fbpx
বিনোদনহেডলাইন

সুমন্ত শুভ্র পরিচালিত “The wall” এবার উঠে এলো এশিয়ান ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল-এর তালিকায়…

শিল্পা চ্যাটার্জী, কলকাতা: “ছোটো ভ্রুণের মধ্যে বড়ো মহীরুহের বিকাশ লুকিয়ে থাকে”- কথাটি বর্ণে বর্ণে সত্যি হলো আরো একবার। ১৯ মিনিট ০৯ সেকেন্ড দৈর্ঘ্য নেহাতই সমাজের জড় পদার্থের সাথে সজীবের বিবর্তনের ধারাবাহিকতায় এক অন্য কাহিনী।

 

গল্পটি শুরু ও শেষ এর মধ্যে রয়েছে একটি দেয়াল। যেখানে শুধু নানা সময়ের প্রেক্ষাপটের মত পোস্টার মারা হয়। জড় বস্তু হলেও সে বিবর্তনের চিহ্নই বহন করে। এ গল্পের আর এক অন্যতম ঘটনা হলো এক পাগলের উপস্থিতি, যদিও সেও জড়ো বস্তু হিসাবেই অস্তিত্ব বহন করেছে গল্পের কাহিনী বর্ণনে। কোনো বাক্যালাপ না করেও তার অদ্ভুত কৌতূহল শেষের টুইস্ট এর দিকে নিয়ে যায়।

গল্পটিতে পাগলের ভূমিকায় ‘নরেণ ভট্টাচার্য্য’ চায়ের দোকানের প্রধান মাতব্বর ওরফে নীলুর ভূমিকায় ‘অমিত সিংহ’-এর অভিনয় দক্ষতা বিশেষ প্রশংসার দাবি রাখে। এছাড়াও ছোটো ছবির স্বল্প পরিসরে আবীর বিশ্বাস, তিতাস চক্রবর্তী, সুস্মিতা মজুমদার, সুকৃত সাহা ও দেবাদ্রিতা ঘোষ ও শ্রমণা রায়চৌধুরী নিজেদের অবস্থান সম্পর্কে সঠিক ধারণাই তৈরি করেছে দর্শক মনে।

গল্পের পরিচালক সুমন্ত শুভ্র কাহিনী বর্ণনায় নিপুণতার পরিচয় দিয়েছে। পরিচালক শুভ্র দত্ত যুগ শঙ্খ এর প্রতিনিধি কে জানান যে, গল্পটির ভাবনা চিন্তা আর একজন পরিচালক সুমন্ত বাবুর মাথায় আসে এবং যুগলে সেই কাজ সম্পাদনের ব্রতী হন। প্রতিনিধি কে তিনি আরো বলেন যে, এরকম ব্যতিক্রমী চিন্তাভাবনার মুখাপ্রেক্ষ্মীত হলো মানুষের গল্প শোনার ইচ্ছা।

গল্পের ব্যতিক্রমী তার সঙ্গে রয়েছে আরও একটি বিশেষ ব্যাপার পরিচালক দুজন তথা সুমন্ত বসু ও শুভ্র দত্ত একত্রে সুমন্ত শুভ্র নামে কাজ যা বেশ অন্যরকম বার্তা প্রদান করে থাকে। এছাড়াও গল্পের চিত্রনাট্য, আবহ মেকআপ সবকিছুই বেশ নতুনত্বের ছোঁয়া রেখেছে। সাধারণ ভাবেই ছোটো ছবি দর্শক তৃপ্তির জন্য বানানো হয়ে বানিজ্যিক সাফল্যের কথা না ভেবেই। তবুও কোনো কার্পণ্য করেননি প্রযোজক।

বেশ কিছু ফেস্টিভ্যালে গুণগত মানের জন্যে সমাদৃত হয়েছে এই ছবি। সামনে রয়েছে আরো বহু ফেস্টিভ্যাল। সম্প্রতি, ৮ ই সেপ্টেম্বর Asian International Film Festival -এ, ‘Best Film’ – হিসেবে মনোনীত হয়েছে ছবি ‘ THE WALL’! এছাড়াও কলকাতা ইন্টারন্যাশনাল মাইক্রো শর্ট ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল এ ও এই ছবিটি ভীষণ ভাবে প্রশংসা পেয়েছে। করোনা পরিস্থিতির জন্য অনুষ্ঠান অনলাইন ভাবেই সম্মর্ধনা পেয়েছেন। তবে পুরো টিম কেই কিছুদিন পরে সম্মার্ধনা দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন পরিচালক।

এখনকার সময়ে একটি দেওয়ালের আড়ালে ঘটে যাওয়া ঘৃণ্য ঘটনার সম্মুখীন হন নারী থেকে পুরুষ জাতি। লোভাতুর সমাজের লালসা চরিতার্থ করতে কখনো নারী হয়ে যায় বেশ্যা আবার সেই যখন সমাজের মূল স্রোতে ফিরতে চায় তখনই সমাজের তির্যক দৃষটভঙ্গী তাকে কটাক্ষ করতে ব্যস্ত হয়ে পড়ে। একটি মানসিক ভারসাম্যহীন মানুষ সব প্রত্যক্ষ করেও জড় পদার্থের মত ক্ষুদ্র উপস্থাপনায় ছবিটি সমৃদ্ধ করে। দর্শক মহল থাকে নির্বাক পরিচালকের দক্ষতার অ্যাঙ্গেলে। কিন্তু সেই দেয়াল যা রাজনীতি থেকে পর নিন্দা কি এক বিবর্তনের সাক্ষ্য প্রদর্শক হিসাবে রয়ে গেছে তা শেষে কিভাবে প্রদর্শিত হবে তাই গল্পের বুনট এ এনেছে টুইস্ট।

পরিচালক শুভ্র দত্ত যুগশঙ্খের প্রতিনিধিকে বলেন যে, তাঁদের যুগলের নতুন আরো গল্পের কথা চলছে খুব শীঘ্রই নতুন চমক আসবে এমনটাই জানা গেছে।

Related Articles

Back to top button
Close