fbpx
কলকাতাগুরুত্বপূর্ণপশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

‘কংগ্রেস দুর্বল হলেও উচ্চতা কমেনি’: অধীর

গোবিন্দ রায়, কলকাতা: ‘কংগ্রেস দুর্বল হলেও উচ্চতা কমেনি। ৭ ফুট, ৭ ফুটই রয়েছে। ৫ ফুট হয়ে যায়নি।’ বাদুড়িয়ার সভা মঞ্চ থেকে কংগ্রেসের অস্তিত্ব জানান দিলেন রাজ্যের প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি তথা বহরমপুরের সাংসদ অধীর রঞ্জন চৌধুরী।
গত কয়েকদিন আগে উত্তর ২৪ পরগনার বাদুড়িয়ার কংগ্রেসের বিধায়ক কংগ্রেস ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন বুধবার আইন শৃঙ্খলার অবনতি, দ্রব‍্যমূল‍্য বৃদ্ধি, কৃষি ও শ্রমবিলের প্রতিবাদে জেলা কংগ্রেসের (গ্রামীণ) ডাকে একটি মহামিছিল ও জনসভা অনুষ্ঠিত হয় সেই বাদুড়িয়াতেই। বাদুড়িয়া দিলীপ মেমোরিয়াল হাই স্কুল মাঠ থেকে ডিএন ১৮ বাস স্ট্যান্ড পর্যন্ত প্রায় দু কিলোমিটার পথ যাত্রা হয়। পরে দিলীপ মেমোরিয়াল স্কুল প্রাঙ্গণের এই জনসভায় হয়‌। উপস্থিত ছিলেন পশ্চিমবঙ্গ প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি তথা লোকসভার সাংসদ অধীর রঞ্জন চৌধুরী, পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভার বিরোধী দলনেতা আব্দুল মান্নান, প্রদেশ কংগ্রেসের সহ সভাপতি আব্দুল সাত্তার ও কংগ্রেসের উত্তর ২৪ পরগণা জেলার (গ্রামীণ) সভাপতি অমিত মজুমদার সহ একাধিক নেতৃত্ব। এই সভা থেকে আইন শৃঙ্খলার অবনতি, দ্রব‍্যমূল‍্য বৃদ্ধি, কৃষি ও শ্রমবিলের কেন্দ্রের বিজেপি ও রাজ‍্যের তৃণমূল সরকারের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দেন অধীর চৌধুরী।
পাশাপাশি, বিজেপি ও তৃণমূলকে কাঠ গড়ায় তুলে তিনি বলেন, ভারতবর্ষ সর্বধর্ম সমন্বয়ের দেশ। এখানে সাম্প্রদায়িক রাজনীতি চলবে না। ভারতবর্ষে কংগ্রেস যুগ যুগ ধরে চলে এসেছে। আর আগামী দিনে চলবে। আজ নতুন করে কেউ এখানে এসে খাবার ছড়াবে, মরা কান্না করবে। ভারতবর্ষের মানুষ তাতে গলবেনা‌। এখানে আমরা রাজনীতি করি বাংলার মানুষের জন্য। হিন্দু – মুসলমান সবাই মিলে একসঙ্গে বাঁচবো বলে রাজনীতি করি। বাংলার উন্নতি করবো বলে রাজনীতি করি, এটাই আমাদের শপথ।
এদিন কংগ্রেসের দুর্বলতা স্বীকার করে অধীর রঞ্জন চৌধুরী বলেন, হয়তো দেশে কংগ্রেস দুর্বল হয়েছে। স্বীকার করছি। কিন্তু উচ্চতা ৭ ফুট থেকে ৫ ফুট হয়ে যায়নি। ৭ ফুটই রয়েছে।
সদ্য কংগ্রেস ত্যাগ করে রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের যোগ দেওয়া গফফর সাহেবের ছেলে তথা কংগ্রেস বিধায়ক আব্দুর রহিম দিলুকে উদ্দেশ্য করে বাদুড়িয়ায় দিলীপ মেমোরিয়াল হাই স্কুল মাঠে প্রকাশ্য জনসভায় অধীর বাবু বলেন, এখানকার বিধায়ক তৃণমূলে যোগদান করেছেন যদি ফিরে আসতে চান, বাদুড়িয়ার মানুষ কংগ্রেসে আসার জন্য দুহাত বাড়িয়ে অভ্যর্থনা জানাবেন। তিনি যদি আবার ফিরে আসেন তাহলে বাদুড়িয়ার মানুষ তাকে ক্ষমা করে আবার দলে আহ্বান জানাবেন।

Related Articles

Back to top button
Close