fbpx
আন্তর্জাতিকগুরুত্বপূর্ণহেডলাইন

একসঙ্গে ৩৫০টি হাতির মৃত্যু! করোনা আতঙ্ক ভাবিয়ে তুলছে বিশেষজ্ঞদের

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: বতসোয়ানা আফ্রিকা মহাদেশের দক্ষিণাংশে অবস্থিত একটি স্থলবেষ্টিত রাষ্ট্র। তার আগে এর নাম ছিল বেচুয়ানাল্যান্ড। দেশের সংখ্যাগরিষ্ঠ জাতি সোয়ানা জাতির নাম থেকে দেশটির নাম এসেছে। দেশটিতে প্রাণীদের জন্য অনেকগুলি অভয়ারণ্য বিদ্যমান। এমন বন্যপ্রাণীতে ভরপুর দেশে ৩৫০ হাতির মৃত্যু যা ভাবিয়ে তুলছে সমাজকে। উদ্বিগ্ন বন দফতরের আধিকারিকরা।

জানা গিয়েছে, মে মাস থেকে এই মৃত্যু মিছিল শুরু হয়েছে। এখনও পর্যন্ত প্রায় ৩৫০ হাতির মৃতদেহ মিলেছে সংশ্লিষ্ট ব-দ্বীপ অঞ্চলে। তবে এইগুলো হাতির মৃত্যুর পিছনে করোনা সংক্রমণের কথাও উড়িয়ে দিচ্ছে না বিশেষজ্ঞরা।

আরও পড়ুন:ভারতে আক্রান্তের সংখ্যা পৌঁছল ৬ লাখে

ব্রিটেনের স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা ন্যাশনাল পার্ক রেসকিউ মাস দুয়েক আগেই দেশের সরকারকে সতর্ক করেছিল। ওই অঞ্চল আকাশপথে পরিদর্শন করে ১৬৯টি হাতির মৃত দেহের সন্ধান করেছিল এই ব্রিটিশ সংস্থা। মে মাসের ওই পরিদর্শনের পর জুন শেষ হতে না হতেই হাতি মৃত্যুর সংখ্যা পৌঁছয় সাড়ে তিনশো।

বিশিষ্ট চিকিৎসক নিয়াল ম্যাককান বিরাট সংখ্যায় হাতির মৃত্যুর ঘটনায় কোভিড হানার আশঙ্কা করছেন। আশঙ্কা প্রকাশ করে চিকিৎসক জানিয়েছেন যদি চোরাশিকারিদেরই কাজ হত, তাহলে সায়ানাইড ব্যবহারের কারণে আরও অনেক পশুরও মৃত্যু হতে পারত। গত বছরই এই ব-দ্বীপ অঞ্চলে বিষ খাইয়ে একশো হাতি হত্যার ঘটনা সামনে এসেছিল। কিন্তু সেই ঘটনার সঙ্গে এখনকার ঘটনার মিল নেই বলেই জানিয়েছেন চিকিৎসক।
কোভিড ছাড়াও মাটি বা জলবাহিত রোগ থেকেও হাতির মৃত্যু হতে পারে বলেও মনে করছেন তিনি।

আরও পড়ুন:চিনকে খুশি করার জন্য উঠেপড়ে লেগেছে রাহুল গান্ধী

ইতিমধ্যেই বেশ কয়েকটি মৃত হাতির শরীর থেকে নমুনা সংগ্রহ করে তা কোভিড পরীক্ষার জন্য ল্যাবরেটরিতে পাঠানো হয়েছে। তবে নমুনা পরীক্ষার রিপোর্ট না আসা পর্যন্ত নিশ্চিতভাবে মৃত্যুর কারণ নিয়ে ধোঁয়াশা থেকেই যাচ্ছে। রিপোর্ট আসতে একমাস সময় লাগবে বলে জানিয়েছে বতসোয়ানা।  প্রসঙ্গত, ব্রিটেনের স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা ন্যাশনাল পার্ক রেসকিউ মাস দুয়েক আগেই দেশের সরকারকে সতর্ক করেছিল বলে খবর।

Related Articles

Back to top button
Close