fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

ইট দিয়ে মাথা থেঁতলে কাকাকে খুনের অভিযোগ ভাইপোর বিরুদ্ধে

প্রদীপ চট্টোপাধ্যায়, বর্ধমান: ইট দিয়ে মাথা থেঁতলে কাকাকে খুনের অভিযোগ উঠলো ভাইপোর বিরুদ্ধে । চাঞ্চল্যকর এই ঘটনাটি ঘটেছে শহর বর্ধমানের
উদয়পল্লী এলাকায় ।

মৃতর নাম বিজয় বিশ্বাস (৫১)। উদয়পল্লী এলাকাতেই তার বাড়ি । এলাকাবাসীরা অভিযুক্ত ভাইপো মহাদেব বিশ্বাসকে ধরে গণধোলাই দিয়ে এদিন পুলিশের হাতে তুলে দেয়। মহাদেবের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করেছেন এলাকাবাসী ।

ধৃত মহাদেবের মা এদিন পুলিশ আধিকারিককে বলেন , “সম্পত্তি নিয়ে তাঁদের সঙ্গে বিজয় বিশ্বাসের বিবাদ ছিল। সেই কারণে তাঁদের মধ্যে প্রায়দিনই ঝামেলা লোগে থাকতো। তবে ছেলে যে এতবড় ঘটিনা ঘটিয়ে ফেলবে তা তিনি কল্পনাও করতে পারেন নি । ” ।

মৃতর প্রতিবেশী পরিবারের মহিলা অনিতা বিশ্বাস বলেন, সোমবার ভোর তিনটে থেকে কাকা ও ভাইপোর মধ্যে বচসা বাঁধে ।চলতে থাকে গালিগালাজ। এমত অবস্থায় প্রতিবেশীরাই তাঁদের চুপ করতে বলে যে যার নিজের বাড়িতে ঢুকে পড়ে। সকাল হতেই এলাকাবাসী দেখেন রক্তাক্ত অবস্থায় গ্রামের রাস্তার পাশে লুটিয়ে পড়ে আছেন বিজয় বিশ্বায়। তার মাথায় আঘাতের ক্ষত ছিল ।

এলাকার লোকজন তাকে উদ্ধার করে বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যান । সেখানে কর্ত্যবরত চিকিৎসক বিজয় বিশ্বাস কে মৃত বলে জানান। ওই সময়ে গ্রামবাসীরা দেখেন মৃতর ভাইপো মহাদেব উৎকন্ঠা নিয়ে ঘটনাস্থলের অদূরে ঘোরাফেরা করছে । তার জমায় রক্ত লাগা থাকা দেখে সবার সন্দেহ হয় ।

এলাকার লোকজন তাকে ধরে ধোলাই দিতেই সে নিজের কাকাকে খুন করার কথা স্বীকার করে । তারই মধ্যে বর্ধমান থানার পুলিশ গ্রামে পৌছে যায় । পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয় মহাদেবকে । ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ রক্ত লাগা ইট উদ্ধার করেছে।

পুলিশের অনুমান ইটে করে মাথায় আঘাত করেছে ভাইপো মহাদেব বিশ্বাস তার কাকাকে খুন করেছে । এদিন বর্ধমান হাসপাতাল পুলিশ মর্গে মৃত ব্যক্তির দেহের ময়নাতদন্ত হয় । পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে । ধৃতকে জিজ্ঞাসাবাদ করে পুলিশ খুনের ঘটনার সবিস্তার জানার চেষ্টা চালাচ্ছে ।

Related Articles

Back to top button
Close