fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

ভাঙড়ে আব্বাস অনুগামীদের মারধর, অভিযুক্ত তৃণমূল কর্মীরা, রাস্তা অবরোধ করে বিক্ষোভ

ফিরোজ আহমেদ, ভাঙড়: ভাঙড়ে আবারও আক্রান্ত ফুরফুরা শরীফের পীরজাদা আব্বাস সিদ্দিকির অনুগামীরা।ঘটনায় অভিযোগের আগুল উঠেছে তৃণমূল কর্মী দের বিরুদ্ধে। অভিযুক্তদের গ্রেফতারের দাবিতে বাসন্তী রাজ‍্য সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভে ফেটে পড়েন আব্বাস অনুগামীরা।

ঘটনার সুত্রপাত, বুধবার ক‍্যানিং পূর্বের বিধায়ক সওকাত মোল্লার গড় ভাঙড়ের চাঁদপুরে সভা করেন আব্বাস সিদ্দিকী। অভিযোগ, সেই সভায় যোগ দেওয়া দুর্গাপুর অঞ্চলের কয়েকজন যুবকের বাড়িতে চড়াও হন সওকাত মোল্লার অনুগামী তথা স্থানীয় তৃণমূল কর্মীরা। আব্বাস সিদ্দিকির অনুগামীদের মারধর সহ বাড়ি ঘর ভাঙ্গচুর চালানো হয় বলে অভিযোগ। এই ঘটনার খবর এলাকায় চাউর হতেই ক্ষোভে ফেটে পড়েন আব্বাস অনুগামীরা। দুষ্কৃতীদের গ্রেফতারের দাবিতে বাসন্তী রাজ‍্য সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভে ফেটে পড়েন তারা। ব‍্যাস্ততম বাসন্তী রাজ‍্য সড়ক অবরোধের ফলে কলকাতাগামী প্রচুর যানবাহন থমকে যায়। অবরোধ শুরু হতেই আব্বাসের কয়েকশো কর্মী সমর্থক ভাঙড় সহ পার্শ্ববর্তী এলাকা থেকে বিক্ষোভে সামিল হয়।

অবরোধ তুলতে ছুটে আসেন ভাঙড় থানার পুলিশ সহ ডিএসপি ক্রাইমের নেতৃত্বে বিশাল পুলিশ ফোর্স।অবরোধ তুলতে হিমশিম খেতে হয় পুলিশকে। অবরোধ বিক্ষোভকারীরা পুলিশের উদ্দ্যেশ্যে বলতে থাকে, আগে দুষ্কৃতীদের চিহ্নিত করে গ্রেফতার করুন তার পর অবরোধ তোলা হবে। যদিও প্রায় ঘন্টা দুইয়ের রাস্তা অবরোধের পর পুলিশ দুষ্কৃতীদের গ্রেফতার করার আশ্বাস দিতেই রাস্তা অবরোধ তুলে নেন আব্বাস অনুগামীরা। ঘটকপুকুরে রাস্তা অবরোধ উঠতে না উঠতেই বাসন্তী রাজ‍্য সড়কের নলমুড়িতে আবারও রাস্তা অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন আব্বাসের অনুগামীরা। সেখানেও পুলিশ দুষ্কৃতীদের গ্রেফতারের আশ্বাস দিতেই অবরোধ উঠে যায়।

এক আব্বাস অনুগামী বলেন, “বিধায়ক সওকাত মোল্লার দলবল গ্রামে গ্রামে ভয়ের পরিবেশ তৈরি করেছে। ভাইজানের সভায় যেতেই আমাদের উপরে আক্রমণ করা হয়েছে।পুলিশ নিরপেক্ষ ভাবে কাজ করছে না তাই আমরা আন্দোলনের পথ বেছে নিয়েছি।” যদিও অভিযোগ সম্পর্কে বিধায়ক সওকাত মোল্লার সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি কোনও মন্তব্য করতে চাননি।

Related Articles

Back to top button
Close