fbpx
পশ্চিমবঙ্গহেডলাইন

তৃণমূলের গোষ্ঠী সংঘর্ষে উত্তপ্ত আরামবাগ, মৃত এক, আহত ৬

গোপাল রায়, আরামবাগ: তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্বে উত্তপ্ত হয়ে উঠল আরামবাগ থানার অন্তর্গত হরিনখোলা এলাকা।এমনকি গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের জেরে মৃত্যু হল এক তৃণমূল কর্মী। পাশাপাশি আহত ছয় জন।ঘটনার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আরামবাগের এসডিপিও নির্মল কান্তি দাস‌ও আরামবাগ থানার আইসি পার্থসারথি হালদার সহ বিশাল পুলিশবাহিনী এলে এলাকায় ঢুকতে বাধা দেয় আরামবাগের হরিণ খোলা এলাকার বাসিন্দারা।

এলাকা দখল কে কেন্দ্র করে দীর্ঘ দিন ধরে হরিণ খোলা পঞ্চায়েতের প্রধান তৃণমূল নেতা লাল্টু খা ও জেলা সভাধিপতি মেহবুব রহমানের ভাই পারভেজ রহমানের মধ্যে একটা চাঁপা উত্তেজনা ছিল, যা বৃহস্পতিবার প্রকাশ্যে আসে। লাল্টু খাঁয়ের অভিযোগ ,পারভেজ রহমানের তাঁর লোকজন নিয়ে ঘোলতাজ পুর এলাকায় এসে তাঁর অনুগামীদের উপর আক্রমন চালায়। চলে মুড়ি মুড়কির মতো বোমাবাজি। এমনকি কয়েক রাউন্ড গুলি চালানো হয়।

অভিযোগ পারভেজের লোকজন যার বোমা ও গুলির আঘাতে মৃত্যু হয় ইসরাইল খান তরফে চন্দন নামে এক ব্যক্তির।মুহুর্তে বন্ধ হয়ে যায় এলাকার দোকান পাঠ। পাশাপাশি বোমা গুলিতে আহত হয় আরো ছয় জন। তাদেরকে উদ্ধার করে আরামবাগ মহকুমা হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। আরামবাগ থানার আইসি কে এলাকায় ঢুকতে বাধা দিলে এসডিপিও বিশাল পুলিশ বাহিনী নিয়ে এলাকায় ঢোকে। বসানো হয় পুলিশ পিকেট। চলে টহলদারি। বোমাগুলি খেয়ে আহতরা আরামবাগ মহকুমা হাসপাতালে তাদের ভর্তি করা হয়েছে। মৃত্যুর ঘটনায় জড়িতদের অতি দ্রুত গ্ৰেফতার করতে হবে, এই দাবি নিয়ে তারকেশ্বর আরামবাগ মূল সড়কে পথ অবরোধ করে স্থানীয়রা।

তৃণমূলের জেলা সভাপতি দিলীপ যাদব বলেন, ঘটনার খবর পেয়েছি। আমি নিজে ঘটনাস্থলে যাচ্ছি। সমস্ত বিষয়ে নিয়ে রাজ্য নেতৃত্বের সাথে কথা বলবো। তবে প্রশাসন নিজের কাজ করবে।

Related Articles

Back to top button
Close