fbpx
আন্তর্জাতিকখেলাগুরুত্বপূর্ণফুটবলহেডলাইন

চ্যাম্পিয়ন্স লিগে হারের পরেই আগুন জ্বলল প্যারিসে, লাঠিচার্জ পুলিশের, গ্রেফতার ১৪৮ জন

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: প্রথমবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালে উঠেছিল প্রিয় ক্লাব। শিরোপার এত কাছাকাছি এসে তা হাতছাড়া হয়ে যাওয়া প্রচণ্ড রকমভাবে হতাশ ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসের পিএসজি সমর্থকরা। ৫-৭ বছর আগে চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জেতার কথা ভাবতেও পারতেন না প্যারিস সাঁ জাঁর সমর্থকরা। সম্ভবত সেকারণেই ইতিহাসে প্রথমবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জয়ের সুযোগ হাতছাড়া হওয়ায় দৃশ্যতই হতাশ প্যারিসের ফুটবলপ্রেমীরা। তাঁদের সেই হতাশার বহিঃপ্রকাশ হল হিংসার মাধ্যমে। শিরোপা হারানোর বেদনা কোনোভাবেই মেনে নিতে পারেননি প্যারিসের পিএসজি সমর্থকরা। তাই ম্যাচশেষে রাতেই প্যারিসের রাস্তায় নেমে পড়েন সমর্থকরা। শহরের মোড়ে মোড়ে আগুন জ্বালিয়ে বিক্ষোভ প্রদর্শন করেছেন। এমনকি গাড়ি পুড়িয়েও ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন কেউ কেউ। সারারাত ধরে শহরজুড়ে এভাবেই তাণ্ডব চালিয়েছেন বিক্ষোভকারীরা। আর পিএসজি সমর্থকদের এ বিক্ষোভ থামাতে হিমশিম খেতে হয়েছে পুলিশকে। ভাঙচুর, অগ্নিসংযোগ, মারধর এসবই হল। এমনকী করোনার আতঙ্কও রাশ টানতে পারল না সমর্থকদের আবেগে। শেষপর্যন্ত পুলিশকে লাঠিচার্জ করতে হল, এমনকী ছুঁড়তে হল কাঁদানে গ্যাসও।

গতকাল চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনাল দেখার জন্য পিএসজির  নিজস্ব স্টেডিয়ামে দুটি জায়ান্ট স্ক্রিন বসানো হয়েছিল। তবে, করোনা বিধির জন্য স্টেডিয়ামে প্রবেশের অনুমতি পেয়েছিলেন মাত্র ৫ হাজার জন। খেলা শুরুর পরও দেখা গেল স্টেডিয়ামের বাইরে বহু মানুষের লাইন। জায়ান্ট স্ক্রিনে খেলা দেখতে না পেয়ে এমনিতেই হতাশ হয়ে পড়েছিলেন তাঁরা। দলের হারের পর সেই হতাশা আরও বেড়ে যায়। তাঁরা ‘চ্যাম্পস এলিসিসে’ ভাঙচুর শুরু করেন। বেশ কয়েকটি বার এবং ক্যাফেতেও ভাঙচুর করা হয়। প্যারিসের পশ্চিম প্রান্তে রীতিমতো রাস্তায় নেমে গাড়ি এবং দোকানে আগুন লাগিয়ে দেন তাঁরা। পুলিশ বাধ্য হয়ে লাঠি চার্জ করে, কাঁদানে গ্যাস ছোঁড়ে। বহু সমর্থককে আটকও করা হয়।

আরও পড়ুন: উপত্যকায় চিন ঢোকার চেষ্টা করলে আমরাও তৈরি আছি, হুঁশিয়ারি জেনারেল রাওয়াতের

পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে, এই ঘটনায় অন্তত ১৪৮ জন পিএসজি সমর্থককে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাদের মধ্যে কারও কাছে আগ্নেয়াস্ত্রও ছিল। পরিস্থিতি মোকাবিলা করেছে তারা। তবে এভাবে একটা খেলা ঘিরে সংঘর্ষ হবে তা ভাবা যায়নি। অনেক সম্পত্তি নষ্ট হয়েছে। এই ঘটনায় দোষীদের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ নেওয়া হবে বলে জানিয়েছে পুলিশ।আসলে এর আগে ফ্রান্স থেকে এর আগে মাত্র একটি দল চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জিতেছিল। পিএসজি সমর্থকরা আশায় বুক বাঁধছিলেন, তাঁদের দলই ফ্রান্সের দ্বিতীয় দল হিসেবে এই টুর্নামেন্ট জিতবে। কিন্তু সেই স্বপ্ন পূরণ হয়নি। কাতারের বিনিয়োগকারীরা কোটি কোটি টাকা খরচ করে যে নেইমার, এমবাপেদের কিনেছিলেন, সেই তারকারই এদিন হতাশ করলেন। কিংসলে কোম্যানের একমাত্র গোলে প্যারিস সাঁ জাঁ-কে হারিয়ে ষষ্টবারের জন্য চ্যাম্পিয়ন্স লিগ  জিতল বায়ার্ন মিউনিখ। ট্রফির এত কাছে গিয়েও সামান্য ব্যাবধানের এই হার মানতে পারলেন না সমর্থকরা।

 

Related Articles

Back to top button
Close