fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

ঈদ পালন নিয়ে দিনহাটায় প্রশাসনের সভা

নিজস্ব প্রতিনিধি, দিনহাটা: সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে পবিত্র ঈদের নামাজে যাতে সংশ্লিষ্ট ধর্মালম্বী মানুষ অংশ নেয় সেই লক্ষ্যে সচেতন করতেই পুলিশ ও প্রশাসনের উদ্যোগে সভা অনুষ্ঠিত হল দিনহাটায় । করোনার থাবায় বর্তমানে কঠিন এই সময় কালে সংশ্লিষ্ট ধর্মাবলম্বী মানুষ যাতে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে ঈদের নামাজে অংশ নেয় সেদিকে লক্ষ্য রেখে বিভিন্ন মসজিদ কমিটির সদস্য ও ইমামদের নিয়ে পুলিশ ও প্রশাসনের বৈঠক অনুষ্ঠিত হল। শনিবার দিনহাটা ১ ও ২ ব্লকের বিডিও অফিসে এবং সিতাইয়ে স্থানীয় থানাতেই পৃথক পৃথক ভাবে এই বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। দিনহাটা এক ব্লক প্রশাসনের অফিসে এদিনের এই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন বিডিও সৌভিক চন্দ, দিনহাটা থানার আইসি সঞ্জয় দত্ত সহ বিভিন্ন মসজিদের ইমামরা ছাড়াও বিভিন্ন মসজিদ কমিটির সদস্যরা।

এ দিনের বৈঠকে মুখে মাস্ক পড়ে নামাজ পড়ার পাশাপাশি সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার ওপর বিশেষ গুরুত্ব নিয়ে আলোচনা হয়। এদিন দিনহাটা ২ ব্লকের বিডিও অফিসের কনফারেন্স হলে বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে মহকুমা পুলিশ আধিকারিক মানবেন্দ্র দাস, সাহেবগঞ্জ থানা ওসি হেমন্ত শর্মা, ব্লকের বিডিও জয়ন্ত দত্ত প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। উভয় ব্লক প্রশাসনের দফতর চত্বরে এই বৈঠকে বর্তমান এই করোনাভাইরাস এর কঠিন সময় কালে সরকারি বিধি নিষেধ মেনে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে নিজ নিজ বাড়িতে ঈদের নামাজে অংশ নেওয়ার জন্য সকলের কাছে আবেদন জানানো হয়। এছাড়াও মসজিদগুলিতে কোনভাবেই যাতে একসাথে পাঁচ জনের বেশি মানুষ নামাজে অংশ না নেয় তার জন্য প্রশাসনের পক্ষ থেকে আবেদন জানানো হয়।

আরও পড়ুন: বকেয়া প্রায় ১৫ লক্ষ টাকা , এখনও প্রাপ্য পাননি আসানসোলের মিনিবাস মালিকরা

এদিন সিতাই থানাতেও ব্লক প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন, স্থানীয় বিধায়ক ছাড়াও বিভিন্ন মসজিদ কমিটির সদস্য ও ইমামদের নিয়ে বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে বিধায়ক জগদীশচন্দ্র বর্মা বসুনিয়া, সিতাই ব্লকের বিডিও অমিত কুমার মণ্ডল, সিতাই থানার আইসি সূর্যদীপ্ত ভট্টাচার্য প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। সেখানেও মসজিদগুলোতে একসাথে পাঁচ জনের বেশি নামাজ পড়তে পারবেনা বলেও সকলকে অবগত করা হয়। পাশাপাশি ঈদগাহ গুড়িতে এবার নামাজ পাঠ হবে না বলেও প্রশাসনের পক্ষ থেকে উল্লেখ করা হয়। মারণ এই রোগ মোকাবিলায় প্রশাসনের পক্ষ থেকে এ দিনের বৈঠকে সকলকে সচেতন করে দেওয়া হয়।

মহকুমা পুলিশ আধিকারিক মানবেন্দ্র দাস জানান এদিন দিনহাটা ১ , ২ ব্লক প্রশাসনের দফতরে এবং সিতাই থানায় বিভিন্ন মসজিদের ইমাম ও মসজিদ কমিটির প্রতিনিধি, জনপ্রতিনিধি ছাড়াও পুলিশ ও প্রশাসনের উপস্থিতিতে শান্তিপূর্ণভাবে বর্তমান কঠিন এই পরিস্থিতিতে ঈদ পালন নিয়ে বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে সরকারি বিভিন্ন বিধি নিষেধ এবং সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে ঈদের নামাজে অংশ নেওয়ার কথা তুলে ধরা হয়। এছাড়া যারা কোয়রান্টিন সেন্টারে রয়েছে তারা কোনভাবেই বাইরে মসজিদ কিংবা ঈদগাহে যেতে পারবে না।

Related Articles

Back to top button
Close