fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

সামাজিক বয়কটের শিকার হলদিয়ার এক পরিবার

মিলন পণ্ডা, হলদিয়া (পূর্ব মেদিনীপুর): সম্পত্তি সংক্রান্ত বিবাদের কারণে এক পরিবারকে সামাজিক বয়কট শিকার হলেন। বাড়ির সামনে যাতায়াতের রাস্তা বেড়া দিয়ে বন্ধ করে দেওয়ার অভিযোগ উঠল গ্রাম কমিটি বিরুদ্ধে। যদিও সামাজিক বয়কট ঘটনার পুরো ভিওিহীন বলে দাবি করে গ্রাম কমিটি। পুরো ঘটনায় পুলিশকে জানিয়ে কোন পদক্ষেপ গ্রহণ করেনি বলে নারায়নবাবু অভিযোগ। চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে পূর্ব মেদিনীপুর জেলার হলদিয়া মহাকুমার ভবানীপুর থানার ইন্দ্রমানিকচক গ্রামে।

জানা গিয়েছে, ওই গ্রামের বাসিন্দা নারায়ণ বেরা ইন্দ্রমানিকচক প্রাথমিক বিদ্যালয় সংলগ্ন এলাকায় একটা বাস্তু জায়গায় কিনেছিলেন। পরে জানা যায়, স্থানীয় এক ব্যক্তির নামে জায়গার বর্গাদার থাকলেও সম্পত্তি রের্কড রয়েছে ওই প্রাথমিক বিদ্যালয়ের নামে বলে অভিযোগ। এই সমস্যা মেটানোর জন্য স্থানীয় আদালতে দ্বারস্থ হন নারায়নবাবু। ঘটনার সূত্রপাত সাম্প্রতিক আমফান ঘূর্ণিঝড়ে ফলে স্থানীয় গ্রাম কমিটি পড়ে যাওয়া একটি গাছ কেটে নেয় বলে অভিযোগ। ঘটনায় ভবানীপুর থানায় অভিযোগ জানাতে গেলে অভিযোগ জানালেও কোন অভিযোগ নেয়নি। বরং তারপরেই নারায়ণবাবু ও তার পরিবারের সদস্যদের সামাজিক বয়কটে মুখে পড়তে হয়। শুধু তাই নয় নারায়ণবাবুর বাড়ির সামনে বেড়া দিয়ে যাতায়াত বন্ধ করে দেয় বলে অভিযোগ। বেড়া দেওয়ার কারণে বাড়িতে ঢুকতে পারছেন না, আপাতত বাইরে দিন কাটাচ্ছেন নারায়ণবাবু বলে অভিযোগ। অপরদিকে নারায়নবাবুর বাকী সদস্যরা বাড়ির বাইরে বেরোতে পারছেন না বলে গৃহবন্দি অবস্থায় রয়েছে অভিযোগ। শুধু চাই নয় পানীয় জল থেকে শুরু করে সামনে মুদির দোকানে সমস্ত কেনাকাটা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে ওই পরিবারকে বলে অভিযোগ। পুকুর থেকে জল তুলে ফুটিয়ে পানীয় জল খেতে হচ্ছে বলে ওই পরিবারের সদস্যদের অভিযোগ।

আরও পড়ুন:সামাজিক বয়কটের শিকার হলদিয়ার এক পরিবার

গত ১৮ জুন নারায়ন বেরা ভবানীপুর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। তিনি অভিযোগ করে বলেন, গ্রাম কমিটির পক্ষ থেকে বাড়ির সামনে বেড়া দিয়ে যাতায়াতের বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে এর ফলে পরিবারের সদস্যরা বাইরে বেরোতে পারছেন না। পুলিশকে জানিয়ে পুলিশ কোনও ব্যবস্থা গ্রহণ করেনি বলে অভিযোগ। তিনি আরও বলেন, আমাকে পুলিশের পক্ষ থেকে বিডিও ও গ্রাম পঞ্চায়েতের জানানোর জন্য পরামর্শ দেওয়া হয়। সেখানে জানিয়েও কোনও সমাধান সূত্র হয়নি।

গ্রাম কমিটির পক্ষে জয়ন্ত পাল বলেন, নারায়ণ বেরা গ্রামবাসীদের মিথ্যা মামলার ফাঁসানো ভয় দেখান। জায়গার বিষয়টি আদালতে বিচারাধীন অবস্থায় রয়েছে। সামাজিক বয়কটে অভিযোগ পুরোপুরি ভিত্তিহীন। সেক্ষেত্রে আদালতে মামলা বিচারাধীন থাকায় কি করে নারায়নবাবু জমির মালিকানা দাবি করছেন। গ্রাম কমিটি ও গ্রামে সদস্যদের সিদ্ধান্ত মেনেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। হলদিয়া পুলিশ আধিকারিক তন্ময় মুখোপাধ্যায় বলেন বিষয়টি জানা নেই। খোঁজখবর নিয়ে দেখা হবে।
স্থানীয় গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান ওয়াব আলি বলেন, আগামী কয়েকদিনের মধ্যে দুই পক্ষকে নিয়ে বসে ব্যাপারটা মিটিয়ে ফেলা হবে।

Related Articles

Back to top button
Close