায় আলুভারের একটি শিবের মন্দির। ইতিমধ্যেই ২০০০ মানুষকে উদ্ধার করে নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। ত্রিশূরে বহু গাছ উপড়ে গেছে। বিচ্ছিন্ন যোগাযোগ ব্যবস্থা।

Related Articles

Back to top button
Close