fbpx
আন্তর্জাতিকএকনজরে আজকের যুগশঙ্খহেডলাইন

নারী-পুরুষে আল্লা ফারাক করেননি, তালিবান করবে কেন?

ভাইরাল আফগান কিশোরীর প্রতিবাদী ভিডিও

নিজস্ব প্রতিনিধি: সময় বদলেছে, তাই তালিবানি ফতোয়া চট করে মেনে নিতে চাইছেন না আফগানিস্তানের মহিলারা। বেশ কিছুদিন আগেই তালিবানের ফতোয়ার বিরুদ্ধে রাস্তায় নেমে প্রতিবাদ করতে দেখা গিয়েছিল আফগান মহিলাদের। এবার এক কিশোরী প্রতিবাদ জানাল ভিডিওর মাধ্যমে। সেই ভিডিও ইতিমধ্যেই ভাইরাল হয়েছে। আফগান সাংবাদিক বিলাল সরওয়ারি তাঁর টুইটারে শেয়ার করেছেন ভিডিওটি। সেখানে কালো পোশাক পরা, মাথায় সাদা ওড়না দেওয়া কিশোরীকে বলতে শোনা যাচ্ছে,”আল্লার চোখে নারী ও পুরুষ সমান। তালিবানের কোনও অধিকার নেই এতে বৈষম্য করার। আমি নতুন প্রজন্মের প্রতিনিধি। শুধু খেয়ে আর বাড়িতে ঘুমিয়ে থাকার জন্য আসিনি। আমি স্কুলে যেতে চাই, দেশের উন্নতির জন্য কিছু করতে চাই”। কিশোরীর পরিচয় জানা যায়নি। তবে ওই কিশোরী আফগানিস্তানের মহিলাদের মুখ হয়ে উঠেছে ভিডিওর মাধ্যমে। কিশোরীর মর্মস্পর্শী বক্তব্য মন ছুঁয়ে গিয়েছে গোটা বিশ্বের নেট নাগরিকদের।

আফগানিস্তানের দখল তালিবানের হাতে যাওয়ার পরই বোঝা গিয়েছিল সে দেশে মেয়েদের অবস্থা কি হতে চলেছে। নারী স্বাধীনতা নিয়ে সকলের সংশয় ছিল। যদিও প্রথমে তালিবান লোক দেখানো ভাবে বলেছিল, তারা এখন বদলে গিয়েছে। এমনকী শরীয়ত আইন মেনে মেয়েদের অধিকার রক্ষা করার কথাও বলা হয়েছিল। কিন্তু বাস্তব বলছে অন্য কথা। মেয়েদের লেখাপড়া শেখার ক্ষেত্রে জারি করা হয়েছে প্রচুর বিধিনিষেধ। মেয়েদের বর্ণনা করা হয়েছে ‘সন্তান উৎপাদক যন্ত্র’ হিসেবে। হাজারো ফতোয়া দেওয়া হয়েছে মেয়েদের উপর। এই অবস্থায় ওই কিশোরীর ভিডিও বার্তা শুভবুদ্ধি সম্পন্ন মানুষের মনে বড় ছাপ ফেলেছে। মানসিকভাবে সকলেই তার পাশে দাঁড়িয়েছেন। সবচেয়ে বড় কথা ওই কিশোরীর পাশে দেখা গিয়েছে আরও কিছু আফগান পড়ুয়াকে। তাদের হাতে রয়েছে প্ল্যাকার্ড, সেখানে লেখা আমরা স্বাধীনতা চাই। আমরা তালিবানের আধিপত্য মানতে রাজি নই। যদিও বিষয়টি নিয়ে তালিবানের কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।

 

 

Related Articles

Back to top button
Close