fbpx
কলকাতাগুরুত্বপূর্ণহেডলাইন

নিকো পার্কে চালু কোয়ারেন্টাইন সেন্টার, থাকছে ১০০টি শয্যা, প্রয়োজনে বাড়ানো হবে বেড

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: কোয়ারেন্টাইন সেন্টার কম, আর থাকলেও সেখানে জায়গা নেই। কিন্তু মারণ ভাইরাসের দাপটে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে চলেছে পশ্চিমবঙ্গে। এই অবস্থায় পরিস্থিতি সামাল দিতে এবার সল্টলেক সেক্টর ফাইভে অবস্থিত নিকোপার্ক চালু হল কোয়ারেন্টাইন সেন্টার। নিকো পার্ক শহরের একটি প্রাণকেন্দ্র বলা যায়। কচিকাঁচা থেকে শুরু করে সকল বয়সীদের ভিড় লেগে থাকত এই পার্কে। কিন্তু করোনার কারণে এই পার্ক বন্ধ করে দেওয়া হয়। এই অবস্থায় ব্যবসায়িক ক্ষতির মুখে পার্ক কর্তৃপক্ষ।

তা সত্ত্বেও রাজ্যের অবস্থার কথা বিবেচনা করে করোনা সেন্টারের অভাব থাকায় নিকো গ্রুপের চেয়ারম্যান রাজীব কৌল রাজ্য সরকারের কাছে নিকো পার্কের রয়্যাল কোর্টইয়ার্ড হলটি করোনা সেন্টারে করার করার প্রস্তাব দেন। এরপর রাজ্য সরকার প্রস্তাব গ্রহণ করলে প্রায় ৮০০০ বর্গফুটের হলটিতে ১০০ টি বেড দিয়ে কোয়ারেন্টাইন সেন্টারটি চালু করা হয় ও বলা হয় প্রয়োজন পড়লে আরও ৫০ টি বেড বাড়ানোর ব্যবস্থা আছে।

আরও পড়ুন:চিনের শিনজিয়াং প্রদেশে করোনার হানা! ‘যুদ্ধকালীন পরিস্থিতি’ ঘোষণা প্রশাসনের

নিকোপার্ক ছাড়া সম্প্রতি ইডেন গার্ডেন স্টেডিয়ামে কোয়ারেন্টাইন সেন্টার খোলা হয়েছে। মূলত যাদের বাড়িতে আইসোলেশনের ব্যবস্থা নেই তারা এখানে সেফহোম কোয়ারেন্টাইন এ থাকতে পারবে।

জানা গিয়েছে, পার্কের ভিতরে থাকা একটি বড় হলঘর রয়েছে। যা সাধারণত বিয়ে বা জন্মদিনের জন্য ভাড়া দেওয়া হয় সেখানেই এই সেফ হাউস গড়ছে বিধাননগর পুরনিগম কর্তৃপক্ষ। ইতিমধ্যেই পার্ক কর্তৃপক্ষ এই হলঘরটি তুলে দিয়েছে পুরনিগম কর্তৃপক্ষের হাতে। এখন সেখানে স্যানিটাইজেশনের কাজ চলছে। তা শেষ হলেই সেখানে রোগীদের থাকার ব্যবস্থা করা হবে। আশা করা যাচ্ছে আগামী ২৬-২৭ তারিখ থেকেই এই সেফ হাউস খুলে দেওয়া যাবে। তবে এই সেফ হাউসে কারা থাকবে তা ঠিক করবে পুরনিগম কর্তৃপক্ষই। প্রাথমিক ভাবে ৬০ শয্যা বিশিষ্ট এই সেফ হাউস চালু হবে। পরে প্রয়োজন পড়লে পার্কের ভিতরে টেন্টের মধ্যেও সেফ হাউস গড়ে তোলা যেতে পারে বলে জানা গিয়েছে।

আরও পড়ুন:ভারতে ২৪ ঘন্টায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৩৮ হাজার ৯০২ জন, মৃতের সংখ্যা ৫৪৩

পুরনিগমের মেয়র পারিষদ প্রণয় কুমার রায় জানিয়েছেন, আপাতত ১৪ দিন এঁদের সেফ হাউসে রাখা হবে। তাঁদের সমস্ত খরচ বহন করবে পুরনিগমই। প্রয়োজনীয় চিকিৎসার ব্যবস্থাও করা হবে।’

Related Articles

Back to top button
Close