fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

দুর্নীতির অভিযোগে, কাঁকসায় ব্যাঙ্ক মিত্রকে ঘেরাও করে বিক্ষোভ

জয়দেব লাহা, দুর্গাপুর: কেন্দ্রের গরীব কল্যান যোজনার স্বনির্ভর গোষ্ঠীর সব সদস্যের অ্যাকাউন্টে টাকা না ঢোকায় দুর্নীতির অভিযোগ। আর তার প্রতিবাদে গ্রামের ব্যাঙ্কের মিত্রকে ঘেরাও করে বিক্ষোভ দেখাল স্বনির্ভর গোষ্ঠীর মহিলারা। শনিবার ঘটনাকে ঘিরে চরম উত্তেজনা ছড়াল কাঁকসার গোপালপুর গ্রামে। পরিস্থিতি সামাল দিতে ঘটনাস্থলে বিশাল পুলিশ বাহিনী ও গ্রামিন ব্যঙ্কের ম্যানেজার আসে।

বিক্ষোভকারীদের অভিযোগ, জনধন যোজনার ৫০০ টাকা করে ব্যঙ্ক অ্যাকাউন্টে আসছে। একই স্বনির্ভর গোষ্ঠীর কিছু সদস্যের অ্যাকাউন্টে টাকা ঢুকলেও, অনেকের টাকা দেওয়া হচ্ছে না। অধিকাংশ গ্রাহকদের টাকা ব্যঙ্কমিত্র আত্মসাৎ করেছে বলে অভিযোগ। মহিলারা আরও বলেন,” ব্যঙ্কমিত্র বেশ কয়েকদিন আগে টাকা এসেছে বলে স্বনির্ভর গোষ্ঠী মহিলাদের কাছ থেকে আধার কার্ডের জেরক্স ও আঙুলের ছাপ নিয়ে যায়। এরপরই তিনি কিছুজন গ্রাহককে টাকা দেয়। টাকা না পাওয়া অধিকাংশ গ্রাহক বিষয়টি নিয়ে ব্যঙ্কমিত্রের কাছে টাকা না পাওয়ার কারণ জানতে চাই। কিন্তু তার কোনও সদুত্তর তিনি দিতে পারেনি।” এর পরেই ক্ষুব্ধ হয়ে ব্যঙ্কমিত্রের বাড়ি ঘেরাও করে টাকার দাবিতে।

আরও পড়ুন: করোনা উপসর্গ থাকা সত্ত্বেও রোগীকে ফেরাল দুটি হাসপাতাল, অ্যাম্বুল্যান্সেই মৃত্যু ব্যক্তির

যদিও অভিযোগ অস্বীকার করেছে মাধবী সরকার। তিনি বলেন,” মাস ছয়েক আগে আমাকে এটিএম মেশিন দেয় ব্যাঙ্ক। সম্প্রতি সংক্রামক রুখতে বন্ধ রেখেছিলাম। কিন্তু ব্যাঙ্ক কর্তৃপক্ষ সেটা চালু রাখতে বলেন। মুলত এলাকার বার্ধ্যক্য ভাতা, গ্যাস ভর্তুকির টাকা ও অন্যান্য গরীব মানুষের সহায়তার টাকা এখান থেকে দেওয়া হয়। কেন্দ্রের যোজনায় সবার অ্যাকাউন্টে ৫০০ টাকা গতবারে আসেনি। এখন অনেকে টাকা ঢুকেছে ভেবে সেটা তুলতে আসে। এবং টাকা তোলার পর জানতে পারে তার আগের জমানো থেকে টাকা উঠছে। নতুন করে কোন টাকা ঢোকেনি। সেটাই আমার ওপর মিথ্যা দোষ চাপাচ্ছে। এখানে কোন টাকা আত্মসাৎ করিনি। বিষয়টি তারা ভুল বুঝছে।”

এদিন উত্তেজনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যায় পুলিশ। পরিস্থিতি সামাল দিয়ে সোমবার বিষয়টি নিয়ে আলোচনার আশ্বাস দেয় পুলিশ। পরিস্থিতি সামাল দিতে ঘটনাস্থলে আসে রাজবাঁধ গ্রামীণ ব্যাংকের ম্যানেজার। তাঁকেও ঘিরে চলতে থাকে বিক্ষোভ। পুলিশের আশ্বাসে প্রায় তিন ঘন্টা পরে বিক্ষোভ উঠে যায়। কাঁকসা বিডিও সুদীপ্ত ভট্টাচার্য বলেন,”আগামী সোমবার গোপালপুর গ্রাম পঞ্চায়েতে অভিযোগকারী গ্রাহকেরা সহ ত্রিপাক্ষিক বৈঠকের মাধ্যমে বিষয়টি সমাধান করা হবে।”

Related Articles

Back to top button
Close