fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

মতুয়া সহ উদ্বাস্তুদের নাগরিকত্বের দাবিতে অল ইন্ডিয়া মতুয়া মহাসংঘের আন্দোলন জারি থাকবে : সাংসদ শান্তনু ঠাকুর

শ্যামল কান্তি বিশ্বাস, কৃষ্ণনগর : দেশে সি,এ,এ লাগু না হওয়া পর্যন্ত অল ইন্ডিয়া মতুয়া মহাসংঘের আন্দোলন চলতে থাকবে। সংগঠন কে আরো শক্তিশালী করার জন্য সারা দেশের মতুয়া সমাজ কে এক হয়ে লড়তে হবে,এই আহ্বান অল ইন্ডিয়া মতুয়া মহাসংঘের সংঘাধিপতি তথা সাংসদ শান্তনু ঠাকুরের।২২ শে নভেম্বর নদিয়ার সিলিন্দায় অল ইন্ডিয়া মতুয়া মহাসংঘ, নদিয়া জেলা দক্ষিণ কমিটি আয়োজিত সমাবেশ মঞ্চ থেকে এই বার্তা দেন শান্তনু ঠাকুর। সভায় অন্যান্য বক্তাদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সংঘাধিপতি সুব্রত ঠাকুর,লোককবি অসীম সরকার সহ মতুয়া মাতৃসেনার সভানেত্রী সোমা ঠাকুর। নদিয়া সহ উত্তর ২৪ পরগনা জেলার বিভিন্ন এলাকার মতুয়া ভক্তবৃন্দ সহ অগনিত উদ্বাস্তু সম্প্রদায়ের মহা সমাগমে মাঠ ছিল কানায় কানায় পূর্ণ। সাংসদ শান্তনু ঠাকুর সভা মঞ্চ থেকে মতুয়া ভক্তবৃন্দ সহ উদ্বাস্তু সম্প্রদায়ের মানুষ কে পূনরায় মনে করিয়ে দেন,শুধু সময়ের অপেক্ষা এবং এদেশে বসবাসকারী প্রতিটি মতুয়া সহ উদ্বাস্তু পরিবার ই নাগরিকত্ব পাবে। তিনি বলেন,আমি শান্তনু ঠাকুর মতুয়া পরিবারের সন্তান,মতুয়াদের আশির্বাদে আমি সাংসদ হয়েছি, মতুয়াদের নৈতিক দাবি দাওয়া সহ নাগরিকত্ব আদায়ের ক্ষেত্রে আমি অতীতে লড়েছি, বর্তমানে লড়ছি এবং আগামীতে ও লড়বো। শান্তনু ঠাকুর তার বক্তব্যে বিশেষ ভাবে উল্লেখ করেন,উদ্বাস্তুদের প্রকৃত বন্ধু কেন্দ্রের বি,জে,পি সরকার, এ রাজ্য তথা দেশের বিরোধী রাজনৈতিক দলগুলির শত বাঁধা বিপত্তি উপেক্ষা করে ও শেষ পর্যন্ত যখন বিলটি লোকসভা এবং রাজ্য সভায় অনুমোদন সহ রাষ্ট্রপতি কর্তৃক স্বাক্ষরিত হওয়ার মধ্যদিয়ে আইনে পরিনত হয়েছে,তখন কার্যকর ও নিশ্চিত ভাবে হবে,এ বিষয়ে কোন সন্দেহে র অবকাশ নেই। একাধিক বিরোধী রাজনৈতিক দলের তীব্র বিরোধিতা সহ সুপ্রিম কোর্টে একাধিক রাজনৈতিক দলের অভিযোগ দাখিলের পরিপ্রেক্ষিতে আদালত বন্ধ থাকায় মামলার শুনানি তে বিলম্ব সহ করোনা অতিমারীর প্রকটে পদ্ধতি গত প্রক্রিয়া শুরুতে কিছুটা দেরি হলেও আগামীতে সব ঠিকঠাক ব্যবস্থাপনার মধ্যদিয়ে খুব দ্রুত আইনটি কার্যকর হবে। তিনি দীপ্তকন্ঠে জানান,মতুয়া ভক্তবৃন্দ সহ উদ্বাস্তুদের নাগরিকত্বের জন্য কংগ্রেস,সি,পি,এম,এমনকি বহুজন সমাজ পার্টি, সকলেই মুখ ফিরিয়ে নিয়েছে,এক মাত্র রাজনৈতিক দল ভারতীয় জনতা পার্টি,যারা কিনা পূর্ববঙ্গ থেকে বিতাড়িত সংখ্যালঘু উদ্বাস্তুদের কথা ভেবে তাদের আন্দোলন কে সমর্থন জানিয়ে শিলমহর দিল অর্থাৎ দাবি কে বিল আকারে উপস্থাপন করে আইনে পরিণত করলেন এবং নিশ্চিত ভাবে অতি দ্রুত কার্যকরী হবে বলে দাবি করেন শান্তনু বাবু। দেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ্ জী বিষয়টি নিজে দেখভাল করছেন। অন্যান্য সকল বক্তার আলোচনায় এক ই দাবির পাশাপাশি প্রতিবেশী রাষ্ট্র বাংলাদেশে সম্প্রতি যে ভাবে সংখ্যালঘু হিন্দু সম্প্রদায়ের উপর অত্যাচার সহ নিপিড়ন শুরু হয়েছে,তার বিরুদ্ধে কেন্দ্রীয় সরকার কে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়ার আর্জিতে সোচ্চার হন সকলে।সমগ্ৰ সভাটি সঞ্চালনা করেন,অল ইন্ডিয়া মতুয়া মহাসংঘ, নদিয়া জেলা দক্ষিণ কমিটির সভাপতি ডাঃ মুকুট মণি অধিকারী।

Related Articles

Back to top button
Close