fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

যুবতীকে অপহরণ করতে এসে ঝাড়খণ্ডের চার যুবক গ্রেফতার চিত্তরঞ্জনে

শুভেন্দু বন্দোপাধ্যায়, আসানসোল: ঝাড়খণ্ড থেকে টাটা সুমো করে এসে এক যুবতীকে তুলে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টার ঘটনাকে কেন্দ্র করে ধুন্ধুমার কাণ্ড ঘটলো পশ্চিম বর্ধমান জেলার আসানসোলের রেল শহরে চিত্তরঞ্জনে। বুধবার রাত থেকে বৃহস্পতিবার ভোর রাত পর্যন্ত চলা এই ঘটনাকে ঘিরে ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে । শেষ পর্যন্ত ৪ জনকে গ্রেফতার করে চিত্তরঞ্জন থানার পুলিশ। ধৃতরা হলো অঙ্কিত শর্মা, বিজয় কুমার, রবি কুমার ও প্রিন্স কুমার।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, বুধবার রাতে ঝাড়খণ্ডের বোকারোর চাষ এলাকা থেকে টাটা সুমো চিত্তরঞ্জন আসে ৫ যুবক। তারা রেল শহরের ৩নং গেট দিয়ে চিত্তরঞ্জনে ঢোকে। শহরের সিমজুড়ি এলাকায় ৮৮ নং স্ট্রিটের  ২০এ আবাসনের সামনে দাঁড়িয়ে তারা এক যুবতীর নাম করে খোঁজ করতে থাকে। ঐ আবাসনের সামনে দাঁড়িয়ে ঐ যুবকরা হুমকি দিয়ে চিৎকার করে বলতে থাকে তাকে তারা তুলে নিয়ে যেতে এসেছে। ঐ যুবতী চিৎকার  করলে তার ভাই শচীন ও এলাকার বাসিন্দারা  গাড়িটিকে ঘিরে ফেলে।

এরইমধ্যে ঐ যুবকরা যুবতীর ভাইকে শচীন মির্ধাকে গাড়িতে তুলে নিয়ে পালানোর চেষ্টা করে। কিন্তু নিরাপত্তা  থাকা রেল শহরের ৩ নং গেটে আটকে যায় গাড়িটি । সেখানে মোতায়েন থাকা আরপিএফ  গাড়িটি ধরে ফেলে। সেই খবর পেয়ে এলাকায় পৌঁছান চিত্তরঞ্জন থানার আইসি অতীন্দ্রনাথ দত্ত সহ অন্য পুলিশ। পুলিশ সেখান থেকে  বিজয় কুমার ও মূল অভিযুক্ত অঙ্কিত শর্মাকে ধরে। অন্যদিকে সেখান থেকে পালিয়ে যাওয়া    আরো দুজন রবি কুমার ও প্রিন্স কুমারকে  রূপনারায়ণপুর পুলিশ আটক করে চিত্তরঞ্জন পুলিশের হাতে তুলে দেয়।  টাটা সুমোর চালক জামসেদ আনসারিকে পুলিশ গ্রেফতার করতে পারেনি। তবে গাড়িটিকে পুলিশ আটক করে। ধৃত চারজনকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ করে বৃহস্পতিবার সকালে পুলিশ আসানসোল আদালতে পাঠায়। বিচারক তাদের জামিন নাকচ করেন।

আসানসোল দুর্গাপুর পুলিশের ডিসিপি (পশ্চিম)  অনমিত্র দাস এদিন বলেন,  অঙ্কিত শর্মার সঙ্গে চিত্তরঞ্জনের এক যুবতীর সঙ্গে ফেসবুকের মাধ্যমে পরিচয় হয়েছিলো। তাদের মধ্যে ফেসবুক সূত্রে বন্ধুত্ব বা একটা সম্পর্ক তৈরী ছিলো। যুবতীর সঙ্গে দেখা করতে এসেই বোকারোর ঐ যুবকরা চিত্তরঞ্জনে প্রথমে গণ্ডগোল করে। পরে মারমিট করে তারা । চারজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। গাড়িটিকে ধরা হলেও গাড়ি চালক পালিয়ে যায়। তার খোঁজ চলছে। যুবতীর পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে ধৃতদের বিরুদ্ধে অপহরণের একটি মামলা করা হয়েছ৷

অন্য একটি সূত্র থেকে জানা গেছে, অঙ্কিত শর্মা নামে যুবকের সঙ্গে চিত্তরঞ্জনের ঐ যুবতীর ফেসবুকের মাধ্যমে প্রেম প্রণয়ের সম্পর্ক হয়েছিলো। পরে ঐ যুবতী সেই সম্পর্ক ছিন্ন করে দেয়। সেই কারণেই বন্ধুদের সঙ্গে নিয়ে ঐ যুবতীকে অপহরণ করতে এসেছিল অঙ্কিত।

Related Articles

Back to top button
Close