fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

গ্রাহকদের কাছ থেকে টাকা নিয়ে আঁধার কার্ড করিয়ে দেওয়ার অভিযোগ, ধৃত ১

মিল্টন পাল, মালদা : গ্রাহকদের প্রতারণার ফাঁদে ফেলে ৪০০ টাকা করে নিয়ে আঁধার কার্ড তৈরি করে দেওয়ার অভিযোগে ধৃত এক ব্যক্তি। তাকে মালদা জেলা প্রশাসনিক ভবন চত্ত্বর থেকে হাতেনাতে ধরলেন খোদ সদর মহকুমা শাসক সুরেশচন্দ্র রানো। পরে ইংরেজবাজার থানার পুলিশ এসে এই ব্যক্তিকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়। এই চক্রে আর কে কে যুক্ত রয়েছে তা নিয়ে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

মহকুমার শাসক জানান, ওই ব্যক্তির নাম রতন সিং। বাড়ি মালদা থানার মঙ্গলবাড়ি এলাকায়। জেলা প্রশাসনিক ভবনের পাশে গ্রামোন্নয়ন ভবনে আঁধার কার্ড তৈরি ও আধার কার্ড সংশোধনের কাজ চলছে। আঁধার সেবাকেন্দ্রে দালালচক্রের অভিযোগ উঠে আসছিল দীর্ঘদিন ধরে। এদিন খোদ মহকুমা শাসককে অভিযান চালান। আর সেখানেই দালাল চক্রের এক পান্ডাকে হাতেনাতে ধরে ফেলেন তিনি। গ্রাহকদের অনলাইনে আধার কার্ড করিয়ে দেওয়ার নাম করে টাকা তুলছিল। তার কাছ থেকে ৪০০ টাকা পাওয়া যায়। দালাল চক্রের একজনকে ধরতে দেখে বাকিরা সেখান থেকে পালিয়ে যায়। সরকারি কর্মীদের মত না থাকলে এভাবে দালালচক্র চলে কিভাবে।

আরও পড়ুন: লোকাল ট্রেন পরিষেবা থেকে বঞ্চিত বাঁকুড়া, জারি রাজনৈতিক চাপানউতোর

মহকুমা শাসক বলেন, আঁধার তৈরির দালাল চক্রের অভিযোগে পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে ধৃতকে। সে নিজের মুখে স্বীকার করেছে টাকা নিয়ে সে অনলাইনে আধার কার্ড করিয়ে দিত। গোটা ঘটনার তদন্ত হবে। কোনও সরকারি কর্মী যুক্ত থাকলে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

পুলিশ সুত্রে জানা গিয়েছে, ধৃতকে জিঞ্জাসাবাদ করা হচ্ছে।পাশাপাশি গোটা ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে।

Related Articles

Back to top button
Close