fbpx
আন্তর্জাতিককলকাতাহেডলাইন

কাভানের পর এবার গরিলা ‘বুয়া নোইয়ের’ মুক্তির জন্য উদ্যোগী পপ তারকা চের

শরণানন্দ দাস, কলকাতা: বিশ্বের নিঃসঙ্গতম হাতি কাভানকে বন্য জীবনে ফিরিয়ে দেওয়ার পপ তারকা চের এবার উদ্যোগী গরিলা ‘ বুয়া নোইয়ের” মুক্তির জন্য। পশ্চিম ব্যাঙ্ককের পাটা চিড়িয়াখানার একটি ডিপার্টমেন্টাল স্টোরের সবচেয়ে উঁচু তলায় ১৯৯০ থেকে বন্দী জীবন যাপন করছে। চের তাঁর টুইটারে লিখেছেন, ‘ ব্যাঙ্ককের সুনাগরিকরা নিশ্চয় একটি নির্দোষ প্রাণীর উপর অত্যাচার বন্ধ করতে আমাকে সাহায্য করবেন।এটা পাপ। পাটা চিড়িয়াখানার শপিং মল থেকে এই প্রাণীদের মুক্তি দিতে, তাদের জীবনে শান্তির ছোঁয়া দিতে আমাকে সাহায্য করুন।’

প্রসঙ্গত ব্যাঙ্ককের পাটা চিড়িয়াখানা খোলা হয় ১৯৮০তে। এখানে বিভিন্ন পশুপ্রাণী, সরীসৃপ,পাখি, বিভিন্ন প্রজাতির বানর রয়েছে। চের উদ্যোগে গঠিত স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ‘ ফ্রি দি ওয়াইল্ড’ জানিয়েছে তাঁরা থাইল্যান্ড সরকারের সঙ্গে এই বিষয়ে যোগাযোগ করেছে। গরিলা বুয়া নোইয়ের পাশাপাশি একটি ওরাংওটাং ও তার ছানাকে মুক্ত করতে চায়। চেরই প্রথম নন, তারকা ব্যক্তিত্ব গিলিয়ান অ্যান্ডারসন গরিলা বুয়ানোইয়ের মুক্তির দাবি জানিয়ে গত মে মাসে চিঠি লিখেছিলেন। তিনি চিঠিতে লিখেছিলেন,’ পাটা চিড়িয়াখানাকে প্রাণীদের পক্ষে সবচেয়ে দুঃখজনক জায়গা বলা হয়। এই চিড়িয়াখানাটি বন্ধ করে প্রাণীদের অভয়ারণ্যের প্রাকৃতিক পরিবেশে ফিরিয়ে দেওয়া হোক।’

চের উদ্যোগের জবাবে থাইল্যান্ডের বন পরিবেশ মন্ত্রী ভারাউট শিল্পা আরচা চিঠি লিখে জানিয়েছেন,’ আমার মন্ত্রক বুয়ানোইকে ভুলে যায়নি বা অবহেলা করেনি। আমি নিজে গরিলাটির উন্নততর পরিবেশে জীবন যাপনের সুযোগ করে দেওয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট আধিকারিকদের নির্দেশ দিয়েছি।’ চিড়িয়াখানার অধিকর্তা কানিত সেরমোসিরিমংকল অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। তিনি বলেন,’ তাঁরা কোনও প্রাণীর উপর অত্যাচার করেন না, সবাইকে যথেষ্ট যত্ন করা হয়। এনক্লোজারগুলো যথেষ্ট প্রশস্ত, রোজ জীবাণুনাশক ব্যবহার করা হয়। সূর্যালোক যথেষ্ট পরিমাণে আসে। গরিলাটি প্রতিদিন ২ কিলোগ্রাম ফল, শাকসব্জি খায়।’ তিনি চেরকে আমন্ত্রণ জানিয়ে বলেছেন,’ উনি থাইল্যান্ডে এলে আমাদের চিড়িয়াখানায় এসে দেখে যান আমরা গরিলাটিকে কতো আদরযত্নে রেখেছি।’

Related Articles

Back to top button
Close