fbpx
অফবিটআন্তর্জাতিকগুরুত্বপূর্ণহেডলাইন

করোনা মোকাবিলায় আফগান ছাত্রীদের আবিষ্কার সাশ্রয়ী ভেন্টিলেটর

কাবুল(সংবাদ সংস্থা): করোনার এই আকালে বাজারে একটি ভেন্টিলেটরের দাম পড়ছে সাধারণত ২০ হাজার ডলার (প্রায় ১৫ লক্ষ টাকা) করে। সেখানে মাত্র ৭০০ ডলারেই সাশ্রয়ী ভেন্টিলেটর আবিষ্কার করেছে যুদ্ধবিধ্বস্ত আফগানিস্তানের সাত ছাত্রী।

আফগান মেয়েদের এই রোবোটিক্স টিম আগেও রোবট তৈরিতে অনন্য দক্ষতা দেখিয়ে আন্তর্জাতিক পুরস্কার জিতেছেন। গত মার্চে করোনা রোগীদের সেবায় সহজলভ্য এবং সাশ্রয়ী মূল্যের ভেন্টিলেটর তৈরি শুরু করে তারা। প্রায় চার মাস চেষ্টার পর অবশেষে সফল হয়েছে ছাত্রীরা। ভেন্টিলেটরটি তৈরিতে আংশিক নকশা নেওয়া হয়েছে ম্যাসাচুসেটস ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজি (এমআইটি) থেকে। এ কাজে আফগান কিশোরীদের পরামর্শ দিয়ে সাহায্য করেছে হার্ভার্ড ইউনিভার্সিটিও।

আরও পড়ুন:ভার্চুয়ালেই ২১-র ডাক, তাই এবার রঙ-হীন ‘একুশের ময়দান’

আফগান মেয়েদের আবিষ্কৃত ভেন্টিলেটরটি ওজনে বেশ হালকা, ব্যাটারিতে চালানো যাবে প্রায় ১০ ঘণ্টা পর্যন্ত। আর বাজারের স্বাভাবিক দামের তুলনায় এর দাম হবে অন্তত ২০ গুণ কম। কিশোরীদের তৈরি এ ভেন্টিলেটর পুরোদমে ব্যবহারের আগে এটিকে বিভিন্ন ধরনের পরীক্ষা-নিরীক্ষার মধ্য দিয়ে যেতে হবে। তারপরও, ছাত্রীদের এমন সাফল্যে বেশ আনন্দিত আফগান সরকার।

সরকারি হিসাবে, আফগানিস্তানে এখন পর্যন্ত ৩৫ হাজারের বেশি মানুষ করোনায় আক্রান্ত এবং ১ হাজার ১৮৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। তবে বিশেষজ্ঞদের ধারণা, দেশটিতে প্রকৃত আক্রান্তের সংখ্যা কয়েকগুণ বেশি। বছরের পর বছর ধরে যদ্ধে ক্ষতিগ্রস্ত আফগানিস্তানে এত বিপুল সংখ্যক রোগীকে সেবা দিতে ভেন্টিলেটর রয়েছে মাত্র ৮০০টি। সেক্ষেত্রে, ছাত্রীদের এমন আবিষ্কার ভয়াবহ চিকিৎসা সংকট থেকে আফগানিস্তানকে উদ্ধারে বড় অবদান রাখবে বলে মনে করা হচ্ছে।

আরও পড়ুন:ফের বাড়ছে সুস্থতা! রাজ্যে ২৪ ঘন্টায় আক্রান্ত ২২৬১, মৃত্যু ৩৫, সুস্থ ১৬১৭

আফগান স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র আকমল সামসুর জানিয়েছেন, ছাত্রীদের আবিষ্কৃত ভেন্টিলেটরটি অনুমোদন পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই তা হাসপাতালগুলোতে পাঠিয়ে দেওয়া হবে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সঙ্গেও এর নকশা শেয়ার করা হবে। এছাড়া, বাণিজ্যিকভাবে উৎপাদন করে সাশ্রয়ী ভেন্টিলেটরটি বিদেশেও রপ্তানি করা হতে পারে।

Related Articles

Back to top button
Close