fbpx
কলকাতাগুরুত্বপূর্ণহেডলাইন

অনুব্রত একজন ‘সাহায্যকারী ছেলে’: মমতা

তৃণমূলের ছাত্র পরিষদের প্রতিষ্ঠা দিবসে বিজেপির বিরুদ্ধে লাগাতার আক্রমণ

যুগশঙ্খ, ওয়েবডেস্ক: তৃণমূলের ছাত্র পরিষদের প্রতিষ্ঠা দিবস পালিত হল ধর্মতলার মেয়ো রোডে। স্বভাবমতোই মঞ্চে উঠে বিজেপি লাগাতার আক্রমণ শানালেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তার আক্রমণের নিশানায় থাকল সীমান্তে বিএসএফ-এর ঘটনা থেকে বিলকিস কাণ্ড। এমনকী মঞ্চে দাঁড়িয়ে অনুব্রত মণ্ডলকে এক সাহায্যকারী ছেলে বলে প্রশংসায় ভরিয়ে দিলেন দিদি। মমতা বলেন, সংবাদমাধ্যমের কথায় বিশ্বাস করবেন না, কারণ ওরা বিজেপির কথা শুনে চলে। কাল যদি শোনেন ববির বাড়ি থেকে অনেক সম্পত্তি পাওয়া গেছে, সেই কথায় কেউ বিশ্বাস করবেন না। জানবেন সব মিথ্যা। বিজেপির উদ্দেশে তীব্র ধিক্কার দিয়ে মমতা বলেন, এবার কি ববি, অরূপ, চন্দ্রিমাকে গ্রেফতার করা হবে? নির্বাচনের আগে এদের গ্রেফতার করা হলে বিজেপি ভাবছে, আর তৃণমূল জিততে পারবে না। আমাকেও গ্রেফতার করেও কিছু হবে না।

মঞ্চ থেকেই অভিষেককে উদ্দেশে করে মমতা বলেন, ওকে (অভিষেক) ওর স্ত্রীকে সিবিআই তলবে করেছিল। এবার মনে হয় ওর দুবছরের ছেলেটাকে ডাকবে। তুই তোর ছেলেটাকেও নিয়ে যাস। তাহলে ওরা বুঝবে সে কত স্ট্রং।

এদিন মমতা বলেন, আমি রাজনীতি করি সমাজসেবার জন্য। আমি যখন সাংসদ ছিলাম তখন ১ লক্ষ টাকা করে পেতাম। আমি সেই টাকা নিইনি। আমি কবিতা লিখি, তার বই বিক্রি হয়। আমি বই লিখতে তাতেও দোষ, শুভাপ্রসন্ন ছবি আঁকলে তাতেও সমস্যা। আমি ব্রাত্যর হাত থেকে পুরস্কার নিলাম। সেখানেও সমস্যা। আরে আমি অনেক পুরস্কার ছেড়ে দিই। আমি প্রয়োজন ছাড়া সরকারি গাড়ি ব্যবহার করি না।

মমতা বলেন, আমাকে একজন বলল, দিদি আপনার নামে মামলা হয়েছে। আমি বললাম তাই নাকি। এখানে কেন আমার আন্তর্জাতিক মামলা হওয়া উচিত। কারণ এখানে তো বিজেপি যা বলবে, ওরা তাই করবে।

মঞ্চ থেকেই মমতা বলেন, আমার মন এখনও ছাত্রের মতো। দলীয় কর্মীদের তিনি মানুষের বাড়ি বাড়ি গিয়ে সকলের সুবিধা অসুবিধা জানতে নির্দেশ দেন তিনি।

 

Related Articles

Back to top button
Close