fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

আমফান ঝড়ে ক্ষতিপূরণ দেওয়ায় তুমুল দলবাজির অভিযোগ শাষক দলের বিরুদ্ধে

ভাস্করব্রত পতি, তমলুক : আমফান ঝড়ঝঞ্ঝাতে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার নামে চূড়ান্ত দলবাজি ও স্বজনপোষণ চালিয়েছে বর্তমান শাসকদলের প্রতিনিধিরা। তাই দুর্নীতি, দলবাজী বন্ধ করে আমফানে ক্ষতিগ্রস্ত গৃহ মালিকদের অনুদান বণ্টন সহ ওই তালিকা গ্রাম পঞ্চায়েত অফিসে টাঙ্গানো, ধান, পান, ফুল, মাছচাষীদের অবিলম্বে ক্ষতিপূরণ প্রদান, বর্ষার পূর্বে সমস্ত খানাখন্দে ভরা গ্রামীণ রাস্তাগুলি সংস্কার, সেচ দপ্তরের নিকাশী খালে পড়ে থাকা সমস্ত গাছ অবিলম্বে তুলে ফেলা, দিল্লি মহারাষ্ট্র প্রভৃতি সংক্রমিত রাজ্য থেকে আসা সমস্ত পরিযায়ী শ্রমিককে দ্রুত করোনা টেস্ট করানো সহ ১০ দফা দাবিতে এসইউসিআই দলের পক্ষ থেকে স্মারকলিপি দেওয়া হয়।

আজ কোলাঘাট ব্লকের বৃন্দাবনচক,সিদ্ধা , পুলশিটা, ভোগপুর, দেড়িয়াচক, সাগরবাড়, গোপালনগর, কোলা ২, বৈষ্ণবচক গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধানের কাছে দাবিগুলি তুলে দেওয়া হয়। অন্যান্য দাবির মধ্যে অন্যতম হল পরিযায়ী শ্রমিক সহ জব কার্ড হোল্ডারদের ১০০ দিনের কাজ প্রদান, সরকারি সহায়কমূল্যে ধান ক্রয় এবং ভর্তুকিতে আমন ধানের বীজ ধান বিক্রয় কেন্দ্র গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকায় চালু, সমস্ত গরিব মানুষকে বাংলা আবাস যোজনায় গৃহ বাবদ অনুদান দেওয়া প্রভৃতি।

আরও পড়ুন: করোনা হাসপাতাল থেকে করোনা মুক্ত হয়ে বাড়ি ফিরলেন দুই মেদিনীপুরে ১৩ জন বাসিন্দা

ব্লক কমিটির পক্ষে মধুসূদন বেরা, নারায়ণ চন্দ্র নায়ক, বিশ্বরূপ অধিকারী, শঙ্কর মালাকার জানান, গ্রাম পঞ্চায়েতের পর আগামী ১৫ জুন ব্লকের বি ডি ও’র নিকট বিক্ষোভ ডেপুটেশনের কর্মসূচি নেওয়া হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা সহ আমফান ঝড়ে ক্ষতিপূরণের সরকারি অনুদান প্রাপকদের তালিকা প্রকাশ্যে পঞ্চায়েত অফিসে টাঙানো, সরকারি সাহায্য দেওয়ার ক্ষেত্রে স্বজনপোষণ ও দুর্নীতি-দলবাজি বন্ধ করার দাবিতে অনড় সকলেই। পঞ্চায়েতের বিরোধী সদস্যদের এড়িয়ে গোপনে পঞ্চায়েতের কাজের প্রতিবাদে মুখর সব রাজনৈতিক দলগুলিই।

প্রত্যেকের দাবি, যথাযথ তদন্ত করে আমফান ঝড়ে প্রকৃত ক্ষতিগ্রস্তদের সরকারি অনুদান দিতে হবে, প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা সহ বিভিন্ন সরকারি অনুদান দেওয়ার ক্ষেত্রে সর্বদলীয় কমিটি গঠন করতে হবে। নূতন করে করে পঞ্চায়েত ট্যাক্স বৃদ্ধি করা চলবে না। এলাকায় সমস্ত রকম মদ ব্যবসা বন্ধ করতে হবে।

Related Articles

Back to top button
Close