fbpx
দেশহেডলাইন

ভাঙনের আশঙ্কা, এনডিএ থেকে বেরিয়ে যেতে পারে আকালি দল!

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: কৃষি বিল নিয়ে এনডিএ-র মধ্যে ফাটল চওড়া হচ্ছে। গতকালই কেন্দ্রীয় মন্ত্রী শিরোমনি আকালি দলের হসমিরত কৌর বাদল পদত্যাগ করেছিলেন। তারপরও দলের শীর্ষ নেতা সুখবির সিং বাদল সরকার ও বিজেপি’কে সমর্থনের কথা জানিয়েছিলেন। কিন্তু কিছুক্ষণের মধ্যেই সুর বদলে তিনি জানিয়ে দেন এরপর এনডিএ তে তাদের দল থাকবে কিনা সেটা তারা বিবেচনা করে দেখবেন।

হসমিরত কৌর বাদল পদত্যাগ পর তাঁর স্বামী তথা শিরোমণি অকালি দলের শীর্ষ নেতা সুখবীর সিং বাদল জানান, তাঁরা বিজেপি নেতৃত্বাধীন এনডিএ-তে থাকবেন কিনা ভাবছেন। বিজেপির সবচেয়ে পুরানো জোটশরিকদের অন্যতম হল অকালি দল। সুখবীর সিং বাদল বলেন, কৃষি নিয়ে মন্ত্রিসভায় অর্ডিন্যান্স আসার সময় হরসিমরত কৌর বাদল তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছিলেন। তিনি স্পষ্ট বলেছিলেন, পাঞ্জাবের মানুষ ওই অর্ডিন্যান্স নিয়ে উদ্বিগ্ন। এই ধরনের অধ্যাদেশ আনার আগে কৃষকদের সঙ্গে আলোচনা করা উচিত ছিল। অকালি দল কিন্তু শুরুতে কৃষি বিলগুলি সমর্থন করেছিল।

সংসদের বাইরে সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি’কে দেওয়া এক সাক্ষাত্‍কারে বাদল জানান, যেদিন থেকে অর্ডিন্যান্স সংসদে পেশ করার জন্য আনা হয়েছিল সেদিন থেকেই হসমিরত কৌর বাদল দৃঢ়তার সঙ্গে প্রতিবাদ করেছিলেন এবং এই বিষয়ে পঞ্জাবের মানুষ এই অর্ডিন্যান্স নিয়ে কী ভাবছে সে কথা জানিয়েছিলেন। বিশেষ করে কৃষকদের সঙ্গে আলোচনা করার কথা বলেছিলেন। কিন্তু ওরা অর্ডিন্যান্স পাশ করিয়ে দিল।”

সুখবীর সিং বাদলের দাবি, ‘কৃষক বিরোধী এই তিনটি বিল পাশ করাতে প্রথম যে দিন কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভায় অর্ডিন্যান্স আনা হয়, তখন থেকে তার বিরোধিতা করে এসেছেন হসমিরত কৌর বাদল। পাঞ্জাবের মানুষ এই বিলগুলি নিয়ে চিন্তিত বলেও কেন্দ্রকে জানিয়েছিলেন হরসিমরত। বিল পাশের আগে কৃষকদের সঙ্গে আলোচনার দাবি জানিয়েছিলেন তিনি। কিন্তু সেসব পরামর্শ উপেক্ষা করেই বিল পাশ করানো হয়েছে।’

আরও পড়ুন: রণক্ষেত্র কেশপুর , তৃণমূলের ‘গোষ্ঠী সংঘর্ষে’ রাতভর বোমাবাজিত, মৃত ২

বৃহস্পতিবারই লোকসভায় পাশ হয়ে গিয়েছে বিতর্কিত দু’টি কৃষি বিল। সোমবার পাশ হয়েছিল একটি। ক্ষুব্ধ সুখবীর সিং বাদল বলেছেন, ‘এক বিন্দুও পরিবর্তন না করেই বিলগুলি সরকার পেশ করল। এতে আমরা খুবই মর্মাহত। যে সরকার কৃষকদের কথা ভাবে না, তার অংশ হয়ে থাকার মানে নেই। দু’ মাস ধরে আমরা সরকারকে বোঝানোর চেষ্টা করেছি। কিন্তু এখন আর পিছনে ফিরে তাকানোর অর্থ হয় না।’ সুখবীর সিং বাদল জানিয়েছেন, এনডিএ প্রতিষ্ঠা হওয়ার সময় থেকে অকালি দল বিজেপি-র নেতৃত্বাধীন এই জোটের সঙ্গে ছিল। কিন্তু এবার সেই সম্পর্ক ছিন্ন করা হবে কি না, দলের কোর কমিটির বৈঠকে আলোচনা করেই সে বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

প্রাথমিক ভাবে এই কৃষি সংস্কারে তার দল সমর্থন জানিয়েছিল মনে করিয়ে দিলে বাদল বলেন, ‘সরকারের জোটসঙ্গী হওয়ার কারণে সরকার যা ভাবছে সে কথা তারা সাধারণত কৃষকদের জানাতেন। অন্যদিকে কৃষকদের অভিমতও আমরা সরকারকে জানানো হতো। ”আমরা অত্যন্ত দুঃখের সঙ্গে দেখলাম ভারত সরকার বিলের সামান্য অংশও পরিবর্তন না করে পেশ করল। যে সরকার কৃষকদের অধিকারের কথা ভাবে না সেই সরকারের অংশ হয়ে থাকা যায় না। আমরা বিগত দু’মাস ধরে সরকারকে বোঝানোর চেষ্টা করেছি। কিন্তু বিল পাশ হয়ে যাওযার পর আমরা আর পিছিয়ে আসতে পারি না” বলে জানান শিরোমনি আকালি দলের নেতা।

এরপরও এনডিএ’র জোটসঙ্গী হয়ে থাকবেন কিনা জানতে চাইলে বাদল বলেন, ”আমরা এনডিএ-র প্রতিষ্ঠাতা সদস্য। আমরা দলের মধ্যে আলোচনা করব। পরিস্থিতি বিশ্লেষণ করব। আমাদের দলে একটি কোর কমিটি আছে তারাই সিদ্ধান্ত নেবে। দেখা যাক কোন কর্মসূচি নেওযা হয়।” আগে কৃষি সংস্কার বিষয়ে তিনটি অধ্যাদেশ সংসদে পেশ করা হলে বিরোধীরা ওয়াক আউট করেন। অধিকাংশ বিরোধীদল সহ সরকারকে ইস্যুভিত্তিক সমর্থন করা কয়েকটি দল, যেমন বিজু জনতা দল এবং টিআরএস এই বিলের বিরোধিতা করে।

 

 

Related Articles

Back to top button
Close