fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

সারা ভারতবর্ষের বারোটা বাজিয়ে এখন বাংলার জন্য সমৃদ্ধি গল্প দেখাতে এসেছেন প্রধানমন্ত্রী: অধীর চৌধুরী

কৌশিক অধিকারী, বহরমপুর: সারা ভারতবর্ষের বারোটা বাজিয়ে এখন বাংলার জন্য সমৃদ্ধি গল্প দেখাতে এসেছেন প্রধানমন্ত্রী। একাধিক বিষয় নিয়ে বৃহস্পতিবার বহরমপুরে জেলা কংগ্রেস কার্যালয়ে সাংবাদিক বৈঠকে কেন্দ্রীয় সরকারকে একহাত নিলেন লোকসভা পরিষদীয় দলনেতা অধীর চৌধুরী ।

বৃহস্পতিবার পশ্চিমবঙ্গের উদ্দেশ্যে ভাষন দেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। নরেন্দ্র মোদি কে কটাক্ষ করে অধীর চৌধুরী বলেন, সারা ভারত বর্ষের বারোটা বাজিয়ে এখন বাংলার জন্য সমৃদ্ধি গল্প দেখাতে এসেছেন প্রধানমন্ত্রী। সারা দেশের গল্প আজকে শেষ। শিল্প বানিজ্য, না কোন রপ্তানি উৎপাদন কোন কিছু নেই। করোনা কে টাকার চেষ্টা করছেন প্রধানমন্ত্রী। করোনা আসবার আগেই দেশের অর্থনীতি হাটে উঠে গিয়েছিল। করোনা আসার পর দেশের সব কিছু করোনা ঘারে চাপিয়ে এখন তিনি বেরিয়ে আসার চেষ্টা করছেন। জৈব সার উত্তরপুর্ব ভারতে অনেক আগে থেকেই হয় আসছে। এতদিন প্রধানমন্ত্রী মাথা ব্যাথা হযনি আজকে চটশিল্প নিয়ে মাথা ব্যাথা করছেন কারন পশ্চিমবঙ্গে বিধানসভা নির্বাচন আসন্ন। ভোট আসছে তাই বিজেপি পক্ষ থেকে আসছে। দেশের অর্থনীতি কে সচল করার জন্য প্রচেষ্টা করা দরকার তখন ভোট রাজনীতি করছেন প্রধানমন্ত্রী ।

নোট বন্দি একটি ভুল পদক্ষেপ ছিল কেন্দ্রীয় সরকারের, আজকে এই সমস্ত বিপ্লব জেরে দেশের অর্থনীতি বিপন্ন। অনেক চাকরি চলে গিয়েছে বেকারত্ব বৃদ্ধি পাচ্ছে। গরীব মানুষের ক্রয় ক্ষমতা নেই, আর্থিক মদত করা প্রয়োজন তখন আর্থিক মদত না করে তিনি দেশ কে আত্ননির্ভর করছেন। একদিকে বলছেন দেশকে আত্ননির্ভর করবে অন্যদিকে দেশের সমস্ত জিনিস বেসরকারি করন করছেন প্রধানমন্ত্রী ।নোট বন্দি স্বপ্ন দেখিয়েছেন কিন্তু কাজের কাজ কিছুই হয়নি ফলে আত্ননির্ভর শ্লোগান দিয়ে যদি ভোট বৈতরনী পার হওয়া যায় তাই ভাবছেন প্রধানমন্ত্রী বলে কটাক্ষ করেন অধীর চৌধুরী । পাশাপাশি, করোনা আবহের মাঝেই রাজনৈতিক মহলও স্ব মহিমায় ফিরছে। দল বদলের পালাও চলছে। বড়ঞা বিধানসভার কল্যাণপুর ২ নং গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকা থেকে প্রায় ৭০জন সক্রিয় তৃণমূল কংগ্রেস কর্মী সমর্থক যোগদান করলেন কংগ্রেসে।

আরও পড়ুন: প্রতিবাদ থেকে পড়াশোনা, দেশের সেরা ৫ এ যাদবপুর, সাতে নামল কলকাতা

বৃহস্পতিবার দুপুরে বহরমপুরে জেলা কংগ্রেস কার্যালয়ে বহরমপুরের সাংসদ অধীর রঞ্জন চৌধুরীর হাত ধরে তারা তৃণমূল ছেড়ে কংগ্রেসে যোগদান করেন। এদিন যোগদান পর্বে অধীর রঞ্জন চৌধুরী বলেন, মুর্শিদাবাদ জেলায় তৃণমূল দলে ভাঙনের সংক্রমণ শুরু হয়েছে। তার জেরে ভ্যার্চুয়াল নয় এটা অ্যাকচুয়াল যোগদান। এই ভাঙন আগামী দিনে আরও বাড়বে। পুলিশ ও গুন্ডা দিয়ে এই ভাঙন রোখার চেষ্টা করছে। যে ভাঙনের সংক্রমণ শুরু হয়েছে তা থেকে রক্ষা করার আর কোন ভ্যাক্সিন নেই বলে মন্তব্য করেন অধীর চৌধুরী ।

Related Articles

Back to top button
Close