fbpx
কলকাতাপশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

ইমাম ভাতার পরে এবার পুরোহিত ভাতা, সঙ্গে বাড়িও! ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীর

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: এবার পুরোহিতদেরও ভাতা দেবে রাজ্য সরকার। তাঁদের জন্য বাংলা আবাস যোজনায় বাড়ি করে দেওয়ার পরিকল্পনা করেছে রাজ্য। রাজ্য বিধানসভা নির্বাচনের প্রাক্কালে তাঁর এই মাস্টারস্ট্রোক বড়সড় ধাক্কা দিয়ে দিল গেরুয়া শিবিরকে। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এদিন নবান্নে এক সাংবাদিক বৈঠকে ঘোষণা করেন যে, এবার থেকে রাজ্যের পুরোহিতরা রাজ্য সরকার থেকে মাসে ১০০০ টাকা করে ভাতা পাবেন। সঙ্গে বাংলা আবাস যোজনায় তাঁদের একটি করে বাড়িও করে দেওয়া হবে। প্রাথমিক ভাবে রাজ্যের ৮০০০ পুরোহিত এই ভাতা পাবেন। আগামী অক্টোবর মাসে রাজ্য সরকারের তরফে তাঁদের হাতে ভাতা তুলে দেওয়া হবে বলেই মুখ্যমন্ত্রী জানান।সোমবার সাংবাদিক বৈঠক করে এমনটাই ঘোষণা করলেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। যা দেখে রাজনৈতিক মহলের দাবি, বিধানসভা নির্বাচনের আগে মাস্টারস্ট্রোক দিলেন তৃণমূল নেত্রী।

এদিন এই ঘোষণা করার আগেই মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের রাজ্যে যাঁরা ইমাম আছেন বা মোয়াজ্জেম আছেন, তাঁদের নিয়ে অনেকে বড় বড় কথা বলেন। তাঁদের ওয়াকফ বোর্ড কেন দেবে! আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি, যাঁরা গরিব পুরোহিত, অনেকেই আমাদের কাছে সমস্যার কথা বলেছেন, সে সব কথা মাথায় রেখে আমরা হাজার টাকা করে মাসে তাঁদেরও দেব। সেইসঙ্গে যাঁদের বাড়ি নেই, তাঁদের বাড়িও বানিয়ে দেব বাংলা আবাস যোজনায়।’ এছাড়াও মমতা এদিন বলেন, ‘সনাতন ধর্মের অনেকেই একটা অনুরোধ করেছেন তাঁদের জন্য তীর্থস্থান গড়ে দেওয়ার। আমরা তা গড়ার জন্য কোলাঘাটে জমি চিহ্নিত করেছি।’

পাশাপাশি মুখ্যমন্ত্রী জানান, আজ হিন্দি দিবস। বাংলা মাতৃভাষা হলেও বাঙালিরা সমস্ত ভাষাকেই সম্মান করেন। কোনও ভাষাকে অবজ্ঞা করা হয় না এখানে। তাঁর কথায়, ‘আমরা ২০১১ সালেই একটি হিন্দি অ্যাকাডেমি গঠন করেছিলাম, আজ হিন্দি অ্যাকাডেমি কমিটিও গঠন করছি। এছাড়া দলিত সাহিত্য অ্যাকাডেমিও গঠন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার।’

আরও পড়ুন: আরামবাগের এসডিপিও নেতৃত্ব দিয়ে খুন করাচ্ছে বিজেপিকে: সাংসদ সৌমিত্র খাঁ

মুখ্যমন্ত্রী জানান, বিভিন্ন প্রাচীন উপজাতির ভাষা ও সংস্কৃতির কথা লেখা যে ৩ হাজার পাণ্ডুলিপি বিষ্ণুপুরের জাদুঘরে আছে, তা ডিজিটাইজ করারও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে সরকারের তরফে। বাংলার বিভিন্ন প্রাচীন ধর্মস্থানের বা হেরিটেজের ম্যাপিংও করা হবে। বাংলায় ক্ষমতায় আসার পরপরই ইমাম ভাতা চালু করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁর সেই পদক্ষেপকে সংখ্যালঘু তোষণ বলে সমালোচনা করেছিলেন বিরোধীরা। অনেকের বক্তব্য ছিল, এতে সংখ্যাগুরুর আবেগও আহত হয়েছে। এ বার পুরোহিত ভাতা যখন শুরু করতে চলেছেন মুখ্যমন্ত্রী তখন একুশের ভোটের মাত্র ৬ মাস বাকি। তাঁর সরকারের দ্বিতীয় মেয়াদ শেষ হতে চলেছে। মুখ্যমন্ত্রীর এই ঘোষণাকে তাই অনেকেই রাজনীতি ও ভোটের সঙ্গে জুড়ে দেখছেন।

Related Articles

Back to top button
Close