fbpx
কলকাতাহেডলাইন

করোনা চিকিৎসার বেডের সব খুঁটিনাটি জানা যাবে অনলাইনেই, চিকিৎসার খরচ কমানোর নির্দেশ রাজ্যের

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: করোনা চিকিত্‍সায় বেসরকারি হাসপাতালগুলির রোগীর পরিবার বিরুদ্ধে অতিরিক্ত বিল চাপিয়ে দেওয়া হচ্ছে। এবং অনেক হাসপাতাল রোগীদের ভর্তি না নিয়ে ফিরিয়ে দিচ্ছে বলে সরকারের কাছে অভিযোগের পাহাড় জমছিল। আজ, বৃহস্পতিবার বেসরকারি হাসপাতালগুলির প্রতিনিধিদের ডেকে সরকারের তরফে মুখ্যসচিব রাজীব সিনহা স্পষ্ট জানিয়ে দিলেন, রোগীর পরিবারের উপর বাড়তি আর্থিক বোঝো চাপানো যাবে না। এবং মুখ্যসচিব এও বলেন, কত কোভিড বেড ফাঁকা আছে তা বেসরকারি হাসপাতালকে ঘণ্টায় ঘণ্টায় ওয়েবসাইটে আপডেট করতে হবে এবং হাসপাতালের বাইরে ডিসপ্লে করতে হবে। যাতে রোগীর পরিবার বুঝতে পারে।

এদিন ২৫টি বেসরকারি হাসপাতালের প্রতিনিধিরা যোগ দিয়েছিলেন নবান্ন সভাঘরে। বৈঠকের শেষে সাংবাদিক বৈঠক করেন মুখ্যসচিব। তিনি বলেন, ওঁদের সবাইকে বলা হয়েছে বাড়তি বিল না চাপাতে। সমস্যা সবার রয়েছে। এই সময়ে মানবিক হতে হবে। প্রতিটি রোগীর থেকে চিকিত্‍সকদের পিপিই বাবদ রোজ টাকা ধার্য করা হবে, এটা হতে পারে না।মুখ্যসচিব এর সঙ্গে হোম আইসোলেশনের জন্য প্যাকেজ করার অনুরোধ জানিয়েছেন। এছাড়াও, হাসপাতালের সব ধরনের চিকিত্‍সাই শুরু করার অনুরোধও করা হয়েছে।

আরও পড়ুন: মোদিজির সর্বদলীয় বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রীর যোগদানের সিদ্ধান্ত স্বাগত : রাহুল সিনহা

এবার থেকে করোনা চিকিত্‍সার শয্যার সব খুঁটিনাটি এবার থেকে জানা যাবে অনলাইনেই। বৃহস্পতিবার শহরের বেসরকারি হাসপাতালের সঙ্গে এক বৈঠকের পর একথা জানান রাজ্যের মুখ্যসচিব রাজীব সিনহা।  এদিনের সাংবাদিক সম্মেলনে তিনি বলেন, ‘রাজ্যে কোভিড হাসপাতালে ১০ হাজারের বেশি বেড রয়েছে। বেসরকারি ক্ষেত্রে কলকাতায় ১০০০ বেড রয়েছে। আজ সন্ধ্যা সাতটার মধ্যে সরকারি হাসপাতালের বেডের যা পরিস্থিতি তা ইন্টারনেটে চলে আসবে। আর কাল এগারোটার মধ্যে সব সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালের বেডের তথ্যই অনলাইনে চলে আসবে।’ এর ফলে সকলেই স্বাস্থ্য দফতরের ওয়েবসাইটের মাধ্যমে নিকটবর্তী হাসপাতাল ও তাতে বেডের সংখ্যা জানতে পারবেন বাড়িতে বসেই। ফলে শয্যার প্রয়োজন হলে কোনওরকম সমস্যা ছাড়াই যে কোনাও কোভিড রোগী হাসপাতালে ভর্তি হতে পারবেন।

Related Articles

Back to top button
Close