fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

পর্যটন মন্ত্রীর কেন্দ্রে ২০০ টি পরিবার তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে

সঞ্জিত সেনগুপ্ত, শিলিগুড়ি: পর্যটন মন্ত্রী গৌতম দেবের বিধানসভা কেন্দ্রে সাধারণ মানুষ তৃণমূলের প্রতি আস্থা হারাচ্ছেন। সোমবার ডাবগ্রাম-ফুলবাড়ী বিধানসভা এলাকায় অম্বিকানগরে দু’শোটি পরিবার বিজেপিতে যোগ দেয়। এই পরিবারের সদস্যরা তৃণমূলের সমর্থক ছিলেন।

এদিন এই এলাকায় বিজেপি-র নতুন কার্যালয়েরও দ্বারোদঘাটন হয়। দলের রাজ্য সাধারণ সম্পাদক রথীন্দ্র বসু নতুন কার্যালয়ের দ্বারোদঘাটন করেন। উপস্থিত ছিলেন বিজেপি-র জলপাইগুড়ি জেলা সভাপতি বাপি গোস্বমি সহ অন্যান্য জেলা নেতৃত্ব।

এদিনের অনুষ্ঠানে সাধারণ মানুষের বিজেপির প্রতি ক্রমবর্ধমান আস্থা দেখে রবীন্দ্রবাবু বলেন, ‘ করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায়  তৃণমূলের ব্যর্থতা ও দুর্নীতিতে সাধারণ মানুষ বিরক্ত হয়ে উঠেছে। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও তাঁর নেতা-নেত্রীরা সাধারণ গরিব মানুষের রেশন লুটপাট করেছেন। সাধারণ মানুষের চিকিৎসার ক্ষেত্রে সরকারের কোনও দায়িত্ব নেই। চরম অনিশ্চয়তার মধ্যে মানুষের দিন কাটছে। এই কারণেই সর্বত্র দলে দলে মানুষ বিজেপিতে যোগ দিচ্ছেন।’

প্রসঙ্গক্রমে তিনি জানান, করোনা চিকিৎসার নামে সর্বত্র রাজ্য সরকার সাধারণ মানুষের সঙ্গে ছলনা করছে। রাজ্য সরকার যে কোভিড হাসপাতালগুলি তৈরি করেছে সেখানে যে উন্নত চিকিৎসা ব্যবস্থা নেই তা প্রমাণ করে দিয়েছেন পর্যটনমন্ত্রী গৌতম দেব। তিনি বলেন, ‘সম্প্রতি শিলিগুড়ির প্রাক্তন মেয়র ও পুরসভার প্রশাসক বোর্ডের চেয়ারম্যান অশোক ভট্টাচার্য করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। পর্যটন মন্ত্রী তাঁর চিকিৎসার জন্য শহরে একটি নন-কোভিড নার্সিংহোমে ব্যবস্থা করে দেন। এনিয়ে আমাদের বিরোধিতা নেই। কিন্তু আমাদের প্রশ্ন, সরকারের উদ্যোগে যে কোভিড হাসপাতাল গুলি চলছে সেগুলি নিরাপদ নয় জেনেই গৌতমবাবু অশোক ভট্টাচার্যকে সেখানে চিকিৎসার জন্য যেতে দেননি।

এদিন দুশোটি পরিবারের বিজেপিতে যোগদানের রেশ ধরে এলাকায় প্রশ্ন উঠেছে, এরপর কি এলাকার তৃণমূল নেতারা বিজেপিতে নাম লেখাবেন? বিজেপি জেলা সভাপতি বাপি গোস্বামী পরিষ্কার জানিয়ে দেন, ‘ আমরা এখানে তৃণমূলের কোনও নেতাকে নেব না। কারণ এখানকার তৃণমূল নেতাদের বিরুদ্ধে নানা ধরনের অভিযোগ রয়েছে। সাধারণ মানুষ তাদের অত্যাচারে তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিচ্ছেন। আমরা সাধারন মানুষকে নিয়ে সংগঠনকে শক্তিশালী করতে চাই। কারণ তারাই নেতা তৈরি করেন।’

Related Articles

Back to top button
Close