fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

করোনা আক্রান্ত মৃত দেহ দাহ করতে গিয়ে বিক্ষোভের মুখে প্রশাসন

নিজস্ব প্রতিনিধি, ঝাড়গ্রাম: করোনা আক্রান্ত মৃত দেহ দাহ করতে গিয়ে বিক্ষোভের মুখে পড়ল প্রশাসন। এদিন রবিবার ঝাড়্গ্রাম শহরের একটি স্থানীয় শ্মশানে করোনা আক্রান্ত ব্যক্তির মৃত দেহ দাহ করতে গেলে অশান্তি সৃষ্টি হয়। এলাকার শ্মশানে বাইরের দেহ পড়ানো যাবে না বলে স্থানীয়রা দাবি করতে থাকে। সকাল থেকে চলে বিক্ষোভ।স্থানীয়দের অভিযোগ করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃতদের এলাকার শ্মশানে পোড়ানো হচ্ছে।

তাদের আরও অভিযোগ, যত্রতত্র খালের জলে ফেলা হচ্ছে ব্যবহার করা পিপিই।যার ফলে সংক্রমন ছড়ানোর আশঙ্কা করছেন স্থানীয়রা। এদিন রবিবার ঝাড়্গ্রাম শহরের চার নম্বর ওয়ার্ডের নামো জামদা এলাকায় পুলিশের উপস্থিতিতে একটি মৃতদেহ ওই এলাকার নহর খাল শ্মশানে দাহ করার জন্য নিয়ে আসা হয়।প্রশাসনের একটি সূত্র থেকে জানা গিয়েছে, করোনা পজিটিভ এক ব্যক্তির দেহ বিনপুর থেকে নিয়ে আসা হয়।করোনা আক্রান্তের মৃত দেহ যেমন বিশেষ ভাবে মোড়া থাকে দেহটি সেভাবেই আনা হয়েছিল। সকাল আটটা নাগাদ স্থানীয় বাসিন্দারা বিষয়টি জানার পরেই তারা বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করে।

স্থানীয়রা দাবি করতে থাকে তাদের এলাকার শ্মশানে বাইরে থেকে আনা মৃতদেহ দাহ করা যাবেনা। অন্যদিকে পুলিশ তাদের বোঝানোর চেষ্টা চালায়। স্থানীয়দের অভিযোগ, এর আগে শ্মশানে করোনা প্রটোকল মেনে দেহ আনা হলেও দাহ কার্যের পর শ্মশান স্যানিটাইজ করা হয়নি। খালের জল এলাকার মানুষ স্নান করা সহ নানা কাজে ব্যবহার করেন।তাদের অভিযোগ, সেই খালে ব্যবহার করা পিপিই পোশাক ফেল হচ্ছে। এই সব অভিযোগ তুলে দীর্ঘ ক্ষণ ধরে চলে বিক্ষোভ। ঝাড়গ্রাম থানার আই সি এবং ঝাড়গ্রামের এসডিপিওর নেতৃত্বে বিশাল পুলিশ বাহিনী গিয়ে পরিস্থিতি সামাল দেয়। পরে স্থানীয়দের বুঝিয়ে দেহটি সৎকার করা হয়।

স্থানীয় বাসিন্দা মহাদেব গৌরাই, মিনা মাহাতোরা বলেন, ” গত শুক্রবার একটা কোভিড মৃতদেহ এখানে দাহ করা হয়েছে। এদিন আবার একটি দেহ নিয়ে এসেছে। আমরা চাই এখানে কোভিড মৃতদেহ যাতে দাহ করা না হয়। একটি নির্জন জায়গায় দেহ দাহ করলে ভালো হয়। তার জন্য আমরা পূর্ণ সহযোগীতা করবো। এখানে অনেক বনদফতরের পতিত জমি রয়েছে। আমরা চাই সেখানে দাহ কার্য করা হোক। আর হলে যেখানকার দেহ সেখানেই দাহ করা হোক। আমরা এই রাস্তা দিয়ে সব সময় যাতায়াত করি। আমাদের এখানে দাহ করানোর ফলে আমাদের মধ্যে একটা আতঙ্ক থেকে যাচ্ছে। আমরা চাই অন্য জায়গায় কোভিড দেহ দাহ করানো হোক”।

Related Articles

Back to top button
Close