fbpx
অসমগুরুত্বপূর্ণহেডলাইন

একাদশ ভাষা শহিদদের শ্রদ্ধাঞ্জলি জানাল সর্বধর্ম সমন্বয় সভা

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: মাতৃভাষা অধিকার রক্ষার জন্য প্রাণ বিসর্জন দেওয়া একাদশ শহিদদের যথাযথ মর্যাদায় শ্রদ্ধাঞ্জলি জানাল বরাক উপত্যকা সর্বধর্ম সমন্বয় সভা’র কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী পরিষদ। আজ সকাল ৮ টায় করিমগঞ্জ মাইজডিহি পয়েন্টে অবস্থিত সংস্থার কার্যালয়ে নির্ধারিত মানুষের উপস্থিতিতে এক সংক্ষিপ্ত শ্রদ্ধাঞ্জলি অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়।

একাদশ শহিদদের মর্যাদা সহকারে প্রণাম জানিয়ে সংস্থার কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক এইচ এম আমির হোসেন বলেন, ১৯৬১ সালের ১৯ মে শিলচর রেলওয়ে স্টেশনে বাংলাভাষা আন্দোলনে পুলিশের গুলিতে শহিদের মৃত্যু বরণ করেন তাঁরা। উনিশে মে’র রক্তে রাঙা পথে শহিদের আত্মবলিদান আজ ইতিহাস। শচীন্দ্র চন্দ্র পাল, কমলা ভট্টাচার্য, হিতেশ বিশ্বাস, সুকোমল পুরকায়স্থ, চণ্ডীচরণ সূত্রধর, কানাইলাল নিয়োগী, কুমুদ রঞ্জন দাস, সুনীল সরকার, তরণী দেবনাথ, বীরেন্দ্র সূত্রধর, সত্যেন্দ্র দেব — ভাষা শহিদেরা অমর রহে মৃদু স্লোগান চলে অনুষ্ঠানে। তিনি আরও বলেন, মাতৃভাষার গৌরব রক্ষার দায়িত্ব এখন আমাদের সকলের হাতে।

মাতৃভাষার ঋণ মাতৃদুগ্ধসম বলেন আমির হোসেন। শহিদদের প্রণাম জানিয়ে মাতৃভাষা জিন্দাবাদ, মা, মাটি, ভাষা আত্মপরিচয়ের জিজ্ঞাসা ঊনিশে মে তোমাকে কেউ ভুলছেনা, ভুলবেনা স্লোগান দেন শিক্ষক ইশরাক আহমেদ চৌধুরী, সৌরভ রায়। এছাড়াও অন্যান্যদের মধ্যে শ্রদ্ধাঞ্জলি জানায় শিশুশিল্পী নাদিয়া মোহাম্মদ চৌধুরী, আমানিয়া জন্নত চৌধুরী। কার্যালয়ের অনুষ্ঠান শেষ করে শম্ভুসাগর পার্কে স্থায়ী শহিদ বেদীর সামনে দাঁড়িয়ে শহিদদের আত্মার শান্তির জন্য বিশেষ প্রার্থনা করা হয় সংস্থার পক্ষ থেকে।

সেখানে উপস্থিত ছিলেন সংস্থার উপদেষ্টা তথা সরকারি স্কুলের প্রাক্তন অধ্যক্ষ নন্দেশ্বর মুখার্জি, বিশ্বরুপ ভট্টাচার্য, উত্তম মজুমদার, তাপস পুরকায়স্থ, সুলেখা দত্ত চৌধুরী, রজত চক্রবর্তী প্রমুখ। শ্রদ্ধাঞ্জলি অনুষ্ঠানে উপস্থিত প্রায় সবাইকে একেকটা বাংলা ক্যালেন্ডার উপহার হিসেবে প্রদান করা হয় সর্বধর্ম সমন্বয় সভা’র পক্ষ থেকে। এদিকে, সংস্থার কার্যালয়ে সন্ধ্যায় আরেকটি প্রদীপ প্রজ্জ্বলন অনুষ্ঠান রয়েছে বলে জানান সাধারণ সম্পাদক এইচ এম আমির হোসেন।

Related Articles

Back to top button
Close