fbpx
কলকাতাহেডলাইন

পুজোয় চলুন কাছে পিঠে, স্বাগত জানাতে তৈরি ‘পথসাথী’

শরণানন্দ দাস , কলকাতা: করোনার ভ্রকূটি কাটিয়ে ক্রমশ স্বাভাবিক জীবনে ফেরার চেষ্টি করছেন আম জনতা। বাঙালির প্রাণের উৎসব দুর্গাপুজো বলতে গেলে কড়া নাড়ছে।

আর মাসখানেকও বাকি নেই। অন্য বছর হলে ভবানীপুরের তে তলার বাড়িতে পাহাড় না সমুদ্র তর্ক মিটিয়ে এতদিনে বাঁধা ছাদার কাজ শেষ হয়ে যেতো। কিন্ত এ বছর করোনার দাপটে সে সবের উপায় নেই। কিন্ত কাশবনের দোলা, ফিরোজা নীল আকাশের নিমন্ত্রণ উপেক্ষাই বা করে কী করে বাঙালি? পায়ে যে সর্ষে বাঁধা। মুশকিল আসান করতে এগিয়ে এসেছে রাজ্য সরকারের পর্যটন দফতর।

পর্যটন দফতরের উদ্যোগে জেলায় জেলায় ছড়ানো পর্যটনকেন্দ্র যা কাছে পিঠে তুলে ধরার চেষ্টা হচ্ছে। বিমানে বা ট্রেনে চাপার দরকার নেই। বড়ো বাজেটের ঝক্কিও নেই। একটা গাড়ি ভাড়া করে বেরিয়ে পড়লেই হলো। আর জাতীয় সড়কের ধারে গড়ে উঠেছে পথসাথী।

রাজ্য সরকারের উদ্যোগে ২০১৮ য় মোটেল তৈরির পরিকল্পনা হয়েছিল। এই মুহূর্তে ২৩ টি জেলায় ৬৫ টি পথসাথী রয়েছে। স্বনির্ভর মহিলাগোষ্ঠী এই মোটেলগুলির দেখাশোনার দায়িত্বে রয়েছেন। এই মোটেলগুলো পরিস্কার পরিচ্ছন্ন, এসি ঘর, আধুনিক মানের শৌচাগার সহ সব রকমের সুযোগ সুবিধা রয়েছে। ভিড়ভাট্টা কম, তাই করোনা পরিস্থিতিতে সংক্রমণের ভয় নেই।

পথশ্রমের ক্লান্তি কাটিয়ে অপরিচিত জঙ্গল বা ঝোরার খোঁজে বেরিয়ে পড়তে পারেন। শাল, মহুয়ার জঙ্গলে হারিয়ে যেতে বাধা নেই। রাত্রিবাসের জন্য রয়েছে ‘ হোম স্টে’। সব মিলিয়ে শরতের সোনা রোদ্দুরে হারিয়ে যাওয়ার জন্য মন্দ নয়।

Related Articles

Back to top button
Close