fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

একই পাড়ার ২ যুবকের পরপর মৃত্যুতে চাঞ্চল্য

নিজস্ব প্রতিনিধি, শিলিগুরি : ২৪ ঘণ্টার ব্যবধানে একই পাড়ার দু’জনের মৃত্যুর ঘটনায় শিলিগুড়িতে চাঞ্চল্য দেখা দিয়েছে। বৃহস্পতিবার রাতে উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে জয় মাহাতো নামে ২৭ বছরের এক যুবক মারা যায়। শ্বাস কষ্টের সঙ্গে মুখ দিয়ে রক্ত পড়ছিল তার। কিন্তু করোনা সংক্রমণ ধরা পড়েনি। শুক্রবার সন্ধ্যায় ওই এলাকারই যুবক ১৭ বছরের সুশীল মাহাতো একই উপসর্গ নিয়ে শহরের একটি নার্সিংহোমে মারা যায়। তার করোনা পরীক্ষার রিপোর্ট এখনও আসেনি।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে ১নম্বর ওয়ার্ডের আম্বেদকর কলোনির যুবক জয় ফুটবল খেলতে গিয়ে সম্প্রতি বুকে আঘাত পেয়েছিলে। সে কথা গোপন করেই রেখেছিল। সে হঠাৎ করে তার জ্বর এবং মুখ দিয়ে রক্ত ওঠায় পরিবারের লোকেরা তাকে ডাক্তারের পরামর্শ মত করোনা পরীক্ষা করান। উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল থেকে লালারসের নমুনা সংগ্রহ করার পর তাকে বাড়িতেই থাকতে বলা হয়েছিল। বৃহস্পতিবার রাতে হঠাৎ করে শ্বাসকষ্ট দেখা দেওয়ায় বাড়ির লোকেরা তাকে শহরে ভেনাস মোড় লাগোয়া একটি নার্সিংহোমে নিয়ে যান।

পরিবারের অভিযোগ, সেখান থেকে করোনা আতঙ্কে রোগীকে ফিরিয়ে দেওয়া হয়। এরপর শহরের একাধিক নার্সিংহোমে যোগাযোগ করেও রোগীকে একই কারণে ভর্তি করানো যায়নি বলে জানিয়েছেন মৃতের পরিবারের তরফে অজয় মাহাতো। শেষে উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পর কিছুক্ষণের মধ্যেই তার মৃত্যু হয়। এদিন তার লালারস পরীক্ষার রিপোর্ট আসে। তাতে করোনা সংক্রমণ পাওয়া যায়নি। মৃতদেহ পরিবারের হাতে তুলে দেওয়া হয়।

এদিন বিকেলেই ওই এলাকারই ১৭ বছরের সুশীল পাসওয়ান নামে এক যুবকও একইভাবে মারা যায়। বুকব্যাথার সঙ্গে মুখ দিয়ে রক্ত পড়ায় এদিন পরিবারের লোকেরা তাকে সেবক রোডের একটি নার্সিংহোমে নিয়ে যান। সেখানে তার মৃত্যু হয়। এলাকার প্রাক্তন কাউন্সিলর বিজেপি-র মালতী রায় তার দুই যুবকের এভাবে পরপর মৃত্যুর ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করেন। তিনি বলেন, ‘ করোনা সংক্রমণ না থাকলে কীভাবে এই মৃত্যু হল তা খুঁজে বের করা দরকার। সেজন্য পুরসভার স্বাস্থ্য টিমকে বিষয়টি খতিয়ে দেখার জন্য জানিয়েছি।’

Related Articles

Back to top button
Close