fbpx
গুরুত্বপূর্ণদেশহেডলাইন

দেশে একদিনে করোনা আক্রান্ত ৫৩ হাজার, স্বস্তি দিয়ে দেশে করোনার সংক্রমণ নিম্নমুখী

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক:  আগস্টের শুরু থেকেই দেশে প্রতিদিন ৬০ হাজারের বেশি মানুষ নতুন করে করোনা আক্রান্ত হচ্ছিলেন। গোটা বিশ্বের মধ্যে ভারতেই সংক্রমণ বাড়ছিল সবচেয়ে দ্রুতহারে। সোমবার একদিনে নতুন সংক্রমণ ধরা পড়েছিল ৬২ হাজার। আজ মঙ্গলবার হিসেবে দেখা গেল, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৫৩ হাজার ৬০১। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করোনা আক্রান্তের সংখ্যাটা প্রায় ১০ হাজার কমে গেল। দেশে গত একদিনে নতুন করে COVID-19 আক্রান্ত হয়েছেন সাড়ে ৫৩ হাজার মানুষ। যা গত ২ সপ্তাহের মধ্যে সর্বনিম্ন। সংক্রামিতের মোট সংখ্যা ২২ লাখ ৬৮ হাজার ৬৭৫।

করোনা অ্যাকটিভ রোগী ৬ লাখের বেশি। দেশে গত একদিনে নতুন করে কোভিড আক্রান্ত হয়েছেন সাড়ে ৫৩ হাজার মানুষ। যা গত ২ সপ্তাহের মধ্যে সর্বনিম্ন। মঙ্গলবার সকালে স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রকের দেওয়া পরিসংখ্যান বলছে, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে ৫৩ হাজার ৬০১ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। যা গতকালের থেকে প্রায় ১০ হাজার কম।মোট সংক্রমণের নিরিখে এখনও বিশ্বে তৃতীয় স্থানে ভারত।  এখনও পর্যন্ত ১৫ লক্ষ ৮৩ হাজার ৪৯০ জন করোনা রোগী সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। আপাতত চিকিৎসাধীন ৬ লক্ষ ৩৯ হাজার ৯২৯ জন। এই মুহূর্তে ভারতে সুস্থতার হার ৬৯.৮০ শতাংশ। সক্রিয় রোগীর সংখ্যা কমে দাঁড়িয়েছে ২৮.২১ শতাংশ। স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ মন্ত্রকের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে করোনা আক্রান্ত হয়ে প্রাণ হারিয়েছেন ৮৭১ জন। এর ফলে মোট মৃতের সংখ্যা গিয়ে দাঁড়াল ৪৫ হাজার ২৫৭ জনে। অন্যান্য দেশের তুলনায় ভারতে মৃত্যুর হারও অনেকটাই কম।

মহারাষ্ট্রে অবশ্য আগের দু’দিনের তুলনায় গত ২৪ ঘন্টায় করোনার সংক্রমণ অনেকটাই হ্রাস পেয়েছে। এদিন রাজ্যের স্বাস্থ্য দফতরের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, গত ২৪ ঘন্টায় রাজ্যে নতুন করে সংক্রমিত হয়েছেন ৯ হাজার ১৮১ জন। যার ফলে মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫ লক্ষ ২৪ হাজার ৫১৩ জনে। মারণ ভাইরাসের ছোবলে আরও ২৯৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে রাজ্যে করোনার বলি হলেন ১৮ হাজার ৫০ জন।

অন্ধ্রপ্রদেশেও সংক্রমণ অনেকটাই নিম্নমুখী। গত দুই সপ্তাহের মধ্যে গত ২৪ ঘন্টায় সবচেয়ে কম রুগী শনাক্ত হয়েছে। স্বাস্থ্য বুলেটিন অনুযায়ী, ‘গত ২৪ ঘন্টায় আরও ৭ হাজার ৬৬৫ জনের শরীরে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ধরা পড়েছে। যার ফলে রাজ্যে মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২ লক্ষ ৩৫ হাজার ৫২৫ জনে। করোনায় আক্রান্ত হয়ে আরও ৮০ জনের মৃত্যু হওয়ায় মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়াল ২ হাজার ১১৬ জনে।

আরও পড়ুন: ইতিহাসে প্রথম, ভারতের স্বাধীনতা দিবসে টাইমস স্কোয়ারে উড়বে ‘তেরঙ্গা’

কর্নাটকে টানা তিন সপ্তাহ ধরে করোনার বেলাগাম তাণ্ডব চলার পরে গত ২৪ ঘন্টায় সংক্রমণ অনেকটাই কমেছে। কন্নড়ভূমে নতুন করে সংক্রমিত হয়েছেন ৪ হাজার ২৬৭ জন। এ নিয়ে এখনও পর্যন্ত রাজ্যে মারণ ভাইরাসে সংক্রমিত হয়েছেন এক লক্ষ ৮২ হাজার ৩৫৪ জন। পাশাপাশি প্রাণঘাতী ভাইরাসের ছোবলে আরও ১১৪ জনের প্রাণ ঝরেছে। রাজ্যে মোট প্রাণ হারালেন ৩ হাজার ৩১২ জন।

ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অব মেডিক্যাল রিসার্চ (আইসিএমআর) জানাচ্ছে, কোভিড টেস্ট, কনট্যাক্ট ট্রেসিং ও ট্রিটমেন্ট এই তিন ‘টি’ ফর্মুলায় সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা চলছে দেশজুড়েই। এখনও অবধি আড়াই কোটির কাছাকাছি কোভিড টেস্ট হয়েছে। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রক জানিয়েছে, অগস্ট থেকে প্রতিদিন প্রায় দশ লাখের কাছাকাছি কোভিড টেস্ট করার পরিকল্পনা করা হয়েছে। এখন সরকারি ও বেসরকারি মিলিয়ে ১৪০৬টি ল্যাবরেটরিতে কোভিড টেস্ট করা হচ্ছে, যার মধ্যে ৯৪১টি সরকারি ও ৪৬৫টি বেসরকারি ল্যাবরেটরি রয়েছে।

Related Articles

Back to top button
Close