fbpx
গুরুত্বপূর্ণদেশহেডলাইন

মথুরায় কৃষ্ণমন্দিরে নমাজের পর এবার মসজিদে ঢুকে হনুমান চালিশা পাঠ

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: উত্তরপ্রদেশের মথুরায় কৃষ্ণমন্দিরে ঢুকে নমাজ পাঠের পর এবার মসজিদে ঢুকে হনুমান চালিশা পাঠের ঘটনা ঘটল। উত্তরপ্রদেশে মথুরায় ইদগাতে হনুমান চালিশা পাঠ করার অভিযোগ উঠল চার জনের বিরুদ্ধে। ঘটনায় আটক করা হয়েছে এই চার জনকে। অভিযুক্তদের নাম সৌরভ লাম্বারদর, কানহা, রাঘব এবং কৃষ্ণ ঠাকুর।

ইতিমধ্যেই নন্দগাঁওয়ের নন্দবাবা মন্দিরে ঢুকে নমাজ পড়ার ঘটনায় খোদাই খিদমতগার সংগঠনের ফয়জল খানকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আর এরপরেই মথুরার ইদগাতে ঢুকে হনুমান চালিশা পাঠ করার ঘটনায় গ্রেফাতাঁর হল ৪ জন। কিন্তু এই ৪ জন দাবি করে যে, শান্তি সম্প্রীতি বজায় রাখতেই এই কাজ করেছে তাঁরা।  নন্দবাবা মন্দিরে ফয়জল খানের নমাজ পাঠ থেকে অণুপ্রানিত হয়েই এই মসজিদে এসে হনুমান চালিশা পাঠ করেছে তাঁরা বলে দাবি করেছে।

আরও পড়ুন- রিপাবলিক টিভির এডিটর ইন চিফ অর্ণব গোস্বামী গ্রেফতার

চমথুরার পুলিশ সুপার শিরীশ চন্দ্র জানিয়েছেন, সোশ্যাল মিডিয়ার মারফত জানা যায়, কয়েক জন যুবক গোবর্ধন এলাকায় ইদগাতে ঢুকে হনুমান চালিশা পাঠ করেছে।  তিনি এও জানিয়েছেন যে, অভিযুক্ত ৪ যুবক কোনও ধর্মীয় সংগঠনের সদস্য নয় বলে দাবি করেছে।

উল্লেখ্য, রবিবার দুপুরে নন্দবাবা মন্দিরে বিনা অনুমতিতে নমাজ পড়েন ফইজল খান ও চাঁদ মহম্মদ নামে দুই ব্যক্তি। সেই মুহূর্তের ছবি সোশ্যাল মিডিয়াতে পোস্ট করেন অলোক রতন ও নীলেশ গুপ্তা।  আর এরপরই গ্রেফতার হয় ফয়জল খান নামে এক যুবক। রবিবার রাতেই বিনা অনুমতিতে মন্দিরে ঢুকে নমাজ পড়ার ঘটনায় মুকেশ গোস্বামী, শিবহরি গোস্বামী ও কানহা নামে তিন ব্যক্তি ওই চারজন অভিযুক্তের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করেন। অভিযোগের ভিত্তিতে ভারতীয় দণ্ডবিধির ১৫৩-এ, ২৯৫ এবং ৫০৫ ধারায় মামলা রুজু করেছে পুলিশ তদন্ত শুরু করেছে।

 

Related Articles

Back to top button
Close