fbpx
দেশহেডলাইন

ফের দুর্ঘটনা বিশাখাপত্তনমে, ভয়াবহ বিস্ফোরণে জ্বলছে রাসায়নিক বর্জ্য কারখানা

যুগশঙ্খ ডিজিটাল ডেস্ক: গ্যাস লিকের দুর্ঘটনার ক্ষত এখনও শুকায়নি। তার আগেই ফের রাসায়নিক বর্জ্য কারখানায় ভয়াবহ বিস্ফোরণ। সোমবার মাঝরাত, বিকট বিস্ফোরণে কেঁপে ওঠে বিশাখাপত্তনমের পারাভাড়া এলাকা। বিধ্বংসী আগুন ছড়িয়ে পড়ে ফার্মা সিটিতে।  আজ, মঙ্গলবার সকালে আগুন কিছুটা নিয়ন্ত্রণে এলেও ফার্মাসিউটিক্যাল ইউনিটের বেশিরভাগ অংশই পুড়ে গেছে বলে দমকল সূত্রে খবর। ঘটনায় জখম হয়েছেন একজন।  ঘটনাস্থলে পৌঁছেছে দমকলের ১২টি ইঞ্জিন। যুদ্ধকালীন তত্‍পরতায় চলছে আগুন নেভানোর কাজ। তবে কী থেকে বিস্ফোরণ তা এখনও জানা যায়নি। এক প্রত্যক্ষদর্শীর কথায়, মাঝরাতে আচমকাই বিস্ফোরণের শব্দে এলাকা কেঁপে ওঠে। তারপরেই আগুন ছড়িয়ে পড়ে গোটা ফার্মাসিউটিক্যাল ইউনিটে। দাউদাউ করে জ্বলতে থাকে গোটা ইউনিটটাই। আগুন ছড়িয়ে পড়ার শঙ্কা দেখা দেয় আশপাশের বাড়িগুলিতেও।

বিশাখাপত্তনমের জেলাশাসক ভি বিনয় চাঁদ বলেছেন, ইউনিটের অনেক ক্ষতি হয়ে গেছে। আগুন বড় আকারে ছড়িয়ে পড়েছিল। কয়েকজন কর্মী সেই সময় ছিলেন ইউনিটের ভেতরে। একজনের জখম হওয়ার খবর মিলেছে। তাঁকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বাকিরা সুরক্ষিত আছেন। জেলাশাসকের কথায়, আগুন অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে এসেছে বলে জানিয়েছেন তিনি। তবে প্রচণ্ড ধোঁয়ার কারণে ইউনিটের ভেতরে ঢোকা সম্ভব হচ্ছে না। নাইট শিফটের জন্য অনেক কর্মীই সোমবার রাতে ফার্মাসি ইউনিটে ছিলেন। তাঁদের কেউ আটকে পড়েছেন কিনা সেটা দেখা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন তিনি। আগুন লাগার কারণ এখনও অজানা। ফার্মাসিউটিক্যাল ইউনিটে কোস্টাল ওয়েস্ট ম্যানেজমেন্টের প্রজেক্ট চলছিল বলে জানা গেছে। প্রচুর বর্জ্য পদার্থ, প্লাস্টিক জাতীয় বস্তু জমা ছিল বলেই ধারণা। দমকল সূত্রে খবর, দাহ্য পদার্থ বেশি পরিমাণে থাকায় আগুন বিধ্বংসী চেহারা নেয়। গোটা ইউনিটে খুব দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে। তবে ফার্মাসি ইউনিট লাগোয়া বাড়িগুলির কোনও ক্ষতি হয়নি বলেই জানা গিয়েছে।

আরও  পড়ুন: ট্রাম্পের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারির আহ্বান ইরাকি সাংসদদের

প্রসঙ্গত, বিশাখাপত্তনমের দক্ষিণ শহরতলির বেঙ্কটপুরের গোপালপত্তনম এলাকার গ্যাস দুর্ঘটনার আতঙ্ক এখনও কাটেনি। প্রাণ হারিয়েছেন ১১ জন। হাসপাতালে চিকিত্‍সাধীন শতাধিক মানুষ। চিকিত্‍সকরা জানিয়েছেন, ক্ষতিকর স্টাইরিন গ্যাসের প্রভাবেই অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন এত মানুষ।

 

 

Related Articles

Back to top button
Close