fbpx
দেশহেডলাইন

কাশীতে মাটির নীচে মিলল প্রাচীন মন্দির

রক্তিম দাশ, কলকাতা: অযোধ্যার ধ্বংসস্তুপ সরাতে গিয়ে মিলেছিল মন্দিরের অবশেষ। এবার ঠিক একই ঘটনা ঘটল কাশীতে। কাশী বিশ্বনাথ করিডর প্রকল্পের জন্য খনন কার্য চলাকালীনই মসজিদের পাশের মাটি খুঁড়তেই মিলল ১৬ শতকের প্রাচীন এক মন্দিরের ধ্বংসাবশেষ! পাওয়া গেল একটি সুড়ঙ্গেরও হদিশ। আর এই ঘটনায় হিন্দুত্ববাদীদের শ্রীকৃষ্ণ জন্মভূমি উদ্ধারের দাবিকে আর একবার সামনে এনে দিল।

জানা গিয়েছে, ৬০০ কোটি টাকার মোদি সরকারের ড্রিম প্রজেক্ট কাশী বিশ্বনাথ করিডর প্রকল্পের জন্য মন্দিরের পশ্চিমদিকে জ্ঞানভারিদ ময়দানের শৃঙ্গার গৌরি মন্দিরে বুলডোজার দিয়ে খননকার্য চলছিল। সেই সময়ই শ্রমিকেরা মাটির নীচে বহু প্রাচীন একটি সুড়ঙ্গ দেখতে পান । তড়িঘড়ি কাজ থামিয়ে দেওয়া হয়। খবর দেওয়া হয় মন্দির কর্তৃপক্ষকে। কাশী বিশ্বনাথ মন্দিরের প্রধান একসিকিউটিভ অফিসার গৌরাঙ্গ রথি জানান, খননকার্য চলাকালীন নলেজ গ্রাউন্ডে প্রাচীন মন্দিরের ধ্বংসাবশেষ মেলে। বেনারস হিন্দু বিশ্ববিদ্যালয় ও প্রততত্ত্ব বিভাগের বিশেষজ্ঞদের খবর দেওয়া হয়েছে তাঁরা এখন বিষয়টি খতিয়ে দেখবেন বলে আরও জানা গিয়েছে।

অযোধ্যার মতো মথুরা ও কাশী নিয়ে আন্দোলনের নেমেছে সাধু-সন্তদের সংগঠন অখিল ভারতীয় আখাড়া পরিষদ। দেশের ১৪টি রাজ্যের ৭৫জন সাধু-সন্তদের নিয়ে কাশী-মথুরায় “শ্রীকৃষ্ণ জন্মভূমি ট্রাস্ট” তৈরি করে মন্দির গড়ার দাবি তুলে আন্দোলনে নামার পরিকল্পনা করছেন বলে জানিয়েছেন অখিল ভারতীয় আখারা পরিষদের মোহন্ত নরেন্দ্র গিরী।

আরও পড়ুন: বারবার সংঘর্ষ, এবার চিনকে ‘শিক্ষা’ দিতে আসছে অ্যাপাচে হেলিকপ্টার

আখাড়া পরিষদের সভাপতি মোহন্ত নরেন্দ্র গিরী বলেন, ‘মুঘলরা কাশী বিশ্বনাথ মন্দিরের উপর জ্ঞানব্যাপী মসজিদ তৈরি করেছিল। এখন যখন এখানে খনন কাজ চলছে, তখন মন্দিরের ধ্বংসাবশেষ আর সুড়ঙ্গ পাওয়া যাচ্ছে। এটা দেখে স্পষ্ট যে সেখানে আদিকালে মন্দির ছিল। এবার কৃষ্ণ জন্মভূমি কাশী বিশ্বনাথ মন্দিরকে মুক্ত করানোর সময় হয়ে এসেছে’।‘বিষয়টি নিয়ে সাধু-সন্তরা প্রয়াগরাজে বৈঠকে বসতে চলেছেন বলেও জানিয়েছেন মোহন্ত নরেন্দ্র গিরী। এই বৈঠকে ১৩ জন আখারার পদাধিকাররা উপস্থিত থকবেন। এবার কাশী-মথুরার “শ্রীকৃষ্ণ জন্মভুমি”তে মন্দির নির্মাণের জন্য উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ এবং বিজেপির শীর্ষস্থানীয় নেতৃত্বের সঙ্গে বৈঠকে বসে শ্রীকৃষ্ণের মন্দির নির্মাণের রূপরেখা তৈরি করা হবে বলে জানানো হয়েছে অখিল ভারতীয় আখারা পরিষদের পক্ষ থেকে । শ্রীকৃষ্ণ জন্মভূমিতে সনাতনী ঐতিহ্য ফিরিয়ে আনার জন্য প্রয়োজনে বাঁশ ও বাঁশি হাতে নিয়ে আন্দোলনে নামবেন বলে জানিয়েছেন মোহন্ত নরেন্দ্র গিরী এবং কৃষ্ণপাগল সাধু-সন্তের দল ।

 

 

 

 

Related Articles

Back to top button
Close