fbpx
কলকাতাহেডলাইন

৪ মাস বেঙ্গালুরু নিবাসী স্বামীর সঙ্গে দেখা না হওয়ায় হস্টেলে আত্মঘাতী আর আহমেদ ডেন্টাল কলেজের ছাত্রী

অভীক বন্দ্যোপাধ্যায়, কলকাতা: সুদীর্ঘ লকডাউনে পেশাগত থেকে ব্যক্তিগত জীবনে অবসাদগ্রস্ত হয়ে পড়ছেন অনেকেই। ঠিক সেভাবেই ৪ মাস ধরে বেঙ্গালুরু নিবাসী স্বামীর সঙ্গে দেখা না হওয়ায় অবসাদগ্রস্ত হয়ে পড়েছিলেন আর আহমেদ ডেন্টাল কলেজের ওরাল সার্জারি দ্বিতীয় বর্ষের পিজিটি ছাত্রী মানসী মণ্ডল। বৃহস্পতিবার দুপুরে হস্টেলের ঘর থেকে উদ্ধার হল বছর ছাব্বিশের ওই জুনিয়র চিকিৎসকের ঝুলন্ত দেহ। অবসাদেই ওই তরুণী আত্মঘাতী হয়েছেন বলে প্রাথমিক তদন্তে অনুমান পুলিশের।

পুলিশ সূত্রে খবর, এদিন সকালে সওয়া ৯ টা নাগাদ বন্ধুদের ফোন করেন মানসী।  তিনি জানান, তার শরীরটা ভাল নেই, তাই কয়েকটা ওষুধ খেয়ে তারপর কলেজে যাবেন। কিন্তু নির্দিষ্ট সময় পেরিয়ে যাওয়ার পরেও তাঁকে কলেজে আসতে না দেখে খোঁজাখুঁজি শুরু হয়। হস্টেলের ঘরে খোঁজ করতে এসে লেডিস হস্টেলের সুপার কিছুতেই ঘরের দরজা খুলতে পারেননি। তখনই তিনি বিষয়টি তিনি তখনই কলেজ কর্তৃপক্ষকে জানান।
 জানা গিয়েছে,  সেই সময়ে এই ডেন্টাল কলেজকে করোনা হাসপাতাল হিসেবে তৈরির জন্য বৈঠক চলছিল। সেই মতো হাসপাতালে কী কী রদবদল প্রয়োজন তা ঠিক করতে বৈঠকে বসেছিলেন সুপার-সহ পদস্থ আধিকারিকরা। এরই মধ্যে সুপারের কাছে খবর আসে, হস্টেলে নিজের ঘরের দরজা খুলছেন না মানসী। খবর পেয়ে ছোটেন সুপার। খবর যায় এন্টালি থানায়।
এরপরই খবর দেওয়া হয় পুলিশকে। দুপুর সওয়া ১টা নাগাদ বন্ধ ঘরের দরজা ভেঙে আত্মঘাতী জুনিয়র চিকিৎসকের ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার করে এন্টালি থানার পুলিশ। ঘরের ভিতর থেকে একটি সুইসাইড নোট উদ্ধার করা হয়েছে এন্টালি থানার পুলিস। সুইসাইড নোটে লেখা রয়েছে, জীবনের প্রতি আসক্তি হারিয়ে গিয়েছিল। স্বামী বেঙ্গালুরুতে থাকেন, মার্চ থেকে দেখা হয়নি। একথা বন্ধু বা রুমমেটদের একাধিকবার মানসী জানিয়েছিলেন। এতদিনের বিচ্ছেদ আর সহ্য করতে পারছেন না বলে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত বেছে নিতে বাধ্য হয়েছেন।
কলেজ সূত্রে খবর, পুরুলিয়ার বাসিন্দা মানসী মণ্ডল নর্থ বেঙ্গল ডেন্টাল কলেজের ছাত্রী ছিলেন। পরে তিনি ম্যাক্সিলোফেসিয়াল ওরাল সার্জারির জন্য স্নাতকোত্তর কোর্স করতে আর আহমেদ ডেন্টাল কলেজে সুযোগ পান। এখানেই পোস্ট গ্রাজুয়েট ট্রেনি অর্থাৎ পিজিটি হিসেবে দ্বিতীয় বর্ষে পড়াশোনা করছিলেন। তরুণীর দেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠিয়েছে পুলিশ। পুরুলিয়ায় তরুণীর বাড়িতে খবর দেওয়া হয়েছে।

Related Articles

Back to top button
Close