fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

রিসর্ট মালিকের কাছ থেকে ১৫ লাখ টাকা চেয়ে হুমকির অভিযোগ তৃণমূল নেতার বিরুদ্ধে

নিজস্ব সংবাদদাতা, শান্তিনিকেতন: শান্তিনিকেতন থানার অন্তর্গত তালতোর এলাকায় ‘পঞ্চবন’ নামে এক বেসরকারি রিসর্ট রয়েছে। আর সেই রিসর্ট মালিক তাপস মল্লিককে ফোনে ১৫ লক্ষ টাকা তোলা চেয়ে হুমকি দেওয়ার অভিযোগ উঠলো ইলামবাজার থানার অন্তর্গত দেলোরা গ্রামে আব্বাস উদ্দিন নামে এক তৃণমূল নেতার বিরুদ্ধে। এমনকি তৃণমূল নেতার দাবি মতো টাকা না দিতে পারলে প্রাণনাশের হুমকি দেওয়ার কথা বলেন বলে অভিযোগ ওই রিসর্ট মালিক তাপস মল্লিকের। এই ঘটনার জেরে রীতিমতো আতঙ্কে রয়েছেন রিসর্ট মালিক ও তাঁর পরিবার। যদিও এই মর্মে রিসর্ট মালিক শান্তিনিকেতন থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

রিসর্ট মালিক তাপস মল্লিকের অভিযোগের ভিত্তিতে জানা গিয়েছে বেশ কয়েকদিন ধরেই বীরভূম জেলার ইলামবাজারের দেলোরা গ্রামে আব্বাস উদ্দিন নামে ওই তৃণমূল নেতা পঞ্চবন নামে এক রিসর্টের মালিক তাপস মল্লিক কে ফোনে ১৫ লক্ষ টাকা তোলা চান। ওই তৃণমূল নেতার দাবি এই যে, ওই এলাকায় ব্যবসা করতে গেলে ১৫ লক্ষ টাকা তাঁকে দিতে হবে। যদিও তৃণমূল নেতার দাবি মতো ওই ১৫ লক্ষ টাকা রিসর্ট মালিক তাপসবাবু দিতে রাজি না হলে ওই তৃনমূল নেতা রিসর্ট মালিককে প্রাণনাশের ও রিসর্ট বন্ধ করে দেওয়ার হুমকি দেয় বলে অভিযোগ। তাপসবাবু ওই টাকা দিতে অস্বীকার করলে লকডাউন অমান্য করে কয়েকজন লোক ওই রিসর্টে এসে চড়াও হয়। এই ঘটনার জেরে রীতিমতো আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছেন রিসর্ট মালিক সহ তাঁর পরিবার।

আরও পড়ুন: সাবধান ! মেখলিগঞ্জের রাস্তায় করোনা ভাইরাস, ছবি এঁকে প্রচার 

এই ঘটনায় রিসর্ট মালিক তাপস মল্লিক জানান, “ফোনে আমাকে ১৫ লক্ষ টাকা চেয়ে হুমকি দেয় আব্বাস উদ্দিন নামে এক তৃণমূল নেতা। আমি টাকা দিতে অস্বীকার করলে প্রাণে মেরে ফেলার হুঁশিয়ারি দেয়। এই বিষয়ে আমি পুলিশকে জানিয়েছি। কিন্তু, পুলিশের কাছে কোনো সহযোগিতা পাচ্ছি না। তাই নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি।”

যদিও সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করে তৃণমূল নেতা আব্বাস উদ্দিন জানান, “এইরকম কোন টাকার দাবিই আমি ওনাকে করেনি। আর ওনার রিসর্টে আমি বা আমার কোন লোকজন যাইনি। সমপূর্ণ মিথ্যা অভিযোগ করছেন ওই রিসর্ট মালিক। আমার এক আত্মীয়ের জমি জোরপূর্বক দখল করে বসে আছে ওই রিসর্ট মালিক। তাই এই বিষয়ে ওই রিসর্ট মালিকের সঙ্গে কথা বলতে যাই যে, এই বিষয়ে একটা মিমাংসা হোক আইনগত ভাবে। কিন্তু উনি রাজি না হওয়ায় উনি আমাকে ফাঁসানোর চেষ্টা করছেন।”

Related Articles

Back to top button
Close