fbpx
কলকাতাগুরুত্বপূর্ণহেডলাইন

অমিত শাহের শহরে আসার দিনেই খণ্ডযুদ্ধ পুলিশের সঙ্গে, রিমঝিম, কাঞ্চনা মৈত্রসহ গ্রেফতার ১৫০ বিজেপি কর্মী

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা, ৪ নভেম্বর: বুধবার রাতেই শহরে আসছেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ‌অমিত শাহ। তার কয়েক ঘণ্টা আগে বিজেপির যুবমোর্চার কর্মীদের সঙ্গে খণ্ডযুদ্ধ হলো পুলিশের। দীর্ঘক্ষণ অবরুদ্ধ রইলো সেন্ট্রাল অ্যাভিনিউয়ের মতো ব্যস্ত রাস্তা। এদিন বিজেপি যুবমোর্চার সম্পাদিকা রিমঝিম মিত্র, পামেলা গোস্বামী, সাধারণ সম্পাদক প্রকাশ দাস, বিজেপি নেতা কল্যাণ চৌবে কাঞ্চনা মৈত্রসহ ১৫০ জন কর্মী, সমর্থক গ্রেফতার হয়েছেন।এই ঘটনার তীব্র নিন্দা করেছেন বিজেপি যুবমোর্চার সহ সভাপতি শঙ্কুদেব পণ্ডা।

ঘটনা হল , রাজ্যে আইনশৃঙ্খলার অবনতির বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানাতে বুধবার বিকেল ৩ টেয় রাজ্য বিজেপি দফতরে থেকে মেয়োরোডে গান্ধিমূর্তি পর্যন্ত মিছিলের কর্মসূচি নিয়েছিল বিজেপির যুবমোর্চা। কিন্ত মুরলীধর সেন শেষের গলি থেকে সেন্ট্রাল অ্যাভিনিউয়ে মিছিল এগোনামাত্র পুলিশি বাধার মুখে পড়ে। বিজেপির যুব কর্মীরা ব্যারিকেড ভেঙে এগোতে গেলে পুলিশের সঙ্গে খণ্ডযুদ্ধ বেধে যায়। রীতিমতো ধস্তাধস্তি শুরু হয়ে যায়। অনেক কর্মীকেই রাস্তায় টেনে হিঁচড়ে পুলিশ ভ্যানে তোলে। রীতিমতো রণক্ষেত্রের আকার নেয় গোটা এলাকা।

বিজেপি যুবমোর্চার সহ-সভাপতি শঙ্কুদেব পণ্ডা অভিযোগ করেন, পুলিশ বিজেপি রাজ্য দফতরে ঘিরে ফেলেছিল। তিনি বলেন, ‘ কোথাও দেখেছেন পুলিশ কোন রাজনৈতিক দলের দফতর ঘিরে ফেলেছে। কী স্পর্ধা! আর কয়েক ঘণ্টার মধ্যে দেশের কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসছেন, তার আগে পুলিশ গুণ্ডাগিরি করছে। রাজ্যে গণতন্ত্র বলে আর কিছু অবশিষ্ট নেই।’ রিমঝিম মিত্র বলেন, ‘ একটা নিরীহ মিছিল, কোন অশান্তি নেই। অথচ পুলিশ যেভাবে আক্রমণ করলো নিন্দা করার ভাষা নেই। আমাদের বহু কর্মী আহত হয়েছেন। এভাবে চলতে পারে না, বদল চাই একুশে।

Related Articles

Back to top button
Close