fbpx
কলকাতাগুরুত্বপূর্ণপশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

রাজ্যের মুখ্যসচিব হচ্ছেন আলাপন, বিজ্ঞপ্তি জারি নবান্নর

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: রাজ্যের মুখ্যসচিব হচ্ছেন আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়। সোমবারই এ নিয়ে বিজ্ঞপ্তি জারি করেছে রাজ্য সরকার। তাতে বলা হয়েছে, আগামী ৩০ সেপ্টেম্বর অবসর নিচ্ছেন বর্তমান মুখ্যসচিব রাজীব সিংহ। তাঁর জায়গায় আসছেন আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়।

বর্তমান অর্থ দফতরের সচিব হরেকৃষ্ণ দ্বিবেদিকে রাজ্যের নতুন স্বরাষ্ট্রসচিব নিযুক্ত করা হল। অন্যদিকে অর্থ দফতরের সচিবের দায়িত্ব পেলেন মনোজ পন্থ। আগামী ১ অটোবর থেকে দায়িত্ব নেবেন তিনজন।’আগামী মাস থেকে রাজ্যের নতুন মুখ্যসচিবের পদে দায়িত্ব দেবেন আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়। যদিও তাঁর কার্যকাল মেয়াদ অবশ্য ২০২১-এর মে মাস পর্যন্ত। ২০২১-এর গুরুত্বপূর্ণ লড়াই তৃণমূল সরকারের কাছে। এই সময়ে গুরুত্বপূর্ণ দফতর হল স্বরাষ্ট্র দফতর। ফলে সেই দফতরের দায়িত্বে কে থাকছেন, সেটাও গুরুত্বপূর্ণ বর্তমান সরকারের কাছে। প্রসঙ্গত, সব কিছু ঠিকঠাক চললে আগামী বছর মে মাসের মধ্যে বিধানসভা ভোটও মিটে যাওয়ার কথা। ফলে, সব দিক বিচার বিবেচনা করে নবান্নের প্রশাসনিক রদবদল যথেষ্ট তাত্‍পর্যপূর্ণ বলে মনে করছেন পর্যবেক্ষক মহলের একাংশ।

নিজের টুইটারে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় লেখেন, ‘আমি এটা জানাতে পেরে খুব আনন্দিত যে বর্তমান স্বরাষ্ট্রসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়কে রাজ্যের নতুন মুখ্যসচিব নিযুক্ত করা হল। বর্তমান অর্থ দফতরের সচিব হরেকৃষ্ণ দ্বিবেদিকে রাজ্যের নতুন স্বরাষ্ট্রসচিব নিযুক্ত করা হল। অন্যদিকে অর্থ দফতরের সচিবের দায়িত্ব পেলেন মনোজ পন্থ। আগামী ১ অটোবর থেকে দায়িত্ব নেবেন তিনজন।’

আরও পড়ুন: নীতি ও রাজনীতির বিতর্কে ভারতের কৃষিক্ষেত্র

টুইটে জানিয়েছেন মুখ্যসচিবের দায়িত্ব ছাড়লেও অন্য একটি দায়িত্ব দেওয়া হচ্ছে রাজীব সিনহাকে। তিনি বলেন, ‘আমি আরও জানাতে চাই রাজ্যের বিদায়ী মুখ্যসচিব রাজীব সিনহাকে তিন বছরের জন্য ওয়েস্ট বেঙ্গল ইন্ডাস্ট্রিয়াল ডেভেলপমেন্ট কর্পোরেশনের চেয়ারম্যান করা হল। রাজ্য সরকারের হয়ে কাজের জন্য তাঁকে ধন্যবাদ।’

১৯৮৭ ব্যাচের আইএএস অফিসার আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায় তাঁর চাকরি জীবনে একাধিক জেলাশাসকের দায়িত্ব পালন করেছেন। বর্তমান সরকার তাঁকে রাজ্য নির্বাচন কমিশনের দায়িত্বেও বসিয়েছিল। এক সময়ে তিনি কলকাতা পুরসভার কমিশনারও ছিলেন। এছাড়া তথ্য ও সংস্কৃতি দফতরের সচিব হিসেবেও কাজ করেছেন তিনি। রাজ্যে অতিরিক্ত মুখ্যসচিব পদে কর্মরত আমলাদের মধ্যে আলাপন সবচেয়ে সিনিয়র। প্রশাসনের অন্দরের ব্যাখ্যা, দীর্ঘ অভিজ্ঞতা এবং সরকারকে বহু বার নানা সমস্যা থেকে বার করে আনার সুবাদে পরবর্তী মুখ্যসচিব পদের অন্যতম দাবিদার ছিলেন তিনিই।

 

 

Related Articles

Back to top button
Close