fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

বন দপ্তরে চাকরি দেওয়ার নামে ২ লক্ষ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে গ্ৰেফতার যুবক

প্রদীপ চট্টোপাধ্যায়, বর্ধমান: বন দপ্তরের অফিসার পরিচয় দিয়ে চাকরি করে দেওয়ার নামে ২ লক্ষ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে গ্ৰেফতার হল এক যুবক। ধৃতের নাম
বিক্রমজিৎ চৌধুরী । তার বাড়ি পূর্ব বর্ধমানের মাধবডিহি থানার লোহাই গ্রামের উত্তরপাড়ায়। মাধবডিহি থানার পুলিশ মঙ্গলবার রাত বাড়ি থেকে তাকে গ্ৰেফতার করে । পুলিশের দাবি ধৃত ব্যক্তি টাকা আত্মসাৎতের কথা কবুল করেছে ।

প্রতারণার ধারায় মামলা রুজু করে পুলিশ বুধবার ধৃতকে পেশ করে বর্ধমান আদালতে । তদন্তের প্রয়োজনে ধৃতকে ১০ দিন নিজেদের হেফাজতে নিতে চেয়ে আদালতে আবেদন জানায় তদন্তকারী অফিসার । সেজেএম রতন কুমার গুপ্তা ধৃতকে ৫ দিন পুলিশী হেফাজতে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন । প্রতারিত ব্যক্তি অভিযুক্তের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করেছেন।

পুলিশ জানিয়েছে, বর্ধমান শহরের রথতলা কাঞ্চননগরে বসবাস করেন রবি রাউৎ। দীর্ঘদিন ধরেই বেকার রয়েছে তাঁর দুই ছেলে। তাদের চাকরির জন্য রবি বিভিন্ন জায়গায় খোঁজখবর চালাতেন । বেশকিছুদিন আগে জেলার খণ্ডঘোষ থানার জুবিলা এলাকার এক দম্পতির পরিচয় হয়। সেই দম্পতি বিক্রমজিৎ-এর সঙ্গে রবির পরিচয় করিয়ে দেয়। পরিচয় কালে বিক্রমজিৎ নিজেকে বন দপ্তরের অফিসার বলে রবিকে জানায়।

একই সঙ্গে তিনি রবির দুই ছেলেকে বন দপ্তরে প্রোজেক্টের অধীনে চাকরি করে দেওয়ার আশ্বাস দেন। তারজন্য বিক্রমজিৎ দু’দফায় রবির কাছ থেকে ২ লক্ষ টাকা নেয় ।তিনি রবির দুই ছেলেকে কিছুদিনের মধ্যে চাকরিতে জয়েন করিয়ে দেওয়ার আশ্বাস দেন।

যদিও টাকা দেওয়ার পর দীর্ঘদিন কেটে গেলেও রবির দুই ছেলের কারো চাকরি হয়নি। প্রতারিত হয়েছেন বুঝতে পেরে রবি রাউৎ মাধবডিহি থানায় অভিযোগ দায়ের করেন । অভিযোগের ভিত্তিতে মামলা রুজু করে তদন্তে নেমে পুলিশ জানতে পারে প্রতারণার ঘটনায় বিক্রমজিৎ-এর বাবা ও জুবিলার দম্পতিও জড়িত রয়েছে ।বিক্রমজিৎকে হেপাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ চালিয়ে পুলিশ তাদেরও খোঁজ চালাচ্ছে।

Related Articles

Back to top button
Close