fbpx
কলকাতাহেডলাইন

অভিষেক-এই আস্থা, দলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদকের পদ ফেরালেন নেত্রী

যুগশঙ্খ, ওয়েবডেস্কঃ দলে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের উপরেই আস্থা রাখল তৃণমূল হাই কমান্ড। দলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদকের পদ ফিরে পেলেন অভিষেক। বলা যায় হৃত গৌরব ফিরে পেলেন অভিষেক। আর অভিষককে সামনে রেখে সর্বভারতীয় স্তরে দল সাজালেন তৃণমূল সুপ্রিমো। এছাড়া সর্ব ভারতীয় সহ সভাপতি হলেন যশোবন্ত সিনহা, চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য, সুব্রত বক্সী। বিধাননগরের মেয়র নির্বাচিত হলেন কৃষ্ণা চক্রবর্তী। বিধাননগরের চেয়ারম্যান হলেন সব্যসাচী দত্ত। ডেপুটি মেয়র হয়েছেন অনিতা মণ্ডল। চন্দননগরের মেয়রের দায়িত্বে রাম চক্রবর্তী। আসানসোলের মেয়র হলেন বিধান উপাধ্যায়। মমতার জাতীয় কমিটির সমন্বয়ের দায়িত্বে ফিরহাদ হাকিম, কোষাধ্যক্ষ হলেন অরূপ বিশ্বাস। তৃণমূলের মুখপাত্র নির্বাচিত হলেন সুখেন্দু শেখর রায়, লোকসভায় কাকলি ঘোষদস্তিদার, মহুয়া মৈত্র।

বৈঠক থেকেই দুর্নীতি নিয়ে দলকে সতর্ক করেছেন তৃণমূল সুপ্রিমো। নেত্রীর সুরেই সুর মিলিয়েছেন অভিষেক।

শুক্রবার দলের জাতীয় কর্মসমিতির বৈঠকে এমনটাই জানিয়েছেন তৃণমূলের সেকেন্ড ইন কমান্ড। তবে তিনি তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বলেন “আমাদের দুর্নীতির বিষয়ে সতর্ক থাকতে হবে”।  দুর্নীতির খবর সামনে এলে সেটা যে কোনভাবেই বরদাস্ত করা হবে না, তার প্রচ্ছন্ন ইঙ্গিত দিয়েছেন তৃণমূলনেত্রী।

পুরনিগমের ফল ঘোষণার দিনই শিলিগুড়ির মেয়র হিসেবে গৌতম দেবের নাম ঘোষণা করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কর্মসমিতির বৈঠক থেকে বিধাননগরের মেয়র হিসেবে কৃষ্ণা চক্রবর্তীর নাম মেয়র হিসেবে ঘোষণা করলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। চেয়ারম্যান করা হল সব্যসাচী দত্তকে। মেয়র হওয়ার দৌড়ে কে এগিয়ে সে নিয়ে বেশ জল্পনা চলছিল।

একাংশ সব্যসাচীকে এগিয়ে রেখেছিলেন। তবে সব্যসাচীর বক্তব্য , দিদির আদেশই শিরোধার্য। দল যা ঠিক করেছে সেটাই মেনে নেব। দিদির সঙ্গে কথা হয়েছে। দিদিকে বলেছি, কাজে কিছু কিছু ভুল ত্রুটি হলে বলে দি্তে’।

গত ১২ ফেব্রুয়ারি এই চার পুরনিগমের নির্বাচন হয়। ১৪ ফেব্রুয়ারি ফল প্রকাশ হতেই দেখা যায় চার পুরনিগমেই ঘাসফুলের জয়জয়কার। এরপরই শিলিগুড়ি পুরনিগমের মেয়র হিসেবে গৌতম দেবের নাম ঘোষণা করেছিলেন তৃণমূল সুপ্রিমো। বাকি তিন পুরনিগম নিয়ে জল্পনা বাড়ছিল। শুক্রবার ছিল তৃণমূলের জাতীয় কর্মসমিতির বৈঠকে তিন নতুন মেয়রের নাম ঘোষণা করেন কলকাতা পুরনিগমের মেয়র ফিরহাদ হাকিম।

 

Related Articles

Back to top button
Close