fbpx
গুরুত্বপূর্ণপশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

দশমীতে প্রতিমা বিসর্জনের সময় মর্মান্তিক দুর্ঘটনা, নৌকা ডুবে মৃত্যু ৫ যুবকের

কৌশিক অধিকারী, বহরমপুর: মুর্শিদাবাদ জেলার বেলডাঙ্গাতে ঠাকুর বিসর্জন করতে গিয়ে ভয়াবহ দুর্ঘটনা। দশমী বিদায় লগ্নে ডুমনিদহ বিলে ঠাকুর বিসর্জন করতে গিয়ে নৌকা ডুবে জলে তলিয়ে গিয়ে মৃত্যু হল পাঁচ জনের। পুলিশ জানিয়েছে মৃতদের নাম, সুখেন্দু দে (২১), পিনকন পাল(২৩), অরিন্দম ব্যানার্জি (২০), সোমনাথ ব্যানার্জি (২২), নিপন হাজরা( ৩৭)। মৃতরা প্রত্যেকেই এক পরিবারের বাসিন্দা।

স্হানীয়রা জানিয়েছেন, প্রতিবছর মতো এবছর ডুবনী বিলে বেলডাঙা শহরের হাজরা বাড়ির দুর্গাপূজো বিসর্জন করা হচ্ছিল নৌকা করে। নৌকা অতিরিক্ত যাত্রী নিয়ে বিসর্জন পর্ব চলাকালীন হঠাৎ নৌকা উল্টে যায়। প্রায় ৩৫জন নৌকা যাত্রী ছিল, সাঁতরে সবাই উদ্ধার হলেও তখনই নিখোঁজ হয়ে যায় ৫জন। যদিও পরে চারজনের দেহ উদ্ধার করে বেলডাঙা ব্লক গ্রামীন হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে চিকিৎসকেরা তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। পরে সোমবার রাতে আরও একজনের মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

এলাকার বাসিন্দারা জানিয়েছেন, বেলডাঙার ডুমনিদহ বিলে হাজরা বাড়ির প্রতিমা নিরঞ্জন দেওয়ার প্রস্তুতি শুরু হয়। বিলের মাঝামাঝি, জোড়া নৌকা থেকে প্রতিমা নিরঞ্জনের প্রক্রিয়া চলে। সেই সময় আচমকা দুর্ঘটনা। দুটি নৌকায় প্রায় ৩০-৩৫জন যাত্রী ছিলেন। নৌকায় থাকা বেশিরভাগ লোকজন সাঁতরে পাড়ে আসতে পারলেও, খোঁজ মিলছিল না পাঁচজনের। রাতে একে একে বিলের জল থেকেই উদ্ধার হয় পাঁচজনের নিথর দেহ।

প্রত্যক্ষদর্শীর মতে, হাজরা বাড়ির পুজো প্রায় সাড়ে তিনশো বছরের পুরনো। এই প্রতিমা নিরঞ্জনের পরই, বেলডাঙার অন্যান্য মণ্ডপের প্রতিমা নিরঞ্জন হয়। সেই নিরঞ্জন পর্বে এই পরিণতিতে এলাকাজুড়ে বিষাদের সুর। পুলিশের প্রাথমিক অনুমান, বিসর্জনের সময় নৌকা উল্টে, কাঠামোর নিচে চাপা পড়ে মৃত্যু হয়েছে পাঁচজনের। সকলের মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য বহরমপুর মেডিকেল কলেজ পাঠায় পুলিশ। দশমীর দিনে এই ঘটনায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে গোটা এলাকায়।

মঙ্গলবার দুপুরে বহরমপুরে মুর্শিদাবাদ মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে মর্গে মৃতদেহ ময়নাতদন্তের পর দেহ তুলে দেওয়া হয় পরিবারের সদস্যদের হাতে। দশমী পর একাদশী দিনে বেলডাঙা হাজরা বাড়িতে নিথর দেহ আসতেই শোকের ছায়া নেমে আসে গোটা গ্রামে।

Related Articles

Back to top button
Close