fbpx
গুরুত্বপূর্ণদেশহেডলাইন

অসমের পর এবার মাদ্রাসা বন্ধ করার সিদ্ধান্ত মধ্যপ্রদেশের

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: অসমের পর এবার মধ্যপ্রদেশ। মাদ্রাসা বন্ধের সিদ্ধান্ত নিতে চলেছে মধ্যপ্রদেশ সরকার। মধ্যপ্রদেশ সরকারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে যে, খুব শীঘ্রই মাদ্রাসাগুলিকে অনুদান দেওয়া বন্ধ করে দেওয়া হবে। মধ্যপ্রদেশের ক্যাবিনেট মন্ত্রী ঊষা ঠাকুর মাদ্রাসাকে দেওয়া সরকারি অনুদান বন্ধ করার দাবি তুলেছেন। তিনি জানিয়েহেন যে, ‘মাদ্রাসা থেকে জঙ্গি তৈরি হয়, এরজন্য এদের দেওয়া সমস্ত সরকারি সাহায্য বন্ধ করে দেওয়া উচিৎ।”

একটি প্রেস বার্তায় তিনি রাজ্যে মাদ্রাসাগুলিতে সরকারের টাকা দেওয়া বন্ধ করার আবেদন জানিয়েছেন। উনি যুক্তি দিয়ে বলেছেন যে, “মাদ্রাসায় কট্টরপন্থী আর সন্ত্রাসবাদী তৈরি হয়”।

তিনি এও জানিয়েছেন যে, ওয়াকফ বোর্ড নিজে থেকেই একটি বড় সংস্থা। এদের কাছে অনেক টাকা আছে এই কারণে মাদ্রাসায় সরকারি অনুদান দেওয়া বন্ধ করা হোক। তিনি মাদ্রাসার দেওয়া টাকা রাজ্যের অন্য উন্নয়নে ব্যবহার করা হবে।

[আরও পড়ুন- লাদাখের উত্তপ্ত বাতাবরণের মধ্যে আটক করা চিনা সেনাকে ফিরিয়ে দিল ভারত]

এরআগে অসমে রাজ্য সরকার দ্বারা পরিচালিত সমস্ত মাদ্রাসাগুলোকে স্কুলে পরিণত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন অসমের শিক্ষামন্ত্রী হিমন্ত বিশ্বশর্মা। তিনি জানিয়েছিলেন যে, “আমরা রাজ্যের মাদ্রাসা বোর্ড ভেঙে দিয়ে সরকারী মাদ্রাসাগুলিকে স্কুলে পরিণত করব।” সেইক্ষেত্রে শিক্ষকদের যোগ্যতা অনুযায়ী স্কুলগুলোতে নিয়োগ করা হবে। এরপর তিনি জানান যে,  রাজ্যের বেসরকারি মাদ্রাসাগুলো যদি সাংবিধানিক নির্দেশ মেনে চলে, তবেই সেগুলোকে চলতে দেওয়া হবে।  উল্লেখ্য, এর আগেও অসমের শিক্ষামন্ত্রী হিমন্ত বিশ্বশর্মা কোরান পড়ানো নিয়ে বড়সড় ঘোষণা করেন। তিনি বলেন, সরকারি টাকায় কোরান পড়ানো যাবেনা। এর সঙ্গে তিনি বলেন, যদি সরকারি টাকায় কোরান পড়ানো জায়, তবে গীতা আর বাইবেল কেন পড়ানো যাবে না? । এবার অসম সরকারের এই সিদ্ধান্তের পক্ষ নিয়ে মধ্যপ্রদেশ সরকারও মাদ্রাসায় অনুদান দেওয়া বন্ধ করে দেওয়া হতে পারে।

 

 

Related Articles

Back to top button
Close