fbpx
কলকাতাহেডলাইন

‘অন্যায়ভাবে ফাঁসানোর’ অভিযোগ, রিয়ার সমর্থনে কলকাতায় কংগ্রেসের মিছিল

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যু মামলায় যখন রাজনৈতিক তরজা চরমে তখনই রিয়া চক্রবর্তীর সমর্থনে কলকাতায় রাস্তায় নামল কংগ্রেস। রাজনৈতিক স্বার্থে রিয়াকে ফাঁসানো হয়েছে বলে দাবি করে শনিবার বিকেলে শহরে মিছিল করলেন দলীয় কর্মীরা। বিধান ভবন থেকে ধর্মতলা পর্যন্ত যায় মিছিলটি। মিছিল থেকে বঙ্গতনয়া রিয়ার অবিলম্বে মুক্তির দাবি ওঠে।

এদিন মিছিল থেকে আওয়াজ ওঠে বাংলার মেয়ে রিয়া চক্রবর্তীকে অন্যায় ভাবে ফাঁসানো চলবে না। তাঁকে রাজনীতির শিকার হতে দেব না। এদিন রিয়ার সমর্থনে নেতৃত্বে ছিলেন কংগ্রেসের বিধানসভায় চিফ হুইপ ও প্রদেশ কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক শ্রী মনোজ চক্রবর্তী। মিছিলে পা মেলান বিধায়ক অসিত মিত্র, রিজু ঘোষাল,সুমন পাল,মহেশ শর্মা, প্রীতম ঘোষ, প্রদীপ প্রসাদ, সৌরভ প্রসাদ ছাড়াও আরও রাজ্য ও জেলার নেতৃত্ব।

লোকসভায় কংগ্রেস দলনেতা তথা প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর রঞ্জন চৌধুরীর নির্দেশে শনিবার প্রদেশ কংগ্রেস দফতর থেকে ওয়েলিংটন পর্যন্ত একটি মিছিল করেন কংগ্রেস কর্মীরা। মিছিলের সামনে যে ব্যানার ছিল, তাতে লেখা ছিল “বাংলার মেয়ে রিয়া চক্রবর্তীর উপর রাজনৈতিক অভিসন্ধি ও প্রতিহিংসামূলক আচরণ বরদাস্ত করা হবে না।”

সম্প্রতি সুশান্ত সিং রাজপুত মৃত্যু রহস্যে মুখ খোলেন অধীর চৌধুরী। যেভাবে মামলার গতিপ্রকৃতি এগোচ্ছে তার পিছনে বিজেপি সরকারের হাত রয়েছে বলে মন্তব্য করেন লোকসভায় কংগ্রেসের পরিষদীয় দলনেতা। প্রকাশ্য়ে সমর্থন না করলেও রিয়াকে বাঙালি ব্রাহ্মণ কন্য়া বলেই সম্বোধন করেন তিনি।

অধীরের কথায়, রিয়া চক্রবর্তীকে সুশান্ত সিংয়ের মৃত্যুতে প্ররোচনা দেওয়ার জন্য কিন্তু গ্রেফতার করা হয়নি। কিংবা কোনও আর্থিক অপরাধে গ্রেফতার করা হয়নি। তাঁকে গ্রেফতার করা হয়েছে এনডিপিএস আইনের ধারায়। যা কিনা হাস্যকর। রাজনৈতিক প্রভুদের খুশি করতে গিয়ে তদন্ত এজেন্সিগুলি অমৃতের বদলে এখন ড্রাগ খুঁজে পেয়েছে। এখনও তাঁরা অন্ধকারে হাতড়ে চলেছে খুনি কে?

এদিকে বিহারে শাসক জোট এরই মধ্যে সুশান্তের ছবি দিয়ে পোস্টার লাগানো শুরু করেছে—‘না ভুলেঙ্গে না ভুলনে দেঙ্গে..।’ এই প্রসঙ্গে অধীরবাবু বলেন, সুশান্ত সিং রাজপুত সর্বভারতীয় অভিনেতা ছিলেন। গোটা দেশের মানুষের ভালবাসা পেয়েছেন তিনি। দেশের বিপুল সংখ্যক মানুষ তাঁর অভিনয় দেখে মুগ্ধ হয়েছেন। কিন্তু বিজেপি তাঁকে বিহারের অভিনেতা করে ছেড়েছে। এটা বড়ই দুর্ভাগ্যের।

Related Articles

Back to top button
Close