fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

কড়া নিয়মবিধি মেনে ৫০ শতাংশ ক্রেতার শর্তে খুলল রাজ্যের সব পানশালা, বন্ধ ডান্সফ্লোর

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা: রাজস্ব উপার্জনের লক্ষ্যে মদের দাম কমানো ছাড়া রাজ্যের সমস্ত পানশালাও মঙ্গলবার থেকে খুলে দিল রাজ্য আবগারি দফতর। একইসঙ্গে জানানো হয়েছে, যে সব রেস্তোরাঁয় খাবারের সঙ্গে মদ বিক্রি করা হয়, সেগুলিতেও মঙ্গলবার থেকে গ্রাহকেরা মদ খেতে পারবেন। তবে এই সমস্ত পানশালা ও রেস্তোরাঁগুলিকে কনটেনমেন্ট জোনের বাইরেই থাকতে হবে।

এছাড়াও বার বা নাইটক্লাবগুলিতে নাচের ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। পানশালাগুলি তাদের মোট আসনের ৫০ শতাংশের বেশি গ্রাহকের বসার ব্যবস্থা করতে পারবে না। করোনা কালের সমস্ত স্বাস্থ্যবিধি ও দূরত্ববিধি মেনে তবেই গ্রাহকদের বসার বন্দোবস্ত করতে হবে। খোলা ও বন্ধ করার সময়ও করোনা বিধি অনুযায়ী মেনে চলতে হবে।

পশ্চিমবঙ্গে পয়লা সেপ্টেম্বর থেকে বারগুলি খুলে যেতে চলেছে বলে সরকার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে বলে আগেই জানিয়েছিল রেস্তোরাঁ মালিকদের সংগঠন। ৪০ দিন লকডাউনের পর প্রথমে মদের দোকান খোলার পর বিপুল বিক্রি হলেও পরে দাম বৃদ্ধির কারণে বিক্রি কমে যায়। সেই বর্ধিত দাম তুলে নেওয়া হলেও খুচরো ক্রেতা ধরতে পানশালা বা রেস্তোরাঁগুলি খোলার চিন্তাভাবনা শুরু করেছিল রাজ্য আবগারি দফতর। কারণ মদ কিনে অনেকে বাড়িতে রাখেন না বরং পানশালা রেস্তোরাঁতে খেয়ে সময় কাটিয়ে চলে আসেন। সেই কারণে একাধিক গুরুত্বপূর্ণ বিধিনিষেধ জারি করে এদিন থেকে সমস্ত পানশালা খুলে দেওয়া হল আর দেওয়া হল রেস্তোরাঁতে মদ পরিবেশনের অনুমতিও।

বলা হয়েছে, স্থানীয় প্রশাসন যতক্ষণ রেস্তোরাঁ খোলা রাখার অনুমতি দেবে ততক্ষণই মদ পরিবেশন করা যাবে। বারে ক্রেতা ও কর্মীদের সোশ্যাল ডিসট্যান্সিং রাখতে হবে। মেনে চলতে হবে করোনার স্বাস্থ্যবিধি। হাত ধোয়া ও বার নিয়মিত স্যানিটাইজেশনের ব্যবস্থা রাখতে হবে।

কনটেনমেন্ট জোনে বার খোলা চলবে না।
খাবার পরিবেশন করতে হবে করোনা মোকাবিলায় FSSAI-এ বিধি মেনে।

করোনা মহামারির জেরে লকডাউনে গত মার্চ থেকে বন্ধ পশ্চিমবঙ্গের বারগুলি। তার জেরে ব্যাপক ক্ষতির মুখে পড়তে হয়েছে রাজ্য সরকারকে। তলানিতে ঠেকেছে আবগারি রাজস্ব। বার খুললে সেই পরিস্থিতির কিছুটা বদল হবে বলে আশাবাদী আধিকারিকরা।

Related Articles

Back to top button
Close