fbpx
গুরুত্বপূর্ণদেশহেডলাইন

২১শে জুনের সূর্যগ্রহণের পরই পৃথিবী থেকে বিদায় নেবে করোনা, দাবি ভারতীয় পরমাণু বিজ্ঞানীর

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: এখনও পর্যন্ত সারা বিশ্বে প্রায় সাড়ে চার লক্ষ মানুষ মারা গেছেন করোনা আক্রান্ত হয়ে।
এরইমধ্যে এক চাঞ্চল্যকর দাবি করলেন এল ভারতীয় পরমাণু বিজ্ঞানী। চেন্নাইয়ের এই পরমাণু বিজ্ঞানী দাবি করলেন যে, সূর্য গ্রহণের সঙ্গে এই ভাইরাসের সরাসরি সম্পর্ক রয়েছে। আগামী ২১ শে জুন সূর্য গ্রহণের পর পৃথিবী থেকে বিদায় নেবে করোনা।

অনেকে বলেছেন, রাসায়নিক গবেষণাগার থেকেই এই ভাইরাসের জন্ম। আবার অনেক বিজ্ঞানী বলেছেন যে, প্রকৃতি থেকেই এই ভাইরাসের উৎপত্তি। এরইমধ্যে চেন্নাইয়ের পরমাণু বিজ্ঞানী ডঃ কে সুন্দর কৃষ্ণা জানিয়েছেন, করোনা কোনওভাবেই রাসায়নিক ল্যাবরেটরি থেকে উৎপন্ন করা হয়নি। এটি একটি মহাজাগতিক ঘটনা। মহাকাশ থেকেই এই ভাইরাসের উৎপত্তি এবং সেটা সম্পূর্ণ প্রাকৃতিক ভাবে।

চেন্নাইয়ের এই বিজ্ঞানী বলছেন, গত বছর ২৬ ডিসেম্বর ছিল সূর্যগ্রহণ। তারপর থেকেই চিনে এই ভাইরাসের প্রকোপ বাড়তে শুরু করে। অর্থাৎ সূর্য গ্রহণের পরই এই ভাইরাসের উৎপত্তি। তাই পরবর্তী সূর্যগ্রহণ অর্থাৎ একুশে জুন এই ভাইরাসের বিনাশ হবে।

চেন্নাইয়ের এই বিজ্ঞানী আরও বলেছেন, ২৬ ডিসেম্বর সূর্য গ্রহণের পর পৃথিবীর বায়ুমণ্ডলের স্তরে রাসায়নিক বদল ঘটেছিল। সেই সময়ে এই ভাইরাসের জন্ম। সূর্য গ্রহনের সময় পৃথিবীর বায়ুমণ্ডলে তড়িদাহত কণাগুলির মধ্যে বড় রাসায়নিক বদল হয়। এই বায়ো নিউক্লিয়ার রিঅ্যাকশন এর ফলে নিউট্রনের বদল শুরু হয়।

সেই পরিস্থিতিতে বিভিন্ন ভাইরাসের নিউক্লিয়াস তৈরি হয়। সূর্য গ্রহনের সময় তৈরি হওয়া বায়ো নিউক্লিয়ার ইন্টারঅ্যাকশন বিভিন্ন ভাইরাস সৃষ্টির অন্যতম কারণ। এই স্তরকে বলা হয় ডি লেভেল। আগামী একুশে জুন সূর্যের বলয়গ্রাস পূর্ণগ্রাস গ্রহণ হবে। সেদিনও বায়ুস্তরে বিভিন্ন রাসায়নিক বদল ঘটবে। তখনই এই ভাইরাসের বিনাশ হওয়ার সমূহ সম্ভাবনা রয়েছে বলে দাবি তাঁর।

Related Articles

Back to top button
Close