fbpx
কলকাতাহেডলাইন

অ্যানাকোন্ডার সংসারে নতুন অতিথি খুশির হাওয়া আলিপুর চিড়িয়াখানায়

শরণানন্দ দাস, কলকাতা: করোনা আবহেই খুশির খবর আলিপুর চিড়িয়াখানায়। বৃহস্পতিবার সর্প দিবসেই অ্যানাকোন্ডার সংসারে এলো নতুন অতিথি। তাও এক দুটো নয়, ১১টা হলুদ অ্যানাকোন্ডা। বিশ্বসর্প দিবসে পৃথিবীজুড়ে প্রায় ৩০০০ নতুন শাবকের জন্ম হয়েছে। ভারতে জন্মেছে ৩০০ টি সর্প শাবক, তারমধ্যে আলিপুর চিড়িয়াখানায় জন্ম নিয়েছে ১১ টি অ্যানাকোন্ডা। বলে রাখা ভালো দেশের মধ্যে আলিপুর চিড়িয়াখানায় প্রথম অ্যানাকোণ্ডার শাবক জন্মালো।
রাজ্য জু অথরিটির সদস্য ‌‌সচিব বিনোদকুমার যাদব জানিয়েছেন, গত বছর চেন্নাইয়ের সর্পোদ্যান থেকে দুজোড়া হলুদ অ্যানাকোন্ডা আনা হয়েছিল। চিড়িয়াখানায় কাঁচের ঘেরাটোপে জল, পাথর, গাছপালা দিয়ে তাদের জন্য প্রাকৃতিক পরিবেশ তৈরি করা হয়। সেখানেই একজোড়া সাপ স্বাভাবিক মিলনের মাধ্যমে ১১ টি শাবকের জন্ম দিয়েছে।

বনমন্ত্রী রাজীব বন্দোপাধ্যায় বলেন, ‘অ্যানাকোন্ডা চিড়িয়াখানার অন‌্যতম আকর্ষণ। নতুন এই শাবকগুলি সেই আকর্ষণ আরও বাড়াবে। পরবর্তী সময়ে এই সাপগুলির বিনিময়ে অন্য চিড়িয়াখানা থেকে অন্য জীবজন্তু আনা যেতে পারে।’
অ্যানাকোন্ডারা নিজের শরীরের ভিতরেই ডিম ফুটিয়ে সরাসরি বাচ্চা প্রসব করে। এদের মিলনকাল সাধারণত একমাস। ছ মাসের গর্ভধারণের পর মা সাপ সন্তান প্রসব করে। অন্য সাপের তুলনায় অ্যানাকোন্ডার ছানা আকারে বড়ো হয়। জন্ম দিয়েই মা অ্যানাকোন্ডা দূরে সরে যায়। শাবকেরা স্বাবলম্বী ভাবেই বেঁচে থাকতে পারে।

আরও পড়ুন: করোনায় বাংলাদেশে আরও ৫১ জনের মৃত্যু, আক্রান্ত ৩০৩৪

হলুদ অ্যানাকোন্ডা বিশ্বের দীর্ঘতম সাপগুলির অন‌তম। লাতিন আমেরিকার দক্ষিণ প্রান্তে এদের বেশি পাওয়া যায়। এই সাপগুলি নির্বিষ, লম্বায় ১১ থেকে ১৫ ফুট হতে পারে। অ্যানাকোন্ডার সঙ্গে আমবাঙালির প্রথম পরিচয় অবশ্য করিয়েছিলেন দেব। অ্যামাজন অভিযানের সেই ভয়ঙ্কর সুন্দর প্রাণিটি এখন আলিপুরের বাসিন্দা, কলেবরও বাড়লো। বাস্তবিকই এ শহর এখন ‘ সাপের পাঁচ পা দেখেছে।’

Related Articles

Back to top button
Close